টি - ২০ র জন্য ঘোষণা হয়ে গেলো ভারতীয় দল! দেখে নিন 1

ছাব্বিশে জুলাই গলে প্রতিবেশী দ্বীপরাষ্ট্রে পূর্ণাঙ্গ সফর শুরু করেছিল ভারতীয় ক্রিকেট দল। দেড় মাসের দীর্ঘ সফর এখন শেষের পথে। বাড়ি ফেরার বিমান ধরার আগে আর মাত্র একটি ম্য়াচ। টেস্ট সিরিজে শ্রীলঙ্কা হোয়াইটওয়াশ। একদিনের সিরিজেও শ্রীলঙ্কা হোয়াইটওয়াশ। গোটা সফরে ভারত আধিপত্য় দেখিয়েছে। টেস্ট ও একদিনের আন্তর্জাতিক আসর মিলিয়ে টানা আটটি ম্য়াচে মেন ইন ব্লু অপরাজেয়। শ্রীলঙ্কান লায়নদের একেবারে বিড়ালে পরিণত করে দিয়েছেন বিরাটরা। ভারতের কাছে চরম পর্যদুস্ত হওয়ায় শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট টিম এখন কোনও রকমে ভারতের বিরুদ্ধে হোম সিরিজটা শেষ হলে বাঁচে। আগামী বুধবার কলম্বোর ক্ষেত্ররামার প্রেমদাসা স্টেডিয়ামে সিরিজের একমাত্র টি-২০ ম্য়াচটি খেলা হবে শ্রীলঙ্কা ও ভারতের মধ্য়ে। তার পরের দিনই দেশে ফেরার বিমান ধরবেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা।

দেশে ফেরার আগে বিদায়ী শ্রীলঙ্কান জাতীয় নির্বাচকদের কফিনে ক্নিন সুইপের পেরেক মারাই লক্ষ্য় ভারতের। সাত তারিখ বৃহস্পতিবার যখন ভারতে ফেরার বিমান ধরবেন বিরাট কোহলি, তখন ওদিকে নিজের পদ থেকে ইস্তফা দেবেন সনৎ জয়সূর্যর নেতৃত্বাধীন লঙ্কান সিলেকশন টিম। ভারতের কাছে একদিনের সিরিজে হেরে ২০১৯ সালে সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার যোগ্য়তা হারাতে চলেছে শ্রীলঙ্কা। ইংল্য়ান্ড ও ওয়েলসে অনুষ্ঠিত হতে চলা বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলতে হলে কোয়ালিফায়ারে ভালো খেলে কোয়ালিফাই করে আসতে হবে। দুর্দশার এই ভারত পর্বটা মেটার পর শ্রীলঙ্কার নির্বাচকমণ্ডলীতে যাঁরা আসবেন, তাঁদের সামনে টিমটাকে আবার গড়ে তোলার দায়িত্ব থাকছে।

চোট-আঘাত ও খারাপ ফর্মের কারণে শ্রীলঙ্কান টিম একেবারে ধুঁকছে। মাহেলা জয়বর্ধনে ও কুমার সাঙ্গাকারার অবসরের পর তাঁদের পরিবর্ত এখনও খুঁজে পায়নি শ্রীলঙ্কা। টিমের সাম্প্রতিক পারফরম্য়ান্সে সমর্থকরা এতটাই বিরক্ত যে অপমানের জ্বালা বোঝাতে কলম্বোতে একদিনের সিরিজের চতুর্থ ম্য়াচে জলের বোতল ছোঁড়েন তাঁরা। ভারতের বিরুদ্ধে হোম সিরিজ শেষে রিভিউ মিটিংয়ে বসতে হবে শ্রীলঙ্কান বোর্ডকে। উপুল থারাঙ্গা, অ্য়াঞ্জেলো ম্য়াথিউজ ও লাসিথ মালিঙ্গাকে দলের সিনিয়র হিসেবে বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে। মালিঙ্গা যদিও জানিয়ে রেখেছেন, ভারত সিরিজের পর তিনি ভেবে দেখবেন, আর খেলা চালিয়ে যাবেন কি না। কারণ, তাঁর বলের গতি কমে এসেছে। আবার আগের মতো তাঁর ফর্মও নেই। কিন্তু, এই দুর্দিনে তিনি অবসর নিলে আরও বিপদে পড়বে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটের ভবিষ্য়ৎ। অবশ্য়, ফর্মে ফেরার জন্য় কি করা উচিত, তা নিয়ে ভারতের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার জাহির খানের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছেন লাসিত। তাঁর মতো একজন বোলারকে এভাবে ক্রিকেট থেকে অবসর নিতে কেউই দেখতে চান না।

উল্টোদিকে, ভারতের কথা আগেই বলা হয়েছে। ক্লিন সুইপ করে শ্রীলঙ্কার মাটি ছাড়তে চায় ভারত। টেস্ট ও একদিনের ক্রিকেটে অল-উইন রেকর্ডের কারণে ভারতে দুই ধরনের ক্রিকেটে সেরা তিনে রয়েছে ব়্য়াঙ্কিংয়ে। কিন্তু, টি-২০ ক্রিকেটে ভারতের আইসিসি ব়্য়াঙ্কিং পাঁচ। স্বভাবতই বিরাটরা সেটা উন্নত করতে চাইবেন। একদিনের সিরিজের মতো টি-২০ ম্য়াচটিতেও পরীক্ষা-নীরিক্ষা চালানো হতে পারে। আর তাই ব্য়াটিং লাইন-আপে কিছু বদল হওয়ার সম্ভাবনা। কোনও নতুন কম্বিনেশনও পরীক্ষা করে দেখা হতে পারে। তবে, ফিল্ডিংয়ের দিক থেকে দেখতে গেলে বর্তমান ভারতীয় দল একেবারে তুখড়। অসুস্থ মাকে দেখতে শিখর ধওয়ন দেশে ফেরায় রোহিত শর্মার সঙ্গে কাকে ওপেন করতে পাঠান বিরাট, সেটাই দেখার। হয়ত কোহলিকে ওপেন করতেও দেখা যেতে পারে। কারণ, টি-২০ ক্রিকেটে বিরাট ওপেন করতে ভালোবাসেন। অজিঙ্কা রাহানাকে প্রথম একাদশে জায়গা দেওয়া হয় কি না, তাও দেখার বিষয়। অক্ষর প্য়াটেলকে বুধবার সুযোগ দেওয়া হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। জসপ্রীত বুমরাহকে বিশ্রাম দিয়ে শার্দুল ঠাকুরের প্রথম একাদশে রাখার সম্ভাবনা প্রবল।

ভারতীয় দল : বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা (সহ-অধিনায়ক), লোকেশ রাহুল, মণীশ পান্ডে, অজিঙ্কা রাহানে, কেদার যাদব, এমএস ধোনি (উইকেটকিপার), হার্দিক পান্ডিয়া, অক্ষর প্য়াটেল, কুলদীপ যাদব, যুজবেন্দ্র চহল, জসপ্রীত বুমরাহ, ভুবনেশ্বর কুমার ও শার্দুল ঠাকর।

ম্য়াচের সময় : ভারতীয় সময় সন্ধ্য়া সাতটা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *