আইপিএল ২০২০র জন্য দিল্লি ক্যাপিটালস এই অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড়কে করল বোলিং কোচ

আইপিএল ২০২০র প্রস্তুতির জন্য সমস্ত ফ্রেঞ্চাইজি ইউএই পৌঁছে গিয়েছে। সমস্ত খেলোয়াড়রা কোয়ারেন্টিনে সময় কাটাচ্ছেন। এর মধ্যে রিকি পন্টিংয়ের কোচিং করা দিল্লি ক্যাপিটালস নিজেদের দলের নতুন বোলিং কোচ নিযুক্ত করেছেন। এর জন্য তারা অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অলরাউন্ডার রায়ান হ্যারিসকে বেছেছে। এখন আইপিএল ২০২০তে রায়ানের হাতে দিল্লি ক্যাপিটালসের বোলিং ইউনিটের দায়িত্ব থাকবে।

দিল্লি ক্যাপিটালস রায়ান হ্যারিসকে করল বোলিং কোচ

আইপিএল ২০২০র প্রস্তুতি জোরদার চলছে। এখন এর মধ্যেই দিল্লি ক্যাপিটালস আইপিএলের ত্রয়োদশ মরশুমের জন্য নতুন বোলিং কোচ নিযুক্ত করেছে। এই পদে ফ্রেঞ্চাইজি অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের রায়ান হ্যারিসকে বেছেছে। এর আগে দলে বোলিং কোচ হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার জেমস হোপস দলের অংশ ছিলেন। কিন্তু এখন পন্টিং হোপসের ছেয়ে বেশি অভিজ্ঞ হ্যারিসকে দলের বোলিং ইউনিটের দায়িত্ব দিয়েছেন।

অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচ উইনার খেলোয়াড় ছিলেন রায়ান হ্যারিস

আইপিএল ২০২০র জন্য দিল্লি ক্যাপিটালস এই অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড়কে করল বোলিং কোচ 1

একটা সময় ছিল যখন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বিশ্ব ক্রিকেটে কর্তৃত্ব ছিল, রায়ান হ্যারিস ওই অস্ট্রেলিয়া দলের অংশ ছিলেন। ২০১২য় অ্যাসেজে রায়ান ইংল্যান্ডকে মাত দিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে অ্যাসেজ সিরিজ জিততে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। এখন যদি পরিসংখ্যানের কথা বলা হয় তো, হ্যারসি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২৭টি টেস্ট, ২১টি একদিনের ম্যাচ এবং ৩টি টি-২০আই ম্যাচ খেলেছেন। যার মধ্যে ক্রমশ: ১১৩টি উইকেট- ৬০৩ রান, ৪৪টি উইকেট- ৪৮ রান এবং ৪ উইকেট-২ রান করেছেন। জানিয়ে দিই যে রায়ান আইপিএলে ডেক্কান চার্জাস এবং কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব দলের হয়ে খেলেছেন আর আইপিএল ২০২০তে দিল্লি ক্যাপিটালস দলে বোলিং কোচ হিসেবে কাজ করবেন।

দিল্লি ক্যাপিটালস পেশ করবে খেতাবের দাবী

আইপিএল ২০২০র জন্য দিল্লি ক্যাপিটালস এই অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড়কে করল বোলিং কোচ 2

আইপিএল ২০২০র আয়োজন ইউএই-র মাঠে ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে হতে চলেছে। এর জন্য সমস্ত ফ্রেঞ্চাইজি প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। একজন যদি আইপিএলের ১৩তম মরশুমে খেতাবের দাবী পেশ করা দলের উল্লেখ হয়, তো রিকি পন্টিংয়ের কোচিনাধীন এবং শ্রেয়স আইয়ারের নেতৃত্বাধীন এই দলও খেতাব জেতার প্রবল দাবী পেশ করতে পারে। গত মরশুমে তরুণদের এই দল ৭ বছর পর প্লে অফ পর্যন্ত পৌঁছেছিল। দিল্লির কাছে একটি ভারসাম্যযুক্ত দল তো রয়েইছে, সেই সঙ্গেই টিম ম্যানেজমেন্টও দুর্দান্ত। এর মধ্যে প্রধান কোচ রিকিং পন্টিং ছাড়াও সহায়ক কোচ মহম্মদ কাইফ, স্পিন বোলিং কোচ স্যামুয়েল বদ্রী, ফিজিয়ো প্যাট্রিক ফরহার্ট (প্রাক্তন ভারতীয় ফিজিয়ো) মজুত রয়েছেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *