ভারতীয় দল করল ভুল, কিন্তু ম্যাচ রেফারি আর অ্যাম্পায়ার দিলেন না শাস্তি, এখানে দেখুন ভিডিয়ো

যখন ক্রিকেট বোর্ডের ক্ষমতার কথা বলা হয় তো বিসিসিআইকে সবচেয়ে শক্তিশালী বোর্ড বলে মনে করা হয়। রাজকোটের ম্যাচে ভারতীয় দলের খেলোয়াড়রা মাঠের মাঝখানে দৌড়ে আইসিসির নিয়ম ভাঙে, কিন্তু তারপরও মাঠে উপস্থিত অ্যাম্পায়ার আর ম্যাচ রেফারি বিরাট কোহলির দলের বিরুদ্ধে কোনো কড়া সিদ্ধান্ত নেননি।

ভারতীয় দল করল ভুল হল না শাস্তি

ভারতীয় দল করল ভুল, কিন্তু ম্যাচ রেফারি আর অ্যাম্পায়ার দিলেন না শাস্তি, এখানে দেখুন ভিডিয়ো 1

রাজকোটে ভারত আর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে দ্বিতীয় একদিনের ম্যাচ খেলা হচ্ছে। এই ম্যাচে ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি আর রবীন্দ্র জাদেজা একটি ভুল করেন কিন্তু তাদের অ্যাম্পায়ারের তরফে কোনো শাস্তি দেওয়া হয়নি। আসলে ম্যাচে বিরাট কোহলিকে এক সময় পিচের মাঝখানে দৌড়তে দেখা যায়। তারপর রবীন্দ্র জাদেজাও এই ভুলের পুণরাবৃত্তি করেন। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী এই ভুলের শাস্তি হিসেবে দলের ৫ রান কেটে নেওয়া উচিত কিন্তু তেমনটা হয়নি। অ্যাম্পায়ার যদিও জাদেজাকে হুঁশিয়ার করেছিলেন। এই ভুলের কারণে নিউজিল্যাণ্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে অস্ট্রেলিয়া দলের ৫ রান অ্যাম্পায়ার কেটে নিয়েছিলেন। কিন্তু ভারতের সঙ্গে তা করা হয়নি।

ভারত করেছে মজবুত স্কোর

ভারতীয় দল করল ভুল, কিন্তু ম্যাচ রেফারি আর অ্যাম্পায়ার দিলেন না শাস্তি, এখানে দেখুন ভিডিয়ো 2

এই ম্যাচের টস অস্ট্রেলিয়া জেতে আর প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেয়। যারপর ভারতীয় দল ভীষণই ভালো শুরু করে, রোহিত শর্মা এই ম্যাচে ৪২ রান করেন। অন্যদিকে শিখর ধবন ৯০ বলে ৯৬ রানের বড়ো ইনিংস খেলেন যার মধ্যে ১৩টি চার এবং একটি ছক্কা শামিল ছিল। এরপর ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি দায়িত্ব সামলান। অধিনায়ক কোহলি ৭৬ বলে ৭৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন। অন্যদিকে উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান কেএল রাহুলও ৮০ রানের আক্রামণাত্ম ইনিংস খেলেন। যার সাহায্যে ভারতীয় দল ৫০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩৪০ রান করে। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে অ্যাডাম জাম্পা ৩ উইকেট নেন।

অস্ট্রেলিয়ার দল হারল ম্যাচ

ভারতীয় দল করল ভুল, কিন্তু ম্যাচ রেফারি আর অ্যাম্পায়ার দিলেন না শাস্তি, এখানে দেখুন ভিডিয়ো 3

জবাবে লক্ষ্য তাড়া করতে নামা অস্ট্রেলিয়া দলের শুরুটা খারাপ হয়। দলের ওপেনিং ব্যাটসম্যান ডেভিড ওয়ার্নার (১৫) দলের মাত্র ২০ রানের মাথায় আউট হন। এরপর দ্বিতীয় উইকেটের হয়ে স্মিথ আর অ্যারণ ফিঞ্চ ৬২ রানের এক দুর্দান্ত পার্টনারশিপ গড়েন। ফিঞ্চের (৩৩) আউট হওয়ার পর স্টিভ স্মিথ লাবুসেনের সঙ্গে ৯৬ রানের একটি ভালো পার্টনারশিপ গড়েন। যদিও মার্নস লাবুসেনের আউট হওয়ার পর অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস নড়বড়ে হয়ে যায় আর অস্ট্রেলিয়ার পুরো দল ৩০৪ রানে অলআউট হয়ে যায়। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সবচেয়ে বেশি স্টিভ স্মিথ ১০২ বলে ৯৮ রানের ইনিংস খেলেন। অন্যদিকে দলের হয়ে মার্নস লাবুসেন ৪৭ বলে ৪৬ রানের ইনিংস খেলেন। ভারতের হয়ে মহম্মদ শামি ৩ উইকেট নেন। অস্ট্রেলিয়া এই ম্যাচ ৩৬ রানে হেরে যায় সেই সঙ্গে সিরিজও ১-১ হয়ে গিয়েছে। এখন এই সিরিজের শেষ এবং নির্ণায়ক ম্যাচ আগামী ১৯ জানুয়ারি ব্যাঙ্গালুরুতে খেলা হবে।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *