আইপিএল ২০২০র বাতিল হওয়ায় বিসিসিআইয়ের ব্রডকাস্টিং রেভেনিউতে হবে এত বড়ো লোকসান, চিন্তায় বোর্ড

বিশ্বজুড়ে এই মুহূর্তে করোনা ভাইরাসে একের পর এক দেশ আক্রান্ত হচ্ছে। বুধবার পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায় করোনা ভাইরাসে ১৬৮টি দেশ আক্রান্ত হয়েছে, যারপর পুরো বিশ্বজুড়ে দারুণ হাহাকার পড়ে গিয়েছে। করোনার আতঙ্ক থেকে বাঁচার জন্য এখন সকলেই একজুট হয়ে গিয়েছেন।

করোনার আতঙ্কের কারণে আইপিএলকে বিসিসিআই এগিয়ে দিল

আইপিএল ২০২০র বাতিল হওয়ায় বিসিসিআইয়ের ব্রডকাস্টিং রেভেনিউতে হবে এত বড়ো লোকসান, চিন্তায় বোর্ড 1

করোনা ভাইরাসের ক্রমবৃদ্ধিমান আতঙ্কের মধ্যে বিশ্বজুড়ে একধরণের অনির্দিষ্টকালের জন্য হড়তালের মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়ে গিয়েছে। যার একটা বড়ো প্রভাব খেলার মাঠেও দেখা যাচ্ছে। এই মুহূর্তে করোনার কারণে খেলা সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। খেলার মাঠের কথা বলা হয়ে ক্রিকেটেও এর একটা বড়ো প্রভাব দেখতে পাওয়া যাচ্ছে। যার ফলে একের পর এক ইভেন্ট বাতিল করা হচ্ছে। ২৯ মার্চ থেকে শুরু হতে চলা ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগকেও করোনা ভাইরাসের কারণে বিসিসিআই ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত করে দিয়েছে।

বিসিসিআইয়ের জন্য মুশকিল হবে এই পরিবেশে আয়োজন

আইপিএল ২০২০র বাতিল হওয়ায় বিসিসিআইয়ের ব্রডকাস্টিং রেভেনিউতে হবে এত বড়ো লোকসান, চিন্তায় বোর্ড 2

আইপিএল টুর্নামেন্ট নিয়ে বিসিসিআই এই পদক্ষেপ তখন নেয় যখন ভারত সরকার ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত সমস্ত আন্তর্জাতিক বিমানসেবার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেয়। এরপর বিসিসিআই বিদেশী খেলোয়াড়দের মুশকিলে পড়তে দেখে এটা স্থগিত করে দেয়। কিন্তু এখন বর্তমান পরিস্থিতিতে আইপিএল হওয়া মুশকিল দেখাচ্ছে। বিশ্বজুড়ে COVID-19 মহামারী ছড়িয়ে ফেলেছে এই অবস্থায় যতক্ষণ না এতে উন্নতি হচ্ছে ততক্ষণ বিসিসিআই কোনোভাবেই আইপিএল ২০২০র আয়োজন নিয়ে ভাবনা চিন্তা করতে পারবে না। অন্যদিকে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী পরিস্কার করে দিয়েছেন যে তিনি বর্তমানে ওয়াচ অ্যান্ড ওয়েট নীতিতে চলবেন।

বিসিসিআইয়ের হতে পারে প্রায় ৩৮৭০ কোটি টাকার রেভেনিউর লোকসান

আইপিএল ২০২০র বাতিল হওয়ায় বিসিসিআইয়ের ব্রডকাস্টিং রেভেনিউতে হবে এত বড়ো লোকসান, চিন্তায় বোর্ড 3

যদিও এখনো কোনো স্পষ্ট সিদ্ধান্ত নেওয়া যাচ্ছে না। কারণ চাপা আওয়াজে তো এটাও সামনে আসছে যে এই টুর্নামেন্ট ছোটো ফর্ম্যাটেও খেলে নেওয়া যাক, কিন্তু যতক্ষণ করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক রয়েছে সেই পরিস্থিতিতে আইপিএলের আয়োজন একদমই সম্ভব মনে হচ্ছে না। এই অবস্থায় যদি আইপিএল এবার বাতিল করা হয় তো বিসিসিআইকে একটা বড়ো লোকসান পোহাতে হবে। আইপিএলকে স্থগিত করা হলে বিসিসিআইয়ের ব্রডকাস্টিংয়ের বড়ো লোকসান হবে। আর তার মূল্য শুনলে আপনিও অবাক হয়ে যাবেন। অনুমান করা হচ্ছে যে বিসিসিআইয়ের প্রায় ৫০০ মিলিয়ন ডলার লোকসান হতে পারে। ব্রডকাস্টিং রাইটস স্টার ইন্ডিয়ার কাছে রয়েছে। এই অবস্থায় বিসিসিআইয়ের সঙ্গেই স্টার ইন্ডিয়ারও বড়ো লোকসান হতে পারে। সবকিছু মিলিয়ে প্রায় ৩৮৭০ কোটি টাকার রেভেনিউ আসে। বিসিসিআইয়ের সচিব জয় শাহ একটি বৈঠকে বলেছেন যে,

“বোর্ড সার্বজনিক স্বাস্থ্যের হিতে ভবিষ্যতের অ্যাকশন নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য ভারত সরকার, রাজ্যসরকারগুলি আর অন্য রাজ্যের নিয়ামক সংস্থাদের সঙ্গে মিলে দেখরেখ আর কাজ করা বজায় রাখবে। বিসিসিআই আর এর শুভাকাঙ্খীরা বড়ো খেলা আর দেশে শামিল হওয়ার জন্য একটা সুরক্ষিত স্বাস্থ্যকর পরিবেশ প্রদান করার জন্য প্রতিজ্ঞাবদ্ধ”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *