অবসর নিলেও চেন্নাই সুপার কিংসের সাথে যুক্ত থাকবেন এমএস ধোনি, নেবেন এই বড় দায়িত্ব 1

আইপিএলের (IPL) ১৫তম মরসুমে, সিএসকে প্লে অফের বাইরে। দলটি এখনও লিগে দুটি ম্যাচ খেলতে পারেনি, তবে পরের মরসুমে ধোনির (Dhoni) ভূমিকা নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা শুরু হয়েছে। তাকে নতুন দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে। এখন তাদের ব্যবস্থাপনার অংশ করা যেতে পারে। সূত্রের খবর, ধোনি সিইও বা অন্য কোনও পদে থাকবেন। ধোনি বর্তমানে সিএসকে-এর প্রবর্তক সংস্থা ইন্ডিয়া সিমেন্টের ভাইস প্রেসিডেন্ট। ম্যানেজমেন্ট চায় তাকে এই পর্যায়েই দলের সঙ্গে যুক্ত করা হোক। পরবর্তী অধিনায়কও ঠিক করবেন ধোনি। কোচ ও অন্যান্য কর্মকর্তা নিয়োগে তার পূর্ণ স্বাধীনতা থাকবে। মাহি যদি ম্যানেজমেন্টের অংশ হতে রাজি হন, তাহলে পরবর্তী মরসুমের আগে ট্রেড করার পরই নতুন অধিনায়ক ঘোষণা করা হবে।

নতুন অধিনায়ক ঘোষণার কোনো তাড়া নেই

অবসর নিলেও চেন্নাই সুপার কিংসের সাথে যুক্ত থাকবেন এমএস ধোনি, নেবেন এই বড় দায়িত্ব 2

নতুন অধিনায়ক নির্বাচন নিয়ে তাড়াহুড়ো করতে চায় না সিএসকে ম্যানেজমেন্ট। IPL-15 শুরু হওয়ার দুদিন আগে ধোনি অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজাকে (Ravindra Jadeja) অধিনায়ক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। আট ম্যাচের পর জাদেজা আবার ধোনির হাতে অধিনায়কত্ব তুলে দেন। জাদেজার নেতৃত্বে ৮টি ম্যাচের মধ্যে মাত্র দুটি ম্যাচ জিততে পারে দলটি। অধিনায়কত্বের দায়িত্ব নেওয়ার পর, ধোনি ৪ ম্যাচের মধ্যে ২টিতে সিএসকেকে জয়ের দিকে নিয়ে যান। সূত্র প্রকাশ করেছে যে মঈন আলি (Moeen Ali) এই মুহূর্তে চেন্নাইয়ের অধিনায়কত্বের শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী। তার বয়স এখন ৩৪ বছর। তিনি ২-৩ বছর আইপিএল খেলতে পারবেন। অলরাউন্ডারের হাতে দলের নেতৃত্ব দেওয়ার পক্ষে ধোনি। এ কারণে মইনের অধিনায়ক হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। মঈন আলি এখন পর্যন্ত আইপিএলে ৪২টি ম্যাচ খেলেছেন, ২১.৫১ গড়ে ৭৯৬ রান করেছেন এবং ২২ উইকেটও নিয়েছেন। একই সময়ে, আইপিএলের ১৫ তম আসরের ৮ ম্যাচে, তিনি ১৬.২৫ গড়ে ১৩০ রান করেছেন এবং ৬ উইকেটও নিয়েছেন। একই সময়ে, তিনি ২০২১ সালে ইংল্যান্ডে শুরু হওয়া হান্ড্রেড লিগে তার অধিনায়কত্বে বার্মিংহাম ফিনিক্সকে ফাইনালে নিয়ে যান।

ঋতুরাজকে ভাইস ক্যাপ্টেন করা যেতে পারে

অবসর নিলেও চেন্নাই সুপার কিংসের সাথে যুক্ত থাকবেন এমএস ধোনি, নেবেন এই বড় দায়িত্ব 3

মঈনের পাশাপাশি ঋতুরাজ গায়কওয়াড়ও (Ruturaj Gaikwad) অধিনায়কত্বের সারিতে থাকলেও অধিনায়কত্বের অভিজ্ঞতা কম থাকায় মঈনের পেছনে রয়েছেন তিনি। গায়কওয়াড়কে ভাইস ক্যাপ্টেন করা হতে পারে, যাতে তিনি অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারেন।  গায়কওয়াড়ের বয়স এখন ২৫ বছর। অধিনায়কত্বের তেমন অভিজ্ঞতা নেই তার। ঘরোয়া ক্রিকেটেও তিনি মাত্র কয়েকটি ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছেন। এখন পর্যন্ত খেলা ৩৪ ম্যাচে ঋতুরাজ ৩৮.৪০ গড়ে ১১৫২ রান করেছেন। এই মরসুমে তিনি ১২ ম্যাচে ২৬.০৮ গড়ে ৩১৩ রান করেছেন। চারবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই প্লে অফের দৌড় থেকে ছিটকে গেছে। পয়েন্ট টেবিলের নবম স্থানে তিনি। লিগে খেলা ১২টি ম্যাচে তারা জিতেছে ৪টিতে এবং হেরেছে ৮টিতে। তবে এখনো তাদের আরো দুটি ম্যাচ খেলার বাকি আছে।

Leave a comment

Your email address will not be published.