পুজারা-ঋদ্ধিমানের ব্যাটিংয়ে মুগ্ধ অস্ট্রেলিয়ার প্রধান কোচ লেহম্যান 1
ড্যারেন লেহম্যান

ধৈর্য ও নিষ্ঠা থাকলে কঠিন পিচেও কীভাবে ব্যাট হাতে টিকে থাকতে হয় তা দেখিয়েছে চেতেশ্বর পূজারা ও বাংলার ঋদ্ধিমান সাহা। তৃতীয় টেস্টে ভারতের প্রথম ইনিংসের একটা সময় এই জুটির সামনে অসহায় দেখাচ্ছিল অস্ট্রেলিয়ান বোলারদের। এবার বোলারদের পাশাপাশি খোদ অস্ট্রেলিয়ার প্রধাণ কোচের গলায়ও শোনা গেল হতাশা ও প্রশংসা।

ভারতের ইনিংসটি কে এল রাহুল ও মুরলী বিজয়ের হাত ধরে শুরুটা ভাল হলেও পরেরদিকে ধাক্কা আসে। কারণ এই ম্যাচেও রান পাননি বিরাট কোহলি। বিজয় ৮২ রানে আউট হয়ে যাওয়ার পর, ভারতীয় ইনিংসে আশার সঞ্চার কেউ করতে পারেনি। শুধু পূজারা একাই লড়ছিলেন ক্রিজে দাঁড়িয়ে। অশ্বিন আউট হওয়ার পর অস্ট্রেলিয়া ভেবেছিল সহজেই গুটিয়ে ফেলবে ভারতীয় ইনিংস। কিন্তু তা হল না। ঋদ্ধিমান সাহা ও পূজারা ব্যাট করলেন প্রায় গোটা একদিন। এই দুজনে অস্ট্রেলিয়ার সমস্ত আশা ভেঙে দিলেন এক লহমায়।

ঠান্ডা মাথায় হ্যাজেলউডের স্লেজিংয়ের জবাব দিলেন ঋদ্ধিমান ও পূজারা

পূজারা ও সাহার এই ইনিংসটি এক দৃষ্টান্ত হয়ে রয়ে গেল। অস্ট্রেলিয়ার প্রধান কোচ ডারেন লেহম্যানও স্বীকার করলেন সেই কথা। শুধু স্বীকার করাই নয়, পরোক্ষভাবে দলের ছেলেদের বললেন, দেখো কীভাবে ক্রিজে টিকে থাকতে হয়। লেহম্যান বলেন, “আমরা উইকেটের দু’দিক দিয়েই বল করেছি। রীতিমত প্ল্যান করে পায়ের গোড়ায় ও শর্ট পিচ বলও করে দেখেছি। কিন্তু কোনও লাভ হয়নি। ওরা ভাল খেলেছে। পূজারা ও সাহা দেখিয়ে দিয়েছে কঠিন পিচেও ব্যাট করা যায়। আমাদেরকেও এভাবেই খেলতে হবে।”

পূজারা গড়লেন নতুন রেকর্ড, দেখে নেওয়া যাক এই তালিকায় থাকা ভারতীয়দের নাম

অন্যদিকে বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ অধিনায়ক স্টিভ স্মিথের অধিনায়কত্ব নিয়েও প্রশ্ন ওঠে ম্যাচের চতুর্থ দিনে। পূজারা ও সাহাকে আউট করার জন্য তিনি সেভাবে কোনও প্ল্যানই করলেন না। ম্যাক্সওয়েলকে এই দলে একজন অলরাউন্ডার হিসেবে নেওয়া হলেও, তাঁকে মাত্র ৪ ওভার করানো হল। অস্ট্রেলিয়ান কোচ বলেন, “এটা অধিনায়কের সিদ্ধান্ত। তবে ম্যাক্সওয়েলকে দিয়ে আরও কিছু ওভার করানোই যেত।”

এই ধরনের টার্নিং পিচে ম্যাক্সওয়েলকে দিয়ে একটু বেশি ওভার করানো হলে, উইকেট পেতে পারতেন তিনি। এমনটাই মত বিশেষজ্ঞদের। সাহা ও পূজারাকে আউট করার জন্য স্মিথ যদি একটু ভরসা করতে পারতেন ম্যাক্সওয়েলের ওপর, তাহলে হয়ত এই টেস্টের চিত্রটি আলাদা হতে পারত।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *