আশিস নেহেরা বললেন বিরাট, রোহিত নন এই দিগগজ ভারতীয় খেলোয়াড় খেলেছেন এই দশকের সর্বশ্রেষ্ঠ ইনিংস

প্রাক্তন ভারতীয় দিগগজ বোলার আশিস নেহেরা এই দশকের সর্বশ্রেষ্ঠ ইনিংস খেলা খেলোয়াড়ের নাম জানিয়েছেন। তিনি ভারতের প্রাক্তন ব্যাটসম্যান ভিভিএস লক্ষ্মণের দ্বারা দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ২০১০এ খেলা হওয়া ৯৬ রানের ইনিংসকে এই দশকের সর্বশ্রেষ্ঠ ইনিংস বেছেছেন। সেই সঙ্গে তিনি এটাও বলেছেন যে এই ইনিংস স্পেশাল কেনো ছিল।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ভারতের গুরুত্বপূর্ণ জয়কে মনে করে আশিস নেহেরা বললেন

আশিস নেহেরা বললেন বিরাট, রোহিত নন এই দিগগজ ভারতীয় খেলোয়াড় খেলেছেন এই দশকের সর্বশ্রেষ্ঠ ইনিংস 1

ডারবানের বাউন্সি পিচে জেতা ভারতের জন্য সবসময়ই একটা স্বপ্ন থেকেছে, কিন্তু লক্ষ্মণ দ্বিতীয় ইনিংসে ৯৬ রানের ইনিংস খেলে এই স্বপ্নকে সফল করে দিয়েছিল, এই টেস্ট ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ভারত ৭৪ রানের লীড পেয়েছিল। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে ভারত মাত্র ১৪৮ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল। এই বিষম পরিস্থিতিতে লক্ষ্মণ নীচের দিকের ব্যাটসম্যানদের সঙ্গে মিলে ভারতকে নির্ণায়ক স্কোর পর্যন্ত পৌঁছে দেয়।

ভারতকে এনে দিয়েছিলেন ৮৭ রানে জয়

আশিস নেহেরা বললেন বিরাট, রোহিত নন এই দিগগজ ভারতীয় খেলোয়াড় খেলেছেন এই দশকের সর্বশ্রেষ্ঠ ইনিংস 2

এই ম্যাচে ভিভিএস লক্ষ্মণ প্রাক্তন ভারতীয় জোরে বোলার জাহির খানের সঙ্গে মিলে অষ্টম উইকেটের জন্য ৭০ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন। লক্ষ্মণ এই ম্যাচে সেঞ্চুরি তো করতে পারেননি কিন্তু তার ৯৬ রানের ইনিংসের সৌজন্যে এই ম্যাচে ভারত ৮৭ রানের ঐতিহাসিক জয় হাসিল করেছিল। এই ম্যাচে ভিভিএস লক্ষ্মণকে এই ম্যাচে ম্যান অফ দ্য ম্যাচ পুরস্কার দেওয়া হয়।

সেহবাগ ছাড়া আর কোনো ব্যাটসম্যান ছুঁতে পারেননি ৩০ রানের গন্ডি

আশিস নেহেরা বললেন বিরাট, রোহিত নন এই দিগগজ ভারতীয় খেলোয়াড় খেলেছেন এই দশকের সর্বশ্রেষ্ঠ ইনিংস 3

গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচকে স্মরণ করে নেহেরা বলেন যে, “লক্ষ্মণের এই ইনিংস তখন আসে যখন বীরেন্দ্র সেহবাগ (৩২) ছাড়া আর কোনো ভারতীয় ব্যাটসম্যান ৩০ রানের গন্ডিও পেরতে পারেননি। এই কারণে আমি লক্ষ্মণের এই ইনিংসকে এই দশকের সর্বশ্রেশঠ ইনিংস মনে করি”।

ভিভিএস লক্ষ্মণের ক্রিকেট কেরিয়ার

আশিস নেহেরা বললেন বিরাট, রোহিত নন এই দিগগজ ভারতীয় খেলোয়াড় খেলেছেন এই দশকের সর্বশ্রেষ্ঠ ইনিংস 4

ভিভিএস লক্ষ্মণ ১৩৪টি টেস্ট ম্যাচে ৪৫.৯৭ গড়ে ৮৭৮১ রান আর ৮৬টি ওয়ানডে ম্যাচে ২৩৩৮ রান করেছেন। লক্ষ্মণ নিজের কেরিয়ারে ১৭টি টেস্ট আর ৬টি ওয়ানডে সেঞ্চুরি করেন। লক্ষ্মণের এই বিষয়ে অবশ্যই আফসোস থাকবে যে তিনি কখনো বিশ্বকাপ খেলতে পারেননি। কারণ আপনারা জানেন যে লক্ষ্মণ নিজের কেরিয়ারের প্রথম ওয়ানডেতে শূন্য রানে আউট হন আর শেষ ওয়ানডেতেও খাতা খুলতে পারেননি।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *