করোনা ভাইরাসের আতঙ্কের মধ্যেই ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ সাক্ষী হতে চলেছে ভরা স্টেডিয়ামের

বিশ্বজুড়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের প্রভাব বা COVID-19 এখনো পর্যন্ত ৩১০০ মানুষের প্রাণ নিয়েছে এবং বিশ্বজুড়ে এক লক্ষেরও বেশি মানুষকে সংক্রামিত করেছে। সেই সঙ্গে এই মারণ রোগ বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন স্পোর্টস ইভেন্টকেও সমস্যায় ফেলেছে। এমনিকী এই ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে আসন্ন টোকিও অলিম্পিক ২০২০কেও সন্দেহের মধ্যে ফেলে দিয়েছে। করোনা ভাইরাসের ক্রমবর্দ্ধমান আশঙ্কার মধ্যেও পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল যে আসন্ন ক্রিকেট সিরিজগুলিকে ক্লোজ ডোর স্টেডিয়ামে খেলা হোক, কিন্তু এটা কোনো বিকল্প নয়।
বিসিসিআই প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলী বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ টি-২০ লীগ আইপিএল এবং ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে এই ভাইরাসের আতঙ্ককে অস্বীকার করেছেন। বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী জানিয়েছিলেন যে আসন্ন সমস্ত ক্রিকেট ইভেন্টগুলি পরিকল্পনা অনুসারেই এগোব এবং এও বলেছিলেন যে সিনিয়র আধিকারিক এবং কর্তৃপক্ষ পরিস্থিতির উপর নজর রাখছেন এবং এই রোগের বিরুদ্ধে সবরকম লড়াইয়ের জন্য তারা প্রস্তুত থাকবেন। যতদূর করোনা ভাইরাসের ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক, বলে দেওয়া যাক এখনো পর্যন্ত ভারতে ৬০টি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কেস পাওয়া গিয়েছে।

লখনৌয়ের আয়োজকরা সম্ভাব্য সমস্ত পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য প্রস্তুত

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ সাক্ষী হতে চলেছে ভরা স্টেডিয়ামের 1

ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে প্রথম ওয়ানডে বৃহস্পতিবার ধর্মশালায় হিমাচলপ্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের স্টেডিয়ামে হবে। এই ম্যাচে করোনা ভাইরাসের প্রভাবের কারণে স্টেডিয়ামে দর্শকদের কম উপস্থিতির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে রবিবার হতে চলা ভারত দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় ম্যাচ ঘিরে লখনৌয়ের আয়োজকরা বিশাল সংখ্যক দর্শক আগমণের ব্যাপারে প্রায় নিশ্চিত। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যেই ইউপি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েন এবং একানা স্পোর্টস সিটি দাবী করেছে যে তারা করোনা ব্যাপারে সমস্ত সম্ভাব্য পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন যাতে সমর্থকদের স্টেডিয়ামে আসতে পারেন এবং সেরা ম্যাচের অভিজ্ঞতা উপভোগ করতে পারেন।

করোনার প্রভাব রুখতে এই ব্যবস্থা নিচ্ছে উত্তরপ্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ সাক্ষী হতে চলেছে ভরা স্টেডিয়ামের 2

উত্তরপ্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি যুদ্ধবীর সিং বুধবার বলেছেন যে, “এখানে এখনো পর্যন্ত সবকিছু ঠিক রয়েছে কারণ আমরা করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক এড়াতে সমস্ত রকম সম্ভাব্য পদক্ষেপ নিচ্ছি। এছাড়াও করোনা ভাইরাসের সংক্রামণ এড়াতে না শুধু ভাইরাস ডিটেক্টর বরং ৫০ হাজার দর্শকদের জন্য স্যানিটাইজার পাউচও থাকছে”।

তিনি আরো বলেন, “এই ম্যাচের উপর করোনা ভাইরাসের কোনো থ্রেট নেই। আমরা হেলথ অর্গ্যানাইজেশন এবং সরকারি এজেন্সিগুলি দ্বারা ইস্যু করা সমস্ত নির্দেশ অনুসরণ করছি। সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রবেশ দ্বারগুলিতে ভাইরাস ডিটেক্টর ইনস্টল করা হয়েছে, যার মধ্যে খেলোয়াড় এবং আধিকারিকদের জন্য ব্যবহৃত প্রবেশদ্বারগুলিও রয়েছে। এমনিকী আমরা প্রবেশদ্বারগুলিতে সমস্ত সমর্থকদের জন্য স্যানিটাইজারও সরবরাহ করছি”।

টিকিট বিক্রি কম হলে হবে আর্থিক ক্ষতি

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ সাক্ষী হতে চলেছে ভরা স্টেডিয়ামের 3

রাজ্যের রাজধানীতে অনুষ্ঠিত হতে চলা প্রথম সর্বপ্রথম ওয়ানডের স্লো টিকিট বিক্রির কথা ধরা হলে একানা স্পোর্টস সিটির ম্যানেজিং ডাইরেক্টর উদয় সিং মঙ্গলবার সন্ধায় জানিয়েছেন যে ৪০-৪৫টি শতাংশ টিকিট বিক্রি হয়ে গিয়েছে। তিনি এ ব্যাপারে জানিয়েছেন যে,
“অবশ্যই করোনা ভাইরাস সম্পর্ক সমর্থকদের মধ্যে উদ্বেগ রয়েছে, তবে ম্যাচের এখনো চারদিন বাকি থাকায় আমরা নিশ্চিতভাবেই ভালো ভিড় হওয়ার আশা করছি।” বেশিরভাগ টিকিটই অনলাইনে বিক্রি হচ্ছে। তিনি এক কথা স্বীকার করে নিয়েছেন যে কম টিকিট বিক্রি হওয়ার ফলে তাদের অনেকটাই আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হবে। তিনি বলেছেন, “ম্যাচে অনেক অংশীদার রয়েছে, এবং সমর্থকদের স্টেডিয়ামে কম উপস্থিতি তাদেরও আর্থিকভাবে প্রভাবিত করবে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *