বিসিসিআই ২জন নতুন নির্বাচকের জন্য চাইল আবেদন, এমএসকে প্রসাদের হতে চলেছে বিদায়?

ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান নির্বাচক হিসেবে এমএসকে প্রসাদের কার্যকাল বিসিসিআইয়ের বার্ষিক সাধারণ বৈঠকের পরই শেষ হয়ে গিয়েছিল। তার সঙ্গেই আরেক নির্বাচক গগণ গোড়ার কার্যকালও শেষ হয়ে গিয়েছে। জানিয়ে দিই যে এমএসকে প্রসাদকে ২০১৬য় নির্বাচক প্রধানের পদ দেওয়া হয়েছিল। তিনি ২০১৫য় নির্বাচক কমিটিতে শামিল হয়েছিলেন আর এক বছর পর তাকে নির্বাচক প্রধান করে দেওয়া হয়েছিল।

আবেদনের শেষ তারিখ ২৪ জানুয়ারি

বিসিসিআই ২জন নতুন নির্বাচকের জন্য চাইল আবেদন, এমএসকে প্রসাদের হতে চলেছে বিদায়? 1

বিসিসিআই জাতীয় নির্বাচক কমিটির প্রধান এমএসকে প্রসাদ আর তার সহযোগী নির্বাচক গগণ গোড়ার জায়গা নেওয়ার জন্য শনিবার আবেদন চেয়েছে। সিনিয়র নির্বাচক কমিটির দুই সদস্য ছাড়াও মহিলা নির্বাচক কমিটির সকল সদস্য আর জুনিয়র নির্বাচক কমিটিতে দুটি পরিবর্তন হবে। এর জন্য আবেদন করার শেষ তারিখ হল ২৪ জানুয়ারি। যদিও এটা এখনো পরিস্কার হয়নি যে মদনলাল, গৌতম গম্ভীর আর সুলক্ষণা নাইকের প্রস্তাবিত ক্রিকেট পরামর্শদাতা কমিটি (সিএসি) আবেদনকারী প্রার্থীদের সঙ্গে সাক্ষাত করবেন কি না।

প্রার্থীদের বয়েস ৬০ বছরের বেশি হওয়া যাবে না

বিসিসিআই ২জন নতুন নির্বাচকের জন্য চাইল আবেদন, এমএসকে প্রসাদের হতে চলেছে বিদায়? 2

সৌরভ গাঙ্গুলীর নেতৃত্বাধীন বিসিসিআই বোর্ড নির্বাচক হওয়ার জন্য যে শর্ত ঠিক করেছে তার মোতাবেক প্রার্থীদের বয়স ৬০ বছরের বেশি হওয়া যাবে না। সিনিয়র নির্বাচকের পদের জন্য প্রার্থীকে ৭টি টেস্ট আর ৩০টি প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ বা ১০টি একদিনের ম্যাচ আর ২০টি প্রথম শ্রেণীর ম্যাচের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। প্রার্থীদের ক্রিকেটের প্রত্যেকটি ফর্ম্যাট থেকে পাঁচ বছর আগে অবসর নিয়ে থাকতে হবে। জুনিয়র নির্বাচক কমিটির আবেদনকারীদের কম সে কম ২৫টি প্রথম শ্রেণীর ম্যাচের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। সিনিয়র মহিলা দলের নির্বাচক হওয়ার জন্য প্রার্থীদের কাছে কম সে কম একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

এই দিগগজ হলে বড়ো দাবীদার

বিসিসিআই ২জন নতুন নির্বাচকের জন্য চাইল আবেদন, এমএসকে প্রসাদের হতে চলেছে বিদায়? 3

মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী ভারতের প্রাক্তন স্পিনার এবং কমেণ্টেটর লক্ষ্মণ শিবরামকৃষ্ণানের নাম এমএসকে প্রসাদের জায়গা নেওয়ার জন্য সবার আগে রয়েছে। শিমরামকৃষ্ণাণের কাছে টিএনসিএর সমর্থন রয়েছে, যাদের এখন বিসিসিআইতে কর্তৃত্ব রয়েছে। রিপোর্ট অনুযায়ী আশিস নেহেরা, অজিত আগরকার, দীপ দাশগুপ্ত আর রোহণ গাভাস্কারও এই নির্বাচক হওয়ার দৌড়ে রয়েছেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *