এই মূহুর্তের সব থেকে বড় খবর, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সম্ভবত খেলবে না ভারত 1
ভারতীয় ক্রিকেট দল

আইপিএল জ্বরে এখন কাঁপছে গোটা দেশ। এই বিলাসবহুল লিগের মাঝ পথে এসে এখন রোমাঞ্চ অনেক বেড়ে গিয়েছে। প্লেঅফের দৌড়ে দুটি দল ছাড়া বাকি সবাই সমান দাবীদার। তবে ঘরের এই লিগে নিয়ে যতই মাতামাতি হোক না কেন, ভারতীয় জাতীয় দল পড়েছে এক চরম সংকটে। সম্ভবত এই বছরে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলবে না ভারত। কিন্তু কেন?

আইসিসিকে চাপে রাখতে এবার কি চাল চালল বিসিসিআই, একবার দেখে নেওয়া যাক

জুন মাসেই যুক্তরাজ্যে শুরু হচ্ছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। পূর্ববর্তী চ্যাম্পিয়ন ভারত, এবারও বিশ্ব দরবারে তাদের দাপট টিকিয়ে রাখতে প্রস্তুত হয়েছিল জোরকদমে। কিন্তু খেলার সুযোগটাই যদি না পায় তাহলে প্রস্তুতি নিয়েও কী লাভ। আইসিসির নির্দেশিকা অনুযায়ী, গত মঙ্গলবারই (২৫ এপ্রিল) ছিল শেষ দিন যেখানে সমস্ত দলকে তাদের খেলোয়ারদের তালিকা জমা দিতে হত। ভারতই একমাত্র দল, যাদের খেলোয়ারের তালিকা জমা পড়েনি। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার জন্য খেলোয়ারদের তালিকা জমা দেওয়ার চূড়ান্ত সময়সীমা পেড়িয়ে যাওয়ায় চরম বিপাকে বিসিসিআই। কিন্তু কেন এত বড় এক দায়িত্বহীনতার কাজ করল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড!

এই ঘটনা ইচ্ছাকৃ্তই ঘটানো হয়েছে। তার কারণ বেশ কিছুদিন ধরে বিসিসিআই ও আইসিসির মধ্যে তীব্র বিবাদ চলছে। ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা চেয়েছিল রাজস্ব ব্যবস্থার কাঠামোকে পুর্ণগঠন করতে। সেক্ষেত্রে ‘বিগ থ্রি’ প্রথাকে ভেঙে ফেলার কথা বলা হয়েছিল। এই বিগ থ্রির অন্তর্গত ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড। এই কাঠামো ভেঙে ফেলা হলে ব্যাপক ক্ষতির মুখ দেখবে এই ক্রিকেট বোর্ডগুলি। তাই ভারত এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছিল। তবে বাকি দুই বোর্ড কোনও সাড়া দেয়নি। এই প্রেক্ষাপটে দাড়িয়ে বিসিসিআইয়ে আর্থিক ক্ষতির কথা চিন্তা করে নিয়ামক সংস্থা ১০০ মিলিয়ান ডলার দেওয়ার কথা বলেছিল ভারতীয় বোর্ডকে। কিন্তু তাতেও ভারতের প্রায় ২৯০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতি হবে। তাই আইসিসির প্রস্তাব মানতে চায়নি বিসিসিআই।

এই টানা পোড়েনের পরিস্থিতে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভারত তাদের ক্রিকেট দল না পাঠানোর হুমকি দিয়েছিল।সম্প্রতি যদিও এই বিষয়ে বেশি কথা বলেনি বিসিসিআই। তবে আইসিসির বিরুদ্ধে এই সিংহ গর্জনের কারণ রয়েছে। কারণ, বিসিসিআইয়ের এই প্রতিবাদে আরও তিনটি বোর্ডকে পাশে পেয়ে যাবে তারা। শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও জিম্বাবোয়ে। এর ফলে আইসিসি এই সিদ্ধান্ত পুর্ণবিবেচনা করতে বাধ্য হবে।

এদিকে বুধবারই এই নিয়ে দুবাইতে আইসিসির বৈঠক বসেছে। কারণ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভারতীয় দল না খেললে বিরাট আর্থিক ক্ষতি হবে আইসিসির। কাজেই বিসিসিআইকে না চটিয়ে কীভাবে সমাধান সূত্র বের করা যায় সেই নিয়েই এই বৈঠক হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *