ফিলাউরি'র প্রযোজক কোহলি, শুনেই ক্ষেপে আগুন বান্ধবী অনুষ্কা! 1

অভিনয়ের পাশাপাশি ক’দিন আগে নিজেই প্রোডাকশন হাউজ খুলে বলিউডকে একটা দারুণ ছবি উপহার দিয়েছিলেন বলিউড অভিনেত্রী অনুষ্কা শর্মা। ছবিটির নাম ‘এন এইচ টেন’। শোনা যাচ্ছে, শীঘ্রই অনুষ্কার প্রযোজনায় সিলভার স্ক্রিনে আরও একটি ছবি মুক্তি পেতে চলেছে। ‘ফিলাউরি’ নামক এই নতুন ছবিটি নিয়ে দারুণ আশাবাদী তিনি। নতুন এই ছবির প্রচারের জন্য এরই মধ্যে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রোমোশনের পরিকল্পনাও ছকে ফেলেছেন। এমন একটা সুখকর পরিস্থিতিতে হঠাৎ একটি ঘটনা পাল্টে দিল গোটা পরিস্থিতিকে। এক পত্রিকায় প্রকাশ পাওয়া একটি রিপোর্টে রীতিমতো ক্ষেপে আগুন এই বলিউড অভিনেত্রীটি।

‘ফিলাউরি’ নিয়ে ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন একটা গসিপ। এ ছবির প্রযোজক নাকি অনুষ্কা নন। তাঁর বয়ফ্রেন্ড বিরাট কোহলির সহায়তায় ফক্স স্টার স্টুডিও এবং ক্লিন শ্লেট ফিলস নাকি ফিলাউরি প্রযোজনা করছে। বান্ধবীকে সিনেমা তৈরিতে আর্থিকভাবে সাহায্য করেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক। এমন সব গসিপ শুনে যথেষ্ট রেগে গিয়েছেন অনুষ্কা। আর তাই বাধ্য হয়ে নিজের সমালোচকদের উদ্দেশ্যে ক্ষোভ উগরে দেওয়ার পাশাপাশি গোটা বিষয়টি গুজব বলেও উড়িয়ে দিলেন তিনি।

গুজব রটনাকারীদের একহাত নিয়ে বলিউড অভিনেত্রী অনুষ্কা বলেন, “বিভিন্ন জায়গায় আমি শুনছি, ফিলাউরি ছবিটি নাকি ফক্স স্টার স্টুডিও এবং ক্লিন শ্লেট ফিলস প্রযোজনা করছে। কে আপনাদের এই ধরণের তথ্য দিয়েছেন? আপনারা দয়া করে সত্যিটা যাচাই করুন। দায়িত্বশীল সাংবাদিকতা পরিবেশন করুন। এমন সব ভিত্তিহীন খবর প্রকাশ করার জন্য আপনাদের লজ্জা পাওয়া উচিত। আপনাদের খবরের উৎস এই ধরণের ভিত্তিহীন খবর প্রকাশ করে শুধু আমাকে এবং আমার এতদিনের পরিশ্রমকে অপমান করেনি, এই ছবির সঙ্গে যুক্ত সবাইকে আঘাত করেছে। নিজের ফিল্ম কেরিয়ারে আমি সব সময় মাথা উঁচু করে চলেছি। কারোর কোনও ভুল ধরতে আমি কোনওদিন মাথা ঘামাইনি। চুপ থাকি মানে এই নয় যে, আমি দুর্বল। আর সেই সুযোগে আপনারা আমার নামে যা-তা বলে যাবেন। আপনাদের কাছে এটা একটা খবর মাত্র। কিন্তু মাথায় রাখবেন, আপনাদের এই খবর কারোর জীবন ওলোট পালোট করে দিতে পারে। এরা আবার নারীর অধিকার এবং নারীশক্তি নিয়ে কথা বলেন। একটা জিনিষ আপনাদের জানিয়ে রাখি, আমি নিজেই নিজের ছবি প্রযোজনা করতে পারি, তার জন্য কারোর কোনও সাহায্যের প্রয়োজন নেই।”

পরবর্তীকালে সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটেও এই ঘটনাটি ব্যক্ত করেন অনুষ্কা।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *