বিরাট কোহলির অধিনায়কত্ব নিয়ে শ্রীসন্থ দিলেন এই বড় বয়ান

আইপিএল ২০১৩য় ভারতীয় দলের জোরে বোলার এস শ্রীসন্থকে স্পট ফিক্সিংয়ে লিপ্ত পাওয়া গিয়েছিল। যে কারণে তাকে নিজের কিছু দিন জেলে কাটাতে হয়েছিল। এস শ্রীসন্থের সঙ্গে অজিত চান্দেলা এবং অঙ্কিত চৌহানের মত খেলোয়াড়দেরও স্পট ফিক্সিংয়ে লিপ্ত পাওয়া গিয়েছিল। আপনাদের জানিয়ে দিই যে ২০১৩র আইপিএলে এস শ্রীসন্থ সমেত অজিত চান্দেলা আর অঙ্কিত চৌহানকে দিল্লি পুলিশ একটি হোটেল থেকে গ্রেপ্তার করেছিল। যারপর তিনজনের উপরেই স্পট ফিক্সিংয়ের কেস চলেছিল। তিনজনই কিছুদিন জেলে কাটান। বিসিসিআই এই তিন খেলোয়াড়ের উপরেই আজীবন ক্রিকেট থেকে ব্যান লাগিয়ে দিয়েছিল।

আগামী ১২ সেপ্টেম্বর শেষ হবে ব্যান

বিরাট কোহলির অধিনায়কত্ব নিয়ে শ্রীসন্থ দিলেন এই বড় বয়ান 1

এর মধ্যেই ভারতীয় দলের প্রাক্তন জোরে বোলার এস শ্রীসন্থের জন্য একটি স্বস্তির খবর সামনে এসেছে। আসলে এস শ্রীসন্থের উপর ২০১৩র সেপ্টেম্বরে লাগানো ব্যান আগামী বছর শেষ করার ঘোষণা করা হয়েছে। বিসিসিআইয়ের লোকপাল রিটায়ার জাস্টিস ডিকে জৈন জানিয়েছেন যে আগামী বছর ১২ সেপ্টেম্বর এই ৭ বছরের ব্যান শেষ হতে চলেছে। আপনাদের জানিয়ে দিই যে ৭ আগস্ট ২০১৭য় কেরলের একটি আদালত শ্রীসন্থের উপর লাগা আজীবনের ব্যান সরিয়ে দিয়েছিল। কিন্তু বিসিসিআই আর দিল্লি পুলিশ এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিল। যদিও এখন বিসিসিআইয়ের লোকপাল পরিস্কার করে দিয়েছেন যে ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০তে তার ব্যান সম্পূর্ণভাবে শেষ করে দেওয়া হবে।

বিরাট কোহলির নেতৃত্বে খেলতে চেয়েছিলাম

বিরাট কোহলির অধিনায়কত্ব নিয়ে শ্রীসন্থ দিলেন এই বড় বয়ান 2

মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে নিজের একটি বয়ানে শ্রীসন্থ বলেছেন যে,

“যা আমি আজ শুনেছি সেই বিষয়ে আমি যথেষ্ট খুশি। আমি নিজের সমস্ত শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ জানাতে চাই যারা আমার জন্য প্রার্থনা করেছিলেন, তাদের প্রার্থনা পূর্ণ হয়েছে। আমি এখন ৩৬ বছর বয়েসী আর আগামী বছর ৩৭ বছরের হয়ে যাব। আমার এখন টেস্টে ৮৭টি উইকেট রয়েছে আর আমার লক্ষ্য এটাই যে আমি নিজের কেরিয়ারের শেষ ১০০ টেস্ট উইকেটের সঙ্গে করি। আমি আশ্বস্ত যে আমি ভারতের টেস্ট দলে ফিরে আসতে পারি। আমি সবসময়ই বিরাট কোহলির নেতৃত্বে খেলতে চাইতাম”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *