এই বিসিসিআই আধিকারিক ফেঁসেছিলেন মি টু কেসে, এখন আগামী এজিএমে সৌরভ করতে পারেন আলোচনা 1

বিসিসিআই সিও রাহুল জোহরির বিরুদ্ধে অজ্ঞাত অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে যৌন উৎপীড়নের অভিযোগ আনা হয়েছিল। এখন বিসিসিআই এই মামলায় সুপ্রিম কোর্টের বিনোদ রাইয়ের সভাপতিত্বাধীন তিন সদস্যের এক কমিটির গঠন করেছে, যারা পুরো ঘটনার তদন্ত করবে। এরপর এখন বিসিসিআইয়ের বার্ষিক মিটিংয়ে আরো একবার এই বিষয়ে তর্ক করা হবে।

রাহুল জোহরির উপর আবারো পড়তে চলছে মি টুর বাজ

এই বিসিসিআই আধিকারিক ফেঁসেছিলেন মি টু কেসে, এখন আগামী এজিএমে সৌরভ করতে পারেন আলোচনা 2

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের নতুন পদাধিকারীরা রবিবার মুম্বাইতে হেড অফিসে বোর্ডের ৮৮তম বার্ষিক সাধারণ সভার জন্য রাজ্য অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করার জন্য প্রস্তুত। যদিও ১২টি এজেন্ডা সুচিবদ্ধ রয়েছে, তিন সদস্যের স্বতন্ত্র কমিটি দ্বারা যৌন উৎপীড়নের অভিযোগ নিয়ে সিইও রাহুল জোহরির মামলাকে সামলানো নিয়েও আলোচনা হতে পারে। একজন আধিকারিক আইএএনএসের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বলেছেন যে কোনো কিছুই শেষ না হওয়ায় জোহরির মামলা আলোচনার জন্য সামনে আসতে পারে যে কিভাবে বিষয়টি লক্ষ্যে পৌঁছয়। তিনি বলেছেন,

“কথিন যৌন উৎপীড়নের সম্পর্কিত পুরো বিষয়টিতে প্রশাসক কমিটি অনেকগুলো প্রশ্ন তুলেছে আর অনেকগুলো উত্তর অনুত্তরিত রয়েছে, এই কারণে এটা আবারো দেখার প্রয়োজন পড়তে পারে”।

সাবা করিমের বোর্ডের স্কোরিং অ্যাপের সঞ্চালন

এই বিসিসিআই আধিকারিক ফেঁসেছিলেন মি টু কেসে, এখন আগামী এজিএমে সৌরভ করতে পারেন আলোচনা 3

আরো একটা বিষয় যা নিয়ে আলোচনা হতে পারে সেটা হল জিএম ক্রিকেট অপারেশন সাবা করিমের বোর্ডের স্কোরিং অ্যাপের সঞ্চালনা। যখন বিসিসিআইয়ের স্কোরিং অ্যাপের কথা আসে, তো করিমের দেখরেখে আধিকারিকরা ডিজাইনে পরিবর্তন আর লজ্জা হওয়া থেকে প্রভাবিত হয় না, যে কারণে ভুল তথ্য প্রদর্শিত হওয়ার বেশকিছু মামলার জন্য ধন্যবাদ দেওয়া হয়েছে। ওই আধিকারি জানিয়েছেন,

“অ্যাপ আর স্কোরিং সিস্টেম গত ৫ বছরে একটা স্বপ্নের মতো কাজ করেছে আর যা ভাঙেনি, তা পরিবর্তন করার কোনো কারণ ছিল না”।

বৈঠকের ১২টি এজেন্ডা

এই বিসিসিআই আধিকারিক ফেঁসেছিলেন মি টু কেসে, এখন আগামী এজিএমে সৌরভ করতে পারেন আলোচনা 4

গত সাধারণ বৈঠকের মিনিটসের পুষ্টি।

সমীক্ষাধীন বছরের জন্য সচীবের রিপোর্ট গ্রহণ।

২০১৭-১৮ আর ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরের জন্য বিসিসিআইয়ের বৈধানিক লেখা পরীক্ষকের নিযুক্তির জন্য ২০১৬-১৯ আর ২০১৭-১৮এর কোষাধক্ষ্যের রুপোর্ট আর অডিট অ্যাকাউন্টকে গ্রহণ।

২০১৯-২০ বছরের জন্য বার্ষিক বাজেট গ্রহণ।

২০১৯-২০ বছরের জন্য লেখা পরীক্ষক বা লেখা পরীক্ষকদের নিযুক্তি আর তাদের পারিশ্রমিক ঠিক করা।

লোকপাল আর আচার আধিকারিকের নিযুক্তি।

ক্রমশ: নিয়ম ২৭ আর ২৮ এ উল্লেখিত ক্রিকেট কমিটিগুলি আর স্থায়ী কমিটিগুলির নিযুক্তি।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *