টি-২০'তে ট্রিপল সেঞ্চুরি করার পুরস্কার, ডাক পেলেন আইপিএল দল থেকে! 1

বিশেষ প্রতিবেদন: আন্তর্জাতিক হোক কিংবা ঘরোয়া ক্রিকেট এতদিন কেউ এই রেকর্ডটি করতে পারেননি। কিন্তু টি-২০ ক্রিকেটে অবশেষে গড়া হল সেই নজির। নেপথ্যে দিল্লির ২১ বছর বয়সি যুবক মোহিত আহলাওয়াত। মঙ্গলবার মাভি একাদশের হয়ে ফ্রেন্ডস একাদশের বিরুদ্ধে মোহিত একাই ত্রিশতরান করলেন। আর ২০ ওভার শেষে মাভি একাদশের রান দাঁড়াল ৪১৬। এমন একটা ইনিংস খেলার জন্য পুরস্কারও পেলেন তিনি। ম্যাচ খেলে উঠেই তিনি দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের ফোন পান। আইপিএলের জন্য দলে নিতেই তাঁকে ট্রায়ালে ডাকে দিল্লি ম্যানেজমেন্ট।

ফাঁস হয়ে গেল মোহিতের ট্রিপল সেঞ্চুরির রহস্য!

এদিন দিল্লির এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানটি মাত্র ৭২ বলে ৩০০ রান করেন। নিজের গোটা ইনিংসে ৩৯টি ছয় এবং ১৪টি চার মারেন তিনি। ১৮ ওভার শেষে মোহিতের রান ছিল ২৫০। তিনশো রানের মাইলস্টোনে পৌঁছাতে তাঁর আরও ৫০ রানের প্রয়োজন ছিল। হাতে ১২ বল। না থেমে আরও চালিয়ে খেলেন মোহিত। শেষ ওভারে তো একটুর জন্য ছ’টি ছয়ের রেকর্ড স্পর্শ করতে পারেননি। পাঁচটি ছয় ও একটি চারের সৌজন্যে ওই ওভারে তোলেন ৩৪ রান।

এমন একটা কীর্তি গড়ার পর মোহিত বলেন, ‘‘আমি ডাবল সেঞ্চুরি আশা করেছিলাম। তবে ট্রিপল সেঞ্চুরি করে ফেলব সেটা ভাবিনি। বোলিং আক্রমণ ভাল ছিল। কিন্তু নতুন বলে শুরুটা ভাল হওয়ার পর মনে হয় আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করা যাবে। ব্যাটিং করতে করতে হয়ে গিয়েছে। ভাল টাইমিংও হচ্ছিল। ২৫০ রানের পর মনে হল শেষ ২ ওভারে ট্রিপল সেঞ্চুরির জন্য চেষ্টা করা উচিত। আমি সেটা করতে পেরেছি।’

এরই সঙ্গে তিনি আরও যোগ করেন, ‘যখন ১৫০ রান করি তখন মনে হয়েছে আমি ২৫০ করতে পারি। তাই তখন পার্টনারকে বলি আমিই বেশি বল খেলব।’ ২০১৫ সালে দিল্লির রঞ্জি দলে প্রথমবার সুযোগ পান মোহিত আহওয়ালাত। তবে দিল্লির হয়ে তেমন কিছু আহামরি করতে পারেননি তিনি। তবে এবার টি-২০’র আঙিনায় তিনি যা করে দেখালেন, তাতে তাঁর জায়গাটা পাকা হল বলেই মনে করা হচ্ছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *