বামহাতি এই পেস বোলারকে টেস্ট দলে খেলাতে চান পূজারা, সুযোগ দেননি নির্বাচকরা 1

কয়েক মাস আগে ইংল্যান্ডকে টেস্ট সিরিজে হারিয়ে আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে প্রবেশ করেছে ভারতীয় দল। যেখানে তারা নিউজিল্যান্ড দলের মুখোমুখি হবে। এর পরে ইংল্যান্ডের সাথে দলকে পাঁচ টেস্টের সিরিজও খেলতে হবে। যার জন্য দলও নির্বাচিত হয়ে গিয়েছে। ভারতের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান চেতেশ্বর পূজারাও এই দলে অন্তর্ভুক্ত। এই পূজারা যিনি কয়েক মাস ধরে এক বাঁ-হাতি পেস বোলারকে ভারতীয় দলে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য বলছিলেন। আরও বলেছিলেন যে এই বোলার থাকলে দলের অনেক উপকার হবে। ভারতীয় দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ এবং বিশ্বস্ত খেলোয়াড়দের মধ্যে অন্যতম গণ্য করা হয় চেতেশ্বর পূজারাকে। এমন পরিস্থিতিতে তাঁর কোনও বক্তব্যই ভুল হতে পারে না।

বামহাতি এই পেস বোলারকে টেস্ট দলে খেলাতে চান পূজারা, সুযোগ দেননি নির্বাচকরা 2

সর্বোপরি, তিনি এত বছর ধরে ভারতীয় দলকে খুব কাছ থেকে বুঝতে পেরেছেন। কী কী জিনিস এবং প্রস্তুতি ভারতীয় দলের উপকার করতে পারে তা তিনি জানেন। চেতেশ্বর পূজারা সৌরাষ্ট্রের হয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলেন। তিনি কয়েকমাস আগে সৌরাষ্ট্রের হয়ে খেলতে গিয়ে তাঁর সতীর্থ জয়দেব উনাদকাটকে দলে অন্তর্ভুক্ত করার জন্যও পরামর্শ দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, “যদি কোনও বোলার একটি মরসুমে ৬৭ টি উইকেট নেন তবে আমি মনে করি না তিনি যে কোনও ভাল পারফরম্যান্স দিতে পারে। রঞ্জি ট্রফির পারফরম্যান্স ভারতীয় দলে নির্বাচিত হওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। তারপরেও যদি তাকে ভারতীয় দলে নির্বাচিত না করা হয় তবে আমি খুব অবাক হব।”

বামহাতি এই পেস বোলারকে টেস্ট দলে খেলাতে চান পূজারা, সুযোগ দেননি নির্বাচকরা 3

জয়দেব উনাদকাট যিনি ভারতীয় দলের হয়ে একটি টেস্ট ম্যাচ, সাতটি ওয়ানডে এবং ১০ টি টি- ২০ ম্যাচ খেলেছেন, তিনি সৌরাষ্ট্রের হয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলেন। সৌরাষ্ট্রের হয়ে খেলে তিনি প্রথম শ্রেণির ৮৯ টি ম্যাচে ২.৯৪ ইকোনমির সাথে ৩২৭ উইকেট শিকার করেছেন। তিনি সৌরাষ্ট্রের হয়ে অধিনায়কত্বও করেছেন। শুধু তাই নয়, উনাদকাট ২০১৯ সালের জানুয়ারীতে সৌরাষ্ট্রের হয়ে ২০০ টি উইকেট শিকার করেছেন। ২০১৯-২০ মরসুমের রঞ্জি ট্রফিতে উনাদকাট মাত্র ১০ ম্যাচে ৬৭ উইকেট নিয়েছিল। যা টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীর তালিকায় শীর্ষে। তাঁর এই বোলিং দেখে চেতেশ্বর পুজারা তাকে সমর্থন করেছিলেন।

unadkat

ভারতীয় দল বিশ্বের যে কোনও দলকে যে কোনও পরিস্থিতিতে পরাজিত করার ক্ষমতা রাখে। তবুও দলের বিকল্পগুলি নিয়ে চিন্তা করা উচিত। কখন, কোথায় এবং কোন খেলোয়াড় দলের পক্ষে কার্যকর প্রমাণিত হবে কিছুই বোঝা যায় না। টেস্ট ম্যাচের জন্য নির্বাচিত ভারতীয় দল পুরোপুরি সক্ষম। তবে দলের বাঁহাতি এই পেস বোলার উনাদকাট দুর্দান্ত প্রভাব ফেলতে পারে। জসপ্রিত বুমরাহ, মহম্মদ শামি, মহম্মদ সিরাজ, ইশান্ত শর্মা, শার্দুল ঠাকুর, উমেশ যাদব এমন কি প্রসিদ্ধ কৃষ্ণরাও দলে ডানহাতি বোলার। সুতরাং দলে কমপক্ষে একজন বাঁহাতি পেস বোলার থাকার কারণে নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্টের মতো বিরোধী দলের ব্যাটসম্যানদের উপর চাপ দেওয়া যেতে পারে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *