বোর্ড সভাপতি হিসেবে আগামী দশমাসে সৌরভ নিতে চলেছেন এই গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তগুলি যা বদলে দেবে ভারতীয় ক্রিকেটকে

গত ২৩ অক্টোবর বিসিসিআইয়ের সভাপতি পদের দায়িত্ব নিয়েছেন ভারতের অন্যতম সফল অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের দুর্নিতীর পরই সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে গঠিত সিওএ কমিটি এতদিন ভারতীয় বোর্ডের দায়িত্ব ছিলেন। এখন আবারো নতুন নির্বাচনের মাধ্যমে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড গঠিত হয়ে আধিকারিকদের নির্বাচিত করা হয়েছে। বোর্ড সভাপতি হিসেবে সকলেরই আশা সৌরভের হাত ধরেই টিম ইন্ডিয়ার মতো বিসিসিআইতেও আসবে নবজাগরণ। বোর্ড সভাপতি হিসেবে যে পাঁচটি সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন সৌরভ তা পালটে দেবে ভারতীয় ক্রিকেটকেই।

ভারতে প্রথমবার ডে-নাইট টেস্ট

বোর্ড সভাপতি হিসেবে আগামী দশমাসে সৌরভ নিতে চলেছেন এই গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তগুলি 1

বাংলাদেশ দল চলতি ভারত সফরে টি-২০ সিরিজের পর ১৪ নভেম্বর থেকে দুটি ম্যাচের টেস্ট সিরিজও খেলবে। এই দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের মধ্যে ২২ নভেম্বর থেকে কলকাতায় হতে চলা দ্বিতীয় টেস্টকে ডে-নাইট টেস্ট হিসেবে আয়োজন করতে চায় বিসিসিআই। এর জন্য সৌরভ গাঙ্গুলী বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে প্রস্তাবও পাঠান। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ডে-নাইট টেস্ট ম্যাচের জন্য বিসিসিআইয়ের প্রস্তাব মেনে নিয়েছে। ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের সভাপতি থাকার সময় সৌরভ ভারতের প্রথম ডে-নাইট প্রথম শ্রেণীর ম্যাচের আয়োজন করেছিলেন। পিটিআইয়ের অনুসারে গাঙ্গুলী বলেছিলেন যে, “আমি বিসিবির সভাপতি নাজমুক হাসানের সঙ্গে কথা বলেছিলাম। ওরা সহমত, ওরা খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিলেন। আমার বিশ্বাস যে এটা ডে-নাইট ম্যাচ হবে। ওরা দ্রুতই এটার অফিসিয়াল ঘোষণাও করবেন”।

ঘরোয়া ক্রিকেটারদের জন্য সেন্ট্রাল চুক্তি

বোর্ড সভাপতি হিসেবে আগামী দশমাসে সৌরভ নিতে চলেছেন এই গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তগুলি 2

ভারতীয় ক্রিকেটকে নিজের অধিনায়কত্বের দমে ছবি বদলে দেওয়া সৌরভ গাঙ্গুলী এখন সেইভাবেই ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডেও বিশেষ পরিবর্তন করার চেষ্টায় রয়েছেন যার মধ্যে বড়ো পরিবর্তন ঘরোয়া ক্রিকেটারদের সঙ্গে দেখতে পাওয়া যেতে পারে। বোর্ডের সভাপতির দায়িত্ব নেওয়ার পর সৌরভ গাঙ্গুলী ভারতীয় ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলা কয়েক হাজার ক্রিকেটারের সঙ্গেও চুক্তি লাগু করার সংকেত দিয়েছেন। এই বিষয়ে সৌরভ জানিয়েছিলেন,

“আমরা প্রথম শ্রেণী ক্রিকেটারদের জন্য একটা চুক্তি প্রণালী নিয়ে আসব। আমরা নতুন আর্থিক কমিটিকে একটি চুক্তি প্রণালী প্রস্তুত করার জন্য বলব। সবে চার-পাঁচদিন হয়েছে আর মাঝে দীপাবলীর ছুটি ছিল। সবকিছুর পরিমাপ করতে আর আগে এগোতে প্রায় দু সপ্তাহ সময় লাগবে। এটার উপর অনেক কাজ চলছে”।

বর্তমান সময়ের কথা বলা হতে ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটার সমস্ত ম্যাচ মিলিয়ে বছরে প্রায় ২৫ থেকে ৩০ লাখ টাকা রোজগার করেন। প্রথম শ্রেণীর ম্যাচে তাদের প্রতিদিনের হিসেবে ৩৫ হাজার টাকা দেওয়া হয় তো অন্যদিকে প্রসারণ অধিকারের দিক থেকে সমস্ত রাজস্বতে ১৩ শতাংশ দেওয়া হয়।

আইপিএলে পাওয়ার প্লেয়ারের নিয়ম

বোর্ড সভাপতি হিসেবে আগামী দশমাসে সৌরভ নিতে চলেছেন এই গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তগুলি 3

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড নিজেদের টি-২০ লীগ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে (আইপিএল) পরিবর্তন করার কথা ভাবছে। এতে পাওয়ার প্লেয়ারের বিকল্প আনার বিচার করা হচ্ছে। আইপিএলের শুরু ২০০৮ এ হয়েছিল আর এখনো পর্যন্ত ১২টি মরশুম খেলা হয়েছে। নতুন নিয়ম আনার পর বেঞ্চে বসা খেলোয়াড়দের ম্যাচে শামিল করা যেতে পারে। ম্যাচে যে কোনো দল ১৫জন খেলোয়াড় বাছতে পারে। উইকেট পড়ায় বা তারপর ওভার শেষের পর দল নিজেদের খেলোয়াড় বদলাতে পারে। গত মাসেই তিনি বিসিসিআইয়ের নতুন সভাপতি হয়েছেন। এই ব্যাপারে পিটিআইয়ের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বোর্ডের এক সিনিয়র আধিকারিক বলেছেন, “শেষ সিদ্ধান্ত বিসিসিআইয়ের সভাপতিই নেবেন। তিনি আইপিএল গর্ভনিং কাউন্সিল আর সভাপতি বৃজেশ প্যাটেল আর অন্য পদাধিকারীদের সঙ্গে নিশ্চিতভাবেই আলোচনা করবেন কিন্তু বেশ কিছু কারণকে মাথায় রাখতে হবে”।

ধোনির অবসর নিয়ে সিদ্ধান্ত

বোর্ড সভাপতি হিসেবে আগামী দশমাসে সৌরভ নিতে চলেছেন এই গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তগুলি 4

ভারতীয় ক্রিকেট এই মুহূর্তে সবচেয়ে চর্চিত বিষয় প্রাক্তন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির অবসর নিয়ে চলছে। মহেন্দ্র সিং ধোনি স্বয়ং তো নিজের অবসর নিয়ে খোলাখুলি কোনো কথা বলেননি। কিন্তু এখন সৌরভ গাঙ্গুলীর বিসিসিআইয়ের সভাপতি হওয়ার পর এটা তো নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে যে দ্রুতই মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে কোনো পক্ষ সামনে আসবে যা নিয়ে দাদা বিসিসিআইয়ের সভাপতি হওয়ার পর নিজের প্রথম প্রতিক্রিয়া দিয়ে বলেছিলেন,

“আপনারা জানেন যে চ্যাম্পিয়ন দ্রুত শেষ হয় না। আমার জানিনা যে ওর মাথায় কি চলছে আর ও নিজের কেরিয়ারের ব্যাপারে কি ভাবছে এই কারণে আমরা আপনাদের ওর রায় জানার পর বলব। ও এই খেলার মহান খেলোয়াড়দের মধ্যে একজন আর ভারতের এমএস ধোনিকে নিয়ে গর্ব রয়েছে। যদি আপনি বসেন আর ও কি করেছে তার উপর ধ্যান দেন তো আপনি বলবেন যে বাহ এমএস ধোনি বাহ। যতক্ষণ আমি আশেপাশে রয়েছি, সকলকেই সম্মান দেওয়া হবে আর এতে কোনো পরিবর্তন হবে না। আমরা ধোনির ভবিষ্যত নিয়ে নির্বাচকদের সঙ্গে কথা বলব”।

নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদের ভাগ্য নির্ধারন

বোর্ড সভাপতি হিসেবে আগামী দশমাসে সৌরভ নিতে চলেছেন এই গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তগুলি 5

ভারতীয় দলের নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদের কার্যকালও পূর্ণ হয়ে গিয়েছে। যারপর এখন বিসিসিআই নতুন নির্বাচক প্রধানের সন্ধানে রয়েছে। ভারতের নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদ বাংলাদেশের বিরুদ্ধে চলতি টি-২০ আর টেস্ট সিরিজ নিয়ে দলের নির্বাচন করেছেন কিন্তু এখন বিসিসিআইয়ের সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলীকে ঠিক করতে হবে যে এমএসকে প্রসাদের কার্যকাল বাড়ানো হবে নাকি তাকে সরানো হবে। বিসিসিআইয়ের নতুন সংবিধানে অনুচ্ছেদ ২৬ (৩) অনুসারে তো যে কোনো ব্যক্তি যিনি ক্রিকেট কমিটির মোট পাঁচ বছর পর্যন্ত সদস্য থেকেছে তিনি কোনো দ্বিতীয় ক্রিকেট কমিটির সদস্য হওয়ার যোগ্য হবেন না। এছাড়াও যদি বিসিসিআইয়ের এজিএমে নিযুক্তি সদস্যদের কথা বলা হয় তো সেখানে এমএসকে প্রসাদ আর গগণ খোদাকে ২০১৬য় নিযুক্ত করা হয়েছিল সেই আধারে তাদের কার্যকাল নতুন সংবিধান অনুসারে সেপ্টেম্বর ২০২০ শেষ হবে। এরপর অন্য তিন নির্বাচকদের মধ্যে যতীন পরাঞ্জপে, শরনদীপ সিং আর দেবাং গান্ধী ২০১৬য় শুরু করেছিলেন তো তাদের এখনো দু বছরের কার্যকাল বেঁচে আছে।

আইপিএলের ওপেনিং সেরিমনি বন্ধ

বোর্ড সভাপতি হিসেবে আগামী দশমাসে সৌরভ নিতে চলেছেন এই গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তগুলি 6

ক্রিকেট প্রেমীরা ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকেন। আইপিএল ২০২০ মরশুমের জন্য নিলাম ১৯ ডিসেম্বর কলকাতায় হবে। যদিও এখনো তারিখের ঘোষণা হয়নি। প্রত্যেক বছর আইপিএলের শুরু ওপেনিং সেরিমনি দিয়ে হয় যেখানে কোটি কোটি টাকা খরচা করা হয়। ২০০৮ এ যখন থেকে আইপিএলের শুরু হয়েছে তখন থেকে প্রত্যেক মরশুমের শুরু হওয়ার আগে দুর্দান্ত ওপেনিং সেরিমনি করা হয়। যদিও আইপিএল ২০১৯এ ওপেনিং সেরিমনি হয়নি। বিসিসিআই সেই মানুষদের সম্মানে এটা রদ করে দিয়েছিল যারা পুলওয়ামা জঙ্গী হামলায় নিজেদের প্রাণ হারিয়েছিলেন। কিন্তু এখন এমন প্রভাব দেখা যাচ্ছে যে বোর্ড এই পরম্পরাকে শেষ করার ব্যাপারে ভাবছে। গত সোমবার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের গর্ভনিং কাউন্সিলের বৈঠক হয়েছে। এতে আইপিএল থেকে ওপেনিং সেরিমনি সরানোর পরামর্শ দেওয়া হয়। এটা নিয়ে বিসিসিআইয়ের এক আধিকারিক বলেছেন, “উদ্ঘাটন সমারোহ টাকার নষ্ট। এতে ক্রিকেট সমর্থকরা ইন্টারেস্ট দেখান না আর শিল্পীদের অনেক বেশি টাকা দিতে হয়”। আপনাদের জানিয়ে দিই যে এই সেরিমনিতে ৩০ কোটি টাকা পর্যন্ত খরচা হয়। আইপিএল সঞ্চালন পরিষদ নো-বলের উপর নজর রাখার জন্য চতুর্থ অ্যাম্পায়ার রাখার কথা ভাবছে।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *