২০১৭-র শুরুতেই জাতীয় দলে প্রত্যাবর্তন করতে চান আশিষ নেহেরা 1

ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম “কামব্যাক ম্যান” হিসেবে পরিচিত আশিষ নেহেরা। ১৯৯৯ সালে টেস্ট অভিষেক ঘটালেও, একবিংশ শতকের শুরুকেই আশিষ নেহেরার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের শুরু বলে ধরা হয় কারণ অভিষেক টেস্টের পর তাঁর পরবর্তী আন্তর্জাতিক ম্যাচ ছিল ২০০১ সালে।

টেস্ট ক্রিকেটে সাফল্য অর্জন করতে ব্যর্থ হলেও, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে নিজেকে যথাযথ ভাবে তুলে ধরতে সমর্থ হয়েছেন ভারতের এই বামহাতি পেসার। সৌরভ গাঙ্গুলির অধিনায়কত্বতে আন্তর্জাতিক কেরিয়ার শুরু করে ধীরে ধীরে নিজেকে ভারতের একদিনের আন্তর্জাতিক দলের নিয়মিত খেলোয়াড়ে রূপান্তর করেন।

তবে ২০০৫ সালের পর থেকে চোট-আঘাত এবং অফ ফর্মের কারণে দীর্ঘদিন টানা জাতীয় দলের বাইরে থাকতে হয় নেহেরাকে।

আরও পড়ুন – শিখর ধাওয়ানকে আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটর ময়দানে এই ভুমিকায় দেখা যাবে না

সমগ্র ভারতবাসী যখন তাঁকে ভুলতে বসে ছিল, ঠিক সেই সময়ে জাতীয় দলে পুনরাবির্ভাব ঘটে নেহেরার। ২০০৯ সালে একদিনের আন্তর্জাতিকে ফিরে আসার সাথে সাথে টি-২০ আন্তর্জাতিকেও অভিষেক ঘটান নেহেরা। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে নিজেকে সীমিত ওভারের আন্তর্জাতিক দলের অন্যতম প্রধান পেসার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে সমর্থ হন নেহেরা। বয়সের সাথে সাথে অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে নিজের ধার বাড়াতে থাকেন তিনি, তবে চোট-আঘাতের সাথে নিয়মিত কঠিন লড়াইও লড়তে হচ্ছে তাঁকে।

২০১১ আইসিসি বিশ্বকাপের পর চোট-আঘাতের কারণে আবার দীর্ঘ সময়ের জন্য ভারতের জাতীয় দলের বাইরে থাকতে হয় নেহেরাকে।

তবে নেহেরা চলতি বছরের শুরুতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফের একবার দুরন্ত প্রত্যাবর্তন ঘটান টি-২০ আন্তর্জাতিকের মাধ্যমে কিন্তু ফের একবার চোটের কারণে টি-২০ বিশ্বকাপের পর ক্রিকেট থেকে দূরে থাকতে হয়।

সেই নেহেরা এখন আশাবাদী যে তিনি ২০১৭-র শুরতেই জাতীয় দলে ফিরতে পারবেন। মূলত ঘরের মাঠে আসন্ন ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সীমিত ওভারের আন্তর্জাতিক সিরিজকেই পাখির চোখ করছেন নেহেরা। টি-২০ আন্তর্জাতিক তো বটেই, তার সাথে একদিনের আন্তর্জাতিকেও প্রত্যাবর্তন ঘটাতে ইচ্ছুক ৩৭-বছরের বামহাতি পেসার।

দেখুন – ছবিতে- সেক্সিয়েস্ট স্পোর্টস সাংবাদিক মায়ান্তি ল্যাঙ্গারের ২০ টি হটেস্ট ফটো

চলতি বছরের অক্টোবরে এক সাক্ষাৎকারে নেহেরা জানান যে, সদ্য দুটি অস্ত্রোপচারের পর তিনি ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন। নেহেরা আরও জানান যে, প্রশিক্ষণ পর্ব শুরু করে দিয়েছেন এবং চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যেই নিজেকে ম্যাচ ফিট করে নিতে পারবেন।

২০১৭-তে নিজের লক্ষ্যমাত্রা এখনই স্থির করে নিয়েছেন নেহেরা। ২০১৭-র শুরুতে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সীমিত ওভারের আন্তর্জাতিক সিরিজের পর আইপিএল খেলাও নেহেরার অন্যতম প্রধান লক্ষ্য।

বয়স ও চোট-আঘাতকে হারিয়ে নেহেরা আবার ক্রিকেটের আঙ্গিনায় ফিরে আসতে বদ্ধপরিকর। তিনি জানান যে, এখনও তিনি ক্রিকেট খেলাকে উপভোগ করছেন আর তাই ফিটনেসের জন্য কঠোর পরিশ্রম করছেন।

এক কথায় ৩৭-বছরের ভারতীয় বামহাতি পেসার জাতীয় দলে পুনরায় প্রত্যাবর্তন করতে আরও একবার কোমর বেঁধে নেমে পড়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *