হায়দ্রাবাদ এনকাউন্টারে ধর্ষণে অভিযুক্তদের মারা যাওয়ায় গৌতম গম্ভীর দিলেন প্রতিক্রিয়া

৬ ডিসেম্বর সকালে হায়দ্রাবাদ পুলিশের এনকাউন্টারে ধর্ষণে অভিযুক্তদের মেরে ফেলা হয়েছে। গত সপ্তাহে ভেটারনারি ডাক্তারের সঙ্গে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছিল। পুলিশ দ্রুতই চারজন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে ফেলেছিল। পুলিশের মতে অভিযুক্তরা পালানোর চেষ্টা করে আর এই কারণে ফায়ারিংয়ে মারা যায়। পুলিশ তাদের ঘটনাস্থলে সিন রিক্রিয়েশনের জন্য নিয়ে গিয়েছিল।

পুরো দেশজুড়ে হয়েছে বিতর্ক

হায়দ্রাবাদ এনকাউন্টারে ধর্ষণে অভিযুক্তদের মারা যাওয়ায় গৌতম গম্ভীর দিলেন প্রতিক্রিয়া 1

এনকাউন্টারের পর মানুষ দু-ভাগে ভাগ হয়ে গিয়েছেন। বেশকিছু মানুষ এটাকে সঠিক বলছেন তো বেশ কয়েকজন এটা গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে বলে মনে করছেন। ধর্ষণের এই ঘটা গত ২৬ নভেম্বর হায়দ্রাবাদ রেলওয়ে থেকে ২৪ কিলোমিটার দূরে শামশাবাদ টোল প্লাজার কাছে হয়েছিল। পুলিশের বক্তব্য যে অভিযুক্তরা তাদের কাছ থেকে বন্দুক ছিনিয়ে নিয়েছিল। এরপর তারা গুলি চালায়। এরপর পুলিশ জবাব দেয় আর চারজনকে মারে। পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন যে অভিযুক্ত মহম্মদ আরিফ সবার আগে গুলি চালিয়েছিল।

গৌতম গম্ভীর দিয়েছেন প্রতিক্রিয়া

হায়দ্রাবাদ এনকাউন্টারে ধর্ষণে অভিযুক্তদের মারা যাওয়ায় গৌতম গম্ভীর দিলেন প্রতিক্রিয়া 2

গৌতম গম্ভীর সংসদের বাইরে মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বলেছেন, “আইন ব্যবস্থায় উন্নতি করার প্রয়োজন রয়েছে। ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টের সিদ্ধান্তই শেষ কথা হওয়া উচিৎ আর অভিযুক্তদের আগে আর্জি দেওয়ার অধিকার থাকা উচিৎ নয়। সেই সঙ্গে যদি ওদের ফাঁসি দেওয়া হয় তো তাদের দয়া ভিক্ষার আবেদন দেওয়ার অধিকার পাওয়া উচিৎ নয়। যদি অভিযুক্তরা পালানোর চেষ্টা করছিল তো আমি পুলিশের সঙ্গে রয়েছি”।

সোশ্যাল মিডিয়াতেও বলেছেন

হায়দ্রাবাদ এনকাউন্টারে ধর্ষণে অভিযুক্তদের মারা যাওয়ায় গৌতম গম্ভীর দিলেন প্রতিক্রিয়া 3

ভারতীয় দলের প্রাক্তন ওপেনিং ব্যাটসম্যান আর বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর খোলাখুলি নিজের রায় দেন। তিনি বলেন যে এমন মানুষদের ক্ষমা ভিক্ষার জন্য আবেদনও করা উচিৎ নয়। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন,

“বর্বর মানুষরা দয়ার পাত্র হয় না। যেমনই দোষীদের ফাঁসি শাস্তি দেওয়া হবে ওদের দেরী না করে লক্ষ্য পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়া উচিৎ। আমি প্রত্যেক নাগরিকের কাছে আবেদন করছি যে তারা সকলেই ক্ষমা ভিক্ষার আবেদনের সমীক্ষার অ্যাপিল করুক”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *