সুনীল যোশী দিলেন ইঙ্গিত, ১০ বছর ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে থাকা এই খেলোয়াড়ের হতে পারে টেস্টে প্রত্যাবর্তন

রঞ্জি ট্রফি ২০১৯-২০র ফাইনাল ম্যাচ সৌরাষ্ট্র আর বাংলার দলের মধ্যে খেলা হয়েছিল। এই ম্যাচ ড্র হয় কিন্তু প্রথম ইনিংসে এগিয়ে থাকায় সৌরাষ্ট্রের দল রঞ্জি চ্যাম্পিয়ন হয়ে যায়। এটা ইতিহাসে প্রথমবার হল যখন সৌরাষ্ট্র রঞ্জি ট্রফি জিতল। দলের এই দুর্দান্ত জয়ে অধিনায়ক জয়দেব উনাকট দুর্দান্ত ভূমিকা পালন করেন।

জয়দেব পুরো মরশুমে নিয়েছেন ৬৭টি উইকেট

সুনীল যোশী দিলেন ইঙ্গিত, ১০ বছর ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে থাকা এই খেলোয়াড়ের হতে পারে টেস্টে প্রত্যাবর্তন 1

জয়দেব উনাকট এই পুরো মরশুমে দুর্দান্ত বোলিং নমুনা পেশ করেন আর মোট ৬৭টি উইকেট নেন। যে কোনো জোরে বোলারের দ্বারা এটি রঞ্জির যে কোনো একটি মরশুমে সবচেয়ে বেশি উইকেট। তার এই দুর্দান্ত প্রদর্শনের পর ক্রিকেট পন্ডিতরা তাকে ভারতীয় দলে ফিরিয়ে আনার দাবী তুলছেন।

সুনীল যোশী করলেন জয়দেব উনাকটের প্রশংসা

সুনীল যোশী দিলেন ইঙ্গিত, ১০ বছর ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে থাকা এই খেলোয়াড়ের হতে পারে টেস্টে প্রত্যাবর্তন 2

ভারতীয় দলের প্রধান নির্বাচক সুনীল যোশী টুইট করে লেখেন,

“সৌরাষ্ট্রকে শুভেচ্ছা। জয়দেব উনাকটের দুর্দান্ত অধিনায়কত্ব আর তার দ্বারা এই মরশুমে নেওয়া ৬৭টি উইকেট দলের নেতৃত্বের এক দুর্দান্ত উদাহরণ পেশ করেছে। চেতেশ্বর পুজারাও নিজের শান্ত প্রভাব আর দলকে মুশকিল পরিস্থিতিতে সামলানোর অভিজ্ঞতা দেখিয়েছেন”।

১০ বছর পর টেস্ট দলে প্রত্যাবর্তন হতে পারে

সুনীল যোশী দিলেন ইঙ্গিত, ১০ বছর ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে থাকা এই খেলোয়াড়ের হতে পারে টেস্টে প্রত্যাবর্তন 3

সুনীল যোশীর এই টুইটের পর কোথাও না কোথাও এই ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে জয়দেব উনাকটের ১০ বছর পর ভারতীয় টেস্ট দলে প্রত্যাবর্তন হতে পারে। এই বোলার ভারতের হয়ে মাত্র একটি টেস্ট ম্যাচ ২০১০এ দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে খেলেছিলেন। যেখানে তিনি কোনো উইকেট নিতে পারেননি। তবে এখন তিনি ভালো ছন্দে রয়েছেন আর ১০ বছর পর আবারো তাকে ভারতীয় টেস্ট দলে দেখা যেতে পারে। ভারতের হয়ে তিনি শেষ টি-২০ ম্যাচ ২০১৮য় খেলেছিলেন। রঞ্জি ট্রফি জয়ের পর জয়দেব উনাকট নিজের একটি বয়ানে ভারতীয় দলে প্রত্যাবর্তনের ব্যাপারে বলেছিলেন যে, “টিম ইন্ডিয়ায় প্রত্যাবর্তনের জন্য আমার ক্ষিদে আগের মতোই রয়েছে। এই অধীরতা এখন আগের চেয়ে আরো বেশি বেড়ে গিয়েছে আর এটা আমাকে পুরো মরশুমে উৎসাহিত করেছে। সতভাবে বললে এই মরশুমে দুর্দান্ত খেলার জন্য শারীরিকভাবে যথেষ্ট চ্যালেঞ্জ থেকেছে, প্রায় প্রত্যেক ম্যাচে জোরে বোলার হিসেবে এত দীর্ঘ স্পেল করা যথেষ্ট চ্যালেঞ্জিং থেকেছে”।

Leave a comment

Your email address will not be published.