বিসিসিআইকে এই গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিলেন দীপক চাহার, যার ফলে হবে খেলোয়াড়দের যথেষ্ট ফায়দা

ভারতীয় দল নিউজিল্যান্ড সফরের পর থেকে আর ক্রিকেট খেলেনি। নিউজিল্যান্ড সফরের পর তাদের দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে ৩ ম্যাচের ঘরোয়া ওয়ানডে সিরিজ খেলার কথা ছিল, কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে ওই সিরিজটি বাতিল হয়ে যায়। নিউজিল্যান্ড সিরিজ শেষ হয়েছে ৪ মাস কেটে গিয়েছে, কিন্তু তারপর থেকে ভারতীয় খেলোয়াড়রা মাঠে নিজেদের প্রতিভা দেখানোর সুযোগ পাননি। এই মুহূর্তে করোনা ভাইরাসের কারণে আইপিএলকেও অনিশ্চিত কালের জন্য স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ভারতীয় দলের উদীয়মান জোরে বোলার দীপক চাহার বিসিসিআইকে একটি গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিয়েছেন।

আইপিএল শুরু হওয়ার আগে আমাদের একটি সঠিক শিবিরের আবশ্যকতা

বিসিসিআইকে এই গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিলেন দীপক চাহার, যার ফলে হবে খেলোয়াড়দের যথেষ্ট ফায়দা 1

আইএএনএসের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ভারতীয় দলের তরুণ জোরে বোলার দীপক চাহার জানিয়েছেন যে,

“আমাদের ধীরে ধীরে লাইনে ফেরার প্রয়োজন রয়েছে আর আমার ধারণা যে ক্রিকেট অ্যাকশনে ফেরার জন্য আইপিএল একটা দুর্দান্ত বাহন হতে পারে। আমাদের কাছে বেশকিছু ম্যাচ রয়েছে আর এটা আপনাকে আপনার ছন্দ ফিরিয়ে দিতে সাহায্য করবে। আইপিএল খেললে না শুধু বোলাররা বরং সমস্ত ক্রিকেটাররাই সাহায্য পাবেন। কিন্তু আইপিএল শুরু হওয়ার আগে আমাদের একটি সঠিক শিবিরের আবশ্যকতা রয়েছে যাতে ক্রিকেট থেকে দূরে থাকার পর আমরা আবারো নিজেদের ছন্দে ফিরতে পারি”।

১০দিনের শিবির হোক, কিছু প্র্যাকটিস ম্যাচও হোক

বিসিসিআইকে এই গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিলেন দীপক চাহার, যার ফলে হবে খেলোয়াড়দের যথেষ্ট ফায়দা 2

চাহারের মত যে নিজেদের ছন্দে সম্পূর্ণভাবে ফেরার জন্য ১০ দিকের একটি ট্রেনিং ক্যাম্প হওয়া উচিৎ আর কিছু প্র্যাকটিস ম্যাচ খেলা উচিৎ। তিনি আগে বলেন,

“যেমনটা আমি আগেও বলেছি যে নিজের জোনে ফেরত আসার জন্য আমাদের একটি উচিৎ ক্যাম্পের প্রয়োজন। এটা ১০ দিনের হবে। আপনি অনেকটা সময় থেকে খেলছেন না, এই অবস্থায় নিজের জোনে ফেরার জন্য শরীরের সময় দরকার, এই কারণে আপনার একটি ক্যাম্প আর কিছু প্র্যাকটিস ম্যাচের প্রয়োজন”।

নিজেকে বললেন সম্পূর্ণভাবে ফিট

বিসিসিআইকে এই গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দিলেন দীপক চাহার, যার ফলে হবে খেলোয়াড়দের যথেষ্ট ফায়দা 3

দীপক চাহার নিজের চোটের ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে নিজের বয়ানে আগে বলেন,

“যখন আমি চোটের ব্যাপারে জানতে পারি তো আমার জন্য এটা একটা স্ট্রেস ফ্যাকচারের মতো ছিল, আর এটা সম্পূর্ণভাবে ঠিক হতে তিন-চার মাস লেগে গিয়েছে, এই কারণে শুরুতে এটা সামান্য আতঙ্কের লেগেছিল, কারণ এটা আমার কেরিয়ারের ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ চরণ ছিল। আমি টি-২০তে ভাও প্রদর্শন করছিলাম, কিন্তু আমি আগেও আহত হয়েছিল আর আমি জানতাম যে এটা থেকে কীভাবে পার পেতে হবে। তবে আমি এখন ফিট আর আমাকে শক্তিশালীভাবে ফিরতে হবে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *