চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দিকে তাকিয়েই আইপিএলে খেলতে নাও পারে আশিষ নেহরা 1

দশম আইপিএলে নাও খেলতে পারেন ভারতীয় টি টোয়েন্টি স্কোয়াডের সর্বজ্যেষ্ঠ ক্রিকেটার আশিষ নেহরা। জুন মাসে ইংল্যান্ডে শুরু হওয়া চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিই তাঁর মূল লক্ষ্য। তাই নিজেকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য ফিট রাখতে চায় অভিজ্ঞ এই বোলার।

আশিষ নেহরা বিভিন্ন সময়ে চোটে জর্জড়িত হলেও, ৩৭ বছর বয়সেও তিনি ভারতীয় জাতীয় দলে ফিরে এসে প্রমাণ করেছেন বয়স শুধুমাত্র একটা সংখ্যা ছাড়া আর কিছুই নয় তাঁর কাছে। এ বছরের প্রথম দিকে ইংল্যান্ডের সঙ্গে টি টোয়েন্টি সিরিজে ভারতীয় বোলিং বিভাগকে নিজের অভিজ্ঞতা দিয়ে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছেন তিনি। নিজেও ভাল প্রদর্শণ করেছেন। গত বছরে আইপিএলে হাঁটুতে চোট পেয়ে তিনি বেশকিছুদিন ভুগেছিলেন। তবে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভাল মেজাজে দেখা গিয়েছিল তাঁকে।

http://bengali.sportzwiki.com/930/bowlers-who-clocked-150-kmph/2/

অভিজ্ঞ এই সিমার ভারতীয় এক সংবাদপত্রকে দেওয়া এক সাক্ষাকারে বলেন, “চোট পাওয়া ও ফিট না থাকা দুটো আলাদা বিষয়। মহম্মদ সামি ২০১৫ বিশ্বকাপ খেলার পর থেকেই হাঁটু নিয়ে নিয়তই হ্যামস্ট্রিঙ-এর চোটে ভুগছেন। তার মানে এই নয় যে তিনি ফিট নন। আনফিট হল তাঁরা যারা ট্রেনিং-এ শ্বাস নিতেও যথেষ্ট কষ্ট পান। আমিও মাঝেমধ্যে চোটের সমস্যায় জেরবার ছিলাম কিন্তু আশিষ নেহরাকে বরাবরই চোটের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে।”

কুঁচকির সমস্যার জন্য তাঁকে বিজয় হাজারে ট্রফিতে দিল্লির দল থেকে বাইরে রাখা হয়েছিল। তাই এবার নিজেই নিজেকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জন্য ফিট রাখতে চান তিনি। বাঁহাতি এই সিমার আরও বলেন, “এবারের আইপিএলে আমি ১৪টা ম্যাচ নাও খেলতে পারি। কারণ আমার মূল লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। তাই আইপিএল খেলে চোটের কবলে পড়তে চাইনা। আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি খেলার থেকে আইপিএল খেলা অনেক বেশি কঠিন।”

জাতীয় দলে ফেরাই এখন মূল লক্ষ্য পাঠানের

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভারতের বোলিং বিভাগের দায়িত্ব তাঁকেই নিতে হবে সেটা জানেন নেহরা। এই সফরে ভারতীয় দলে মহেন্দ্র সিংহ ধোনি ও নেহরাকে বাদ দিলে আর তেমন অভিজ্ঞ খেলোয়ার নেই। তাই তাঁদের ভূমিকা অনেক বেশি। নিজের দায়িত্ব স্বীকার করে নিয়েই নেহরার স্বীকারোক্তি, “আমি বলব যে এখন কোনও ম্যাচে চাপের থেকে দায়িত্বটাই বেশি আমার কাছে। টিমের মধ্যে অভিজ্ঞ হওয়ার কারণে শুধু নিজের বোলিং নয়, সতীর্থ বোলারদের পথ দেখানোও আমার দায়িত্ব।”

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *