সুরেশ রায়না কিংবা গৌতম গম্ভীর হতে পারে যুবরাজ সিং এর বিকল্প 1

সুরেশ রায়না কিংবা গৌতম গম্ভীর হতে পারে যুবরাজ সিং এর বিকল্প 2

ভারতের সাবেক নির্বাচক সৈয়দ কিরমানি এক সাক্ষাৎকারে সুরেশ রায়না কিংবা গৌতম গম্ভীরের মত অভিজ্ঞ কাউকে দলে এনে দলকে আরো শক্তিশালী করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন। বর্তমানে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দল গঠনের ক্ষেত্রে একমাত্র লক্ষ্য হল ২০১৯ সালে বিশ্বকাপ। এ উদ্দেশ্য সামনে রেখে তরুণদের দক্ষ ও যোগ্য একটি দল হিসেবে করার চেষ্টা চলছে, অভিজ্ঞতা কে প্রাধন্য দিয়ে নয়। এসব করার উদ্দেশ্য হল যাতে একটি শক্তিশালী দল গড়ে তোলা যায়। আবার এই কৌশলে ই যুবরাজ সিং এর মত কিছু সিনিয়র ক্রিকেটার দলে থাকার কৌশলকে আলোচনায় এনেছে। কারন যুবরাজ তার ফর্মে নেই। এই বির্তক জোড়ালো হচ্ছে যে ২০১৯ সালের বিশ্বকাপের জন্য যথার্থ হবেন কিনা যুবরাজ সিং। এক সময়ে এই মারকুটে ব্যাটসম্যান ছিলেন প্রতিপক্ষ বোলারদের আতঙ্ক, অথচ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রিপতে তিনি ছিলেন সাদামাটা। এরপর ওয়েস্ট উইন্জিদ সফরেও নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেন নি।

কিরমানি মনে করেন যুবরাজ এবার চূড়ান্ত ভাবে বয়সের কাছে পরাজিত। “যুবরাজ তেমন খেলতে পারছে না যেমন তার থেকে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। আর এটা ই স্বাভাবিক, কারন তার বয়স হয়েছে। এ বয়সে খেলার জন্য যেমন ফিটনেস থাকা দরকার থাকা দরকার তা শারীরিক ও মানসিক কারনে অনেক সময় হয় না। শর্ট খেলার যেমন গতি, প্রকৃতি থাকা দরকার তাও এসময় হয় না ” – বলেন ৬৭ বছর বয়স্ক সাবেক এই উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান। একদিনের ২৯৫ ম্যাচে ৮৪৯৪ রান করা যুবরাজের ব্যাটিং গড় ৩৬.৭৭ যার মধ্যে শত রানের ইনিংস আছে ১৪টি আছে ৫২টি অর্ধ শতক। একদিনের ক্রিকেটে তার এই বিশাল অভিজ্ঞা তাকে দলে এখনো সুযোগ দিলেও এখন তার বিকল্প খুজে দেখা উচিত বলে মনে করেন কিরমানি। তার মতে কেবল অভিজ্ঞতার উপর ভরসা করে ই একজনের উপর বিশ্বাস রাখা উচিত নয়। ৮৮ টি টেস্ট ও ৪৯ টি একদিনের ম্যাচ খেলা সাবেক এই নির্বাচকের মতে যুবরাজের বদলে তরুণ প্রতিভাবান হিসেবে রিসাহব পান্ট বা অভিজ্ঞ সুরেশ রায়না কিংবা গৌতম গম্ভীরকে সুযোগ দেওয়া উচিত।

ট্রফি শেষ হওয়ার পরই জাতীয় দলে তার ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে গেলেও কিরমানি আগে দ্যা ওয়াল খ্যাত রাহুল দ্রাবিড়ও যুবরাজের ক্যারিয়ার নিয়ে মন্তব্য করেছেন। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘২০১৯ বিশ্বকাপের জন্য এখন থেকেই ধোনি ও যুবরাজের বিকল্প খোঁজা দরকার।’ যুবরাজের পরিবর্তনের অন্য যারা মন্তব্য করেছন সে সব বিশ্লেষকরা মনে করছেন, মিডল অর্ডারে জায়গা পাওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন ৫ ক্রিকেটার। তারা হলেন সুরেশ রায়না, দীনেশ কার্তিক, মনীশ পান্ডে, ঋষভ পান্থ এবং লোকেশ রাহুল। দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাইরে রয়েছেন রায়না। তবে বলা বাহুল্য, কঠিন পরিস্থিতিতে তার মতো ভরসাযোগ্য খেলোয়াড় খুব বেশি নেই।অন্যদিকে ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো পারফর্ম করেছেন দীনেশ কার্তিক।

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *