গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগেই নিখোঁজ এই তারকা খেলোয়াড়, দেহ খুঁজে পেলো পুলিশ 1
cricket bat ball rip

খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না এক তরুণ ও প্রতিভাবান ব্রিটিশ ক্রিকেটারকে। বছর উনিশের কিশোর জেমস করফিল্ডকে খুঁজতে গিয়ে একটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধারের খবরের সত্য়তা স্বীকার করে নিয়ে ডাইফড-পাওইস পুলিশ সূত্রে সংবাদমাধ্য়মকে জানানো হয়েছে, উদ্ধার হওয়া মৃতদেহটি একটি কিশোরের, ফলে এনিয়ে চাঞ্চল্য় ছড়িয়েছে। যদিও পুলিশ জানিয়েছে, মৃতদেহটি এখনও সনাক্ত করা হয়নি। নিখোঁজ হওয়া ওই ক্রিকেটার মন্টগোমারি ইয়ং ফার্মার্স ক্লাবের সদস্য়।

পুলিশ সূত্রে খবর, নিখোঁজ হওয়ার আগে জেমসকে শেষবার মঙ্গলবার ভোররাতে বুইলথ ওয়েলসের হোয়াইট হর্স নামে একটি পাবে দেখা গিয়েছিল। তারপর থেকে আর কোনওরকম খোঁজ পাওয়া যায়নি তাঁর। পাব থেকে ফিরে রয়্য়ালস ওলেস শোগ্রাউন্ডে পরিবারের সঙ্গে দেখা করার কথা ছিল জেমসের। ওখানে আবার বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে ক্য়াম্পিং করছিলেন তিনি। করফিল্ড না ফেরায় পুলিশে খবর দেয় তাঁর পরিবার। এরপর রবিবার দুপুরবেলা ওই কিশোরের দেহটি একটি গভীর জলাশয় থেকে উদ্ধার করে ডাইফড-পাওইস পুলিশ।

গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগেই নিখোঁজ এই তারকা খেলোয়াড়, দেহ খুঁজে পেলো পুলিশ 2

এখানে দেখুনঃ গতবছর এশিয়া কাপে রোহিতের তাচ্ছিল্য়ের জবাব এতদিনে দিলেন আমির

স্থানীয় পুলিশ কর্তৃপক্ষ তাদের বিবৃতিতে জানিয়েছে, ”উদ্ধার হওয়া দেহটি সনাক্ত করা যায়নি। তাই সরকারিভাবে এখনই কিছু জানাতে পারছি না আমরা। জেমসের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলছি আমরা।”

এদিকে, ব্রেকন মাউন্টেইন রেসকিউ টিম তাদের ফেসবুকে পেজে খবর দিয়ে গিয়ে লিখেছে, ‘‘করফিল্ডকে খুঁজছে আমাদের দল। খুবই দু:খজনক ঘটনা। বুইলথ ওয়েলসের ওয়ায়ে নদী থেকে একটি কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার হওয়ায় আমাদের টিম খুব দু:খিত।”

উল্লেখ্য়, একটি সাংবাদিক সম্মেলনে গত বৃহস্পতিবার জেমস করফিল্ডের মা লুইজে করফিল্ড জানান, ”ছেলের খবরের জন্য় আমি উতলা হয়ে আছি। আমি জানতে চাই, আমার ছেলে কোথায় রয়েছে?”

গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগেই নিখোঁজ এই তারকা খেলোয়াড়, দেহ খুঁজে পেলো পুলিশ 3

মন্টগোমারিশায়ারের রাসেল জর্জ জানিয়েছেন, ”জেমস নিখোঁজ। ওদিকে আবার একটি মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। খুব খারাপ ব্য়াপার। আমাদের সংস্থা মানুষকে অসময়ে সাহায্য় করার জন্যই তৈরি। কিন্তু, এই মুহূর্তে আমাদের কাছেও কোনও খবর নেই। এই অঞ্চলে জেমস আর ওর পরিবার অত্য়ন্ত পরিচিত। এই দু:সময়ে আমরা করফিল্ড পরিবারের পাশে আছি যে কোনও দরকারে।”

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *