ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম টি-২০র আগে স্মিথ আর ওয়ার্নারের ব্যান নিয়ে অস্ট্রেলিয়া নিল এই অবাক করা সিদ্ধান্ত

বল ট্যাম্পারিংয়ের কারণে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া প্রাক্তণ অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ এবং সহঅধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের উপর একবছরের ব্যান লাগিয়ে দিয়েছিল। অন্যদিকে বল ট্যাম্পারিংয়ের প্রধান অভিযুক্ত কামেরুন বেনক্রফটের উপর ৯ মাসের ব্যান লাগানো হয়েছিল।

অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন করেছিল স্মিথ,ওয়ার্নারের ব্যা শেষ করার দাবী
ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম টি-২০র আগে স্মিথ আর ওয়ার্নারের ব্যান নিয়ে অস্ট্রেলিয়া নিল এই অবাক করা সিদ্ধান্ত 1
ভারতের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ সিরিজকে দেখে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (এসিএ) যার মধ্যে খেলোয়াড় এবং কোচিং স্টাফেরা শামিল রয়েছে তারা স্টিভ স্মিথ আর ডেভিড ওয়ার্নারের ব্যান তুলে নেওয়ার দাবী জানিয়েছিল।

এসিএ-র এই দাবীকে নাকচ করল অস্ট্রেলিয়া
ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম টি-২০র আগে স্মিথ আর ওয়ার্নারের ব্যান নিয়ে অস্ট্রেলিয়া নিল এই অবাক করা সিদ্ধান্ত 2
জানিয়ে দিই যে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের স্মিথ আর ওয়ার্নারের ব্যান তুলে নেওয়ার দাবীকে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া নাকচ করে দিয়েছে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার বর্তমানে স্মিথ আর ওয়ার্নারের উপর থাকা ব্যান এর শাস্তিকে তুলে নেওয়া কোনও ইচ্ছেই নেই। জানিয়ে দিই যে স্টিভ স্মিথ আর ডেভিড ওয়ার্নার বর্তমানে নিজের ব্যানের অষ্টম মাসে রয়েছে। অন্যদিকে তৃতীয় অভিযুক্ত ক্যামেরুন বেনক্রফটের ব্যান ডিসেম্বরে শেষ হতে চলেছে।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া জারি করেছে বয়ান

ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম টি-২০র আগে স্মিথ আর ওয়ার্নারের ব্যান নিয়ে অস্ট্রেলিয়া নিল এই অবাক করা সিদ্ধান্ত 3
Australian cricket team captain Steve Smith, left, and his teammate David Warner leave the ground after end of the third day of the first test cricket match against Bangladesh in Dhaka, Bangladesh, Tuesday, Aug. 29, 2017. (AP Photo/A.M. Ahad)

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কার্যকরী চেয়ারম্যান আর্ল অ্যাডিংস নিজের একটি বয়ানে বলেছেন,

“ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বোর্ড সিএ-এর দাবীর সমস্ত তথ্যকে মাথায় রেখে বিচার করেছে আর এটা নির্ধারিত করেছে যে স্টিভন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার আর ক্যামেরুণ বেনক্রফটের উপর লাগা ব্যানকে পরিবর্তন করা বর্তমানে উচিত নয়। খেলোয়াড়দের শাস্তি দেওয়ার নির্ণয় বোর্ড অনেক আলোচনা আর দীর্ঘ ভাবনা-চিন্তা করার পর নির্ধারিত করেছিল। যদি আমরা এখন ব্যান তুলে নিই, তো বিদেশে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের প্রতিষ্ঠার উপর যথেষ্ট প্রভাব পড়বে আর এটা আমরা একদমই চাইনা”।

চেয়ারম্যান আর্ল অ্যাডিংস নিজের বয়ানে আরও বলেন,

“স্টিভ, ডেভিড আর ক্যামরুণ প্রত্যাবর্তনের জন্য কড়া মেহনত করছেন। যা ভালো ব্যাপার, কিন্তু বর্তমানে ওরা ব্যান সমাপ্ত হওয়ার পরই অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেললে সেটাই সবচেয়ে ভালো। আমরা মনে করি যে ব্যান কম করার ব্যাপারে চলা কথাবার্ত ওই তিন খেলোয়াড়দের প্রত্যাবর্তনে অবাঞ্ছিত চাপ ফেলবে যা ওই তিনজনের জন্যও সঠিক নয়। এই কারণে আমরা এটার পক্ষে নই। হ্যাঁ, আমরা মনে করি যে এই সিদ্ধান্ত এসিএ-এর জন্য নিরাশাজনক হবে, কিন্তু তাও আমরা ওদের এই দাবীর জন্য ধন্যবাদ জানাই। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের হিতার্থে সিএ আর এসিএ-এর মধ্যে মজবুত সম্বন্ধে তৈরি করার জন্য আমাদের চুক্তি হয়ে আছে আর আমরা দ্রুতই ওদের সঙ্গে দেখা করারজন্য তৎপর হব”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *