'ব্যাট স্পনসরশিপ'-এ ভারতীয় ক্রিকেটারদের আয় দেখলে চোখ কপালে উঠবেই 1
Prev1 of 8
Use your ← → (arrow) keys to browse

বিশেষ প্রতিবেদন: মহেন্দ্র সিং ধোনিকে হারিয়ে দিলেন বিরাট কোহলি। না, এটা মাঠের খেলায় নয়। ঘটনা হল, ব্যাটের স্পনসরশিপে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ককে পিছনে ফেলে দিলেন বিরাট। একটি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ব্যাটের স্পনসরসিপের ক্ষেত্রে ‘স্পার্টান’-এর থেকে ধোনি পান ৬ কোটি টাকা। বিরাট অবশ্য এই আঙিনায় ‘এমআরএফ’-এর তরফ তেকে ৮ কোটি টাকা পান। এরই পাশাপাশি জুতো ও পোশাকের জন্য আরও ২ কোটি টাকা আয় করে নেন ভারতের বর্তমান অধিনায়ক। তবে মাঠের বাইরের আয়ের ক্ষেত্রে (যেমন টিভি বিজ্ঞাপন) বিরাটের থেকে এখনও অনেকটা এগিয়ে এমএস ধোনি। কোহলি এই জায়গায় ৫ কোটি পেলেও, ধোনির আয় এখানে ৮ কোটি টাকা।

তবে শুধু ধোনি কিংবা কোহলি নন, এই ব্যাটের ‘স্টিকার’ থেকে অনেক টাকাই আয় করেন ভারতের অন্যান্য ক্রিকেটাররা। শিখর ধাওয়ান ও রোহিত শর্মা দু’জনেই এই ক্ষেত্রে যথাক্রমে টায়ার কম্পানি এমআরএফ ও সিয়েটের থেকে পান ৩ কোটি টাকা। এই সিয়েটই সুরেশ রায়নাকে একই কারণে দেয় আড়াই থেকে তিন কোটি টাকা। অন্যদিকে, ব্যাট-জুতো-পোশাক মিলিয়ে ৪ কোটি আয় করেন যুবরাজ সিং। অজিঙ্ক রাহানে পান ১.৫ কোটি টাকা।

বিদেশিদের মধ্যে ভারতীয় ক্রিকেটারদের এই ধরণের আয় ক্ষেত্রে টক্কর দিতে পারেন শুধুমাত্র এবি ডিভেলিয়ার্স ও ক্রিস গেইল। ব্যাটের গায়ে বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে ডিভেলিয়ার্স পান ৩.৫ কোটি টাকা। গেইল আয় করেন প্রায় তিন কোটি টাকা। গোটা বিষয়ে দেশের এক স্পোর্টস মার্কেটিং ফার্মের বড় কর্তা বলেন, ‘অন্যান্য দেশের ক্রিকেটারদের তুলনায় ভারতীয় ক্রিকেটারদের বেশি টাকা দেওয়া হয় কারণ খেলার মধ্যে এই দেশে ক্রিকেটের চলটাই সবথেকে বেশি। তবে বিদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে এবি ডিভেলিয়ার্স ও ক্রিস গেইল অনেক টাকা দাবি করেন কারণ ভারতে তাঁদের ফ্যানের সংখ্যা অনেক।

এবার দেখে নেওয়া যাক সেই সব ক্রিকেটারদের যাদের ‘এনডোর্সমেন্ট’ সব থেকে বেশি:

Prev1 of 8
Use your ← → (arrow) keys to browse

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *