টুইটারে ধোনিকে একহাত নিলেন হরভজন সিংহ, যা বললেন .. 1

টুইটারে ধোনিকে একহাত নিলেন হরভজন সিংহ, যা বললেন .. 2

রিয়েল এস্টেট কোম্পানি হিসেবে ভারতে বেশ নাম ডাক ছিলো আম্রপালি গ্রুপের। এক সময় প্রতিষ্ঠানটির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে কাজ করতেন সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। আম্রপালি গ্রুপের বিরুদ্ধে ফ্ল্যাট হস্তান্তরে বিলম্ব করার অভিযোগ উঠলে প্রতিষ্ঠানটির শুভেচ্ছা দূতের পদ থেকে গেল বছর সরে দাঁড়ান ধোনি। এরপর প্রতিষ্ঠানটির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হন আরেক ভারতীয় ক্রিকেটার হরভজন সিং। ঘটনাটি এখানেই শেষ হতে পারতো। কিন্তু তা আর হলো কই? এই আম্রপালি গ্রুপকে কেন্দ্র করে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন ধোনি-হরভজন। এই দুই ভারতীয় ক্রিকেটারকে রীতিমতো ধুয়ে দিচ্ছেন আম্রপালি গ্রুপে বিনিয়োগকারীরা।

কিছুদিন আগেই আম্রপালি গ্রুপকে দেউলিয়া ঘোষণা করা হয়েছে। এরই মধ্যে ব্যাংক লোন নেওয়া আছে প্রতিষ্ঠানটির তিনটি প্রকল্পের নামে। এগুলো হচ্ছে নোয়ডা সিলিকন সিটি, গ্রেটার নোয়ডা ভিত্তিক আল্ট্রা হোম কন্সট্রাকশন ও আম্রপালি ইনফ্রাস্ট্রাকচার। এই খবরে স্বাভাবিকভাবেই আকাশ ভেঙে পড়েছে আম্রপালি গ্রুপে বিনিয়োগকারীদের মাথায়। এখানেই শেষ নয়। যেই তিনটি প্রকল্পের নামে ব্যাংক লোন নেওয়া ছিলো, সেগুলো চলে যাচ্ছে ব্যাংকের তত্ত্বাবধায়নে। তাতেই দিশেহারা হয়ে পড়েছেন এসব প্রকল্পে প্লট ও ফ্ল্যাটের বুকিং দেওয়া লোকজন। সবকিছু হারাতে বসা এসব লোকজন এবার চেপে ধরেছেন প্রতিষ্ঠানটির সাবেক ও বর্তমান ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডরকে। এর আগে গেল বছর আম্রপালি গ্রুপকে কেন্দ্র করে আদালত পর্যন্ত যেতে হয়েছে ধোনি পত্নী সাক্ষী সিংকে। কারণ আম্রপালি গ্রুপের মালিক অনিল কুমার শর্মার ব্যবসায় ২৫ শতাংশ শেয়ার ছিলো সাক্ষীর। তখনই আম্রপালি গ্রুপের বিরুদ্ধে ফ্ল্যাট হস্তান্তরে দেরি করার অভিযোগ করে বসেন দিল্লির এক বাসিন্দা। তার অভিযোগের পরই ধোনির স্ত্রীকে ডেকে পাঠায় আদালত। এরপর শুভেচ্ছে দূতের পদ থেকে সরে দাঁড়ান ধোনি।

আম্রপালি গ্রুপের উপর জমে থাকা সব রাগ ও ক্ষোভ এসে ধোনি-হরভজনের উপর ঝাড়তে শুরু করেছেন তারা ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, তাদের টাকা আত্মসাৎ করেছেন হরভজন। এমনই এক ভুক্তভোগী টুইটারে আক্রমণ করে বসে হরভজন সিংহকে। তবে তিনিও চুপ করে সব সহ্য করার মানুষ নন। কড়া ভাবে অভিযোগের জবাব দিয়েছেন তিনি।

 

দেখে নিন ওই টুইটার ইউজার কি টুইট করেছিল ঃ

 

উত্তরে হরভজন সিং যা বললেন ঃ

 

বিতর্ক ওখানেই থামেনি ঃ

 

 

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *