চলে গেলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন লেগ স্পিনার বব হল্য়ান্ড। মৃত্য়ুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল সত্তর বছর। রবিবার তিনি স্থানীয় একটি হাসপাতালে ব্রেন ক্য়ান্সারে মারা যান। বুকের পাঁজর ভেঙে যাওয়ার কারণে তিনি ওই হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। সেখানেই আচমকা মস্তিষ্কে রক্ত ক্ষরণ হয়ে মারা যান। মৃত্য়ুর কারণ ব্রেন ক্য়ান্সার বলে ডাক্তারি রিপোর্টে জানা গিয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে এই প্রাক্তন ক্রিকেটার ১১টি টেস্ট ম্য়াচ খেলেছিলেন। ৩৪টি উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের গত পঞ্চাশ বছরের ইতিহাসে হল্য়ান্ড সবচেয়ে বেশি বয়েসে আন্তর্জাতিক মঞ্চে ব্য়াগ গ্রিন টুপির গৌরব অর্জন করেছিলেন।
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের জন্য় বহুদিন অপেক্ষা করতে হলেও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে বব হল্য়ান্ড বেশ পরিচিত ছিলেন। দীর্ঘ পঁচিশ বছরের ক্রিকেট কেরিয়ারে নিউ সাউথ ওয়েলস এবং ওয়েলিংটনের হয়ে ৯৫টি প্রথম শ্রেণির ম্য়াচ খেলেছিলেন বব। উইকেট সংখ্য়া ৩১৬। ১৯৮৪ সালে আটত্রিশ বছর বয়সে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে গাব্বা টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে অভিষেক হয়েছিল তাঁর। ভালোবেসে হল্য়ান্ডকে ডাচি বলে ডাকা বতো। এরপর প্রথম দু’টি টেস্টের পর জাতীয় দল থেক বাদ পড়েন খারাপ পারফরম্য়ান্সের জন্য়। অস্ট্রেলিান টিম থেকে বাদ পড়ায় তিনি আবার নিউ সাউথ ওয়েলসে যোগ দেন। দলকে জেতাতে বড় ভূমিকা নেন। পঞ্চম টেস্টে তাঁকে আবার দলে ফিরিয়ে আনা হয়। সেই সময়কার দোর্দন্ডপ্রতাপ ক্য়ারিবিয়ান টিমের বিরুদ্ধে ওই ম্য়াচে ১৪৪ রান দিয়ে ১০টি উইকেট তুলে নিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ইনিংসে ম্য়াচ জেতান বব।
গত শুক্রবার বব হল্য়ান্ডের সম্মানে একটি রিসেপশন দেওয়া হয়েছিল। তাতে তিনি যোগ দিয়েছিলেন। সে সম্পর্কে তাঁর ছেলে ক্রেগ হল্য়ান্ড বলেন, ”শুক্রবার বাবা তাঁর জীবনের সেরা সময় কাটিয়েছেন। নৈশভোজের সময় ওঁর পুরনো সতীর্থদের সঙ্গে সময় কাটান। ওই দিন বাবাকে দেখে একবারও মনে হয়নি, শরীরে কোনও যন্ত্রণা আছে। শেষ পর্যন্ত ছিলেন অনুষ্ঠানের। আমাদের গোটা পরিবার অবাক হয়ে গিয়েছিল। আমরা ভেবেছিল, উনি হয়ত এক-দু’ঘণ্টা কাটিয়ে চলে যাবেন। দ্য় নিউক্য়াসল বেসবল ফাইনাল ম্য়াচও দেখতে যান নিজের নাতি খেলছিল বলে। গতরাতে শরীর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় সকালেই বাবাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন মা। বাবার বুকের পাঁজরের কয়েকটা হাড় ভেঙে গিয়েছিল।”
নিউ সাউথ ওয়েলস ক্লাবের মুখ্য় অধিকর্তা অ্য়ান্ড্রু জোন্স হল্য়ান্ড পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ”ববের প্রয়াণ নিউ ক্য়াসেল, নিউ সাউথ ওয়েলস ও অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের জন্য় বড় ক্ষতি। আমরা মর্মাহত। অন্য়দের অনুপ্রেরণা দেওয়ার মতো খেলোয়াড় ছিলেন। তাঁর দক্ষতা ও অদম্য় মনোভাবের জন্য় পরিচিত ছিলেন বব। বত্রিশ বছর বয়সে নিউ সাউথ ওয়েলসে আসার পর আটত্রিশ বছর বয়সে আশির দশকের মাঝামাঝি অস্ট্রেলিয়ান টিমে ডাক পেয়েছিলেন। সেজন্য় অন্য়দের কাছে নিদর্শন ছিলেন বব।”

SHARE

আরও পড়ুন

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত, শাহিদ আফ্রিদিও দিলেন ভারত বিরোধী বয়ান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত, শাহিদ আফ্রিদিও দিলেন ভারত বিরোধী বয়ান
জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় হওয়া সন্ত্রাসী হামলায় ৪০ এরও বেশি জওয়ান শহিদ হয়ে গিয়েছেন। এখন এই ব্যাপারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী...

ফারুক ইঞ্জিনিয়ার দীনেশ কার্তিক, ঋষভ পন্থ আর ধোনির মধ্যে এই খেলোয়াড়কে মানলেন টিম ইন্ডিয়ার জন্য সবচেয়ে ফিট

ফারুক ইঞ্জিনিয়ার দীনেশ কার্তিক, ঋষভ পন্থ আর ধোনির মধ্যে এই খেলোয়াড়কে মানলেন টিম ইন্ডিয়ার জন্য সবচেয়ে ফিট
অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজের জন্য ভারতীয় দলে ঋষভ পন্থকে জায়গা দেওয়া হয়েছে। পন্থ এর আগে ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে...

আইপিএল ২০১৯ : আইপিএল ১২ র প্রথম দু সপ্তাহের শেডিউল হল ঘোষিত, ২৩ মার্চ এই দুই দলের মধ্যে খেলা হবে প্রথম ম্যাচ

আইপিএল ২০১৯ : আইপিএল ১২ র প্রথম দু সপ্তাহের শেডিউল হল ঘোষিত, ২৩ মার্চ এই দুই দলের মধ্যে খেলা হবে প্রথম ম্যাচ
আইপিএলের শুরুয়াত আগামি ২৩ মার্চ থেকে হতে চলেছে। লোকসভা নির্বাচনের কারণে এবার আইপিএলের ম্যাচের সম্পূর্ণ শেডিউল আসতে...

ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া: ভারত সফরে আসার আগেই ক্যাঙ্গারু অধিনায়ক খেললেন মাইন্ড গেম, টিম ইন্ডিয়াকে দিয়ে ফেললেন এই কড়া সাবধানবাণী

ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া: ভারত সফরে আসার আগেই ক্যাঙ্গারু অধিনায়ক খেললেন মাইন্ড গেম, টিম ইন্ডিয়াকে দিয়ে ফেললেন এই কড়া সাবধানবাণী
নিজেদের মাটিতে ভারতীয় দলের কাছে পাওয়া লজ্জাজনক হারের পর অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল বদলা নেওয়ার জন্য ভারত সফরে...

আজকের দিনেই ১৭৫ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলে বীরেন্দ্র সেহবাগ নিয়েছিলেন বাংলাদেশের কাছ থেকে ২০০৭ এ পাওয়া লজ্জাজনক হারের বদলা

২০০৭ এ ভারতীয় দল রাহুল দ্রাবিড়ের অধিনায়কত্বে ওয়েস্টইন্ডিজ বিশ্বকাপে অংশ নিতে গিয়েছিল। দলের সঙ্গে শচীন তেন্ডুলকর, সৌরভ...