দীর্ঘসময় ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে থাকা অজিঙ্ক রাহানে নির্বাচকদের উপর আনলেন এই অভিযোগ

ভারতীয় টেস্ট দলের সহঅধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে সৌরভ গাঙ্গুলীর বক্তব্যের সমর্থন করে স্পোর্টস তককে দেওয়া একটি ইন্টারভিউতে বলেছেন যে একজন ভাল টেস্ট খেলোয়াড় ৫০ ওভার আর টি-২০তে সহজেই মানিয়ে নিতে পারেন, অন্যদিকে আমাদের এখানে প্রত্যেক ফর্ম্যাটের জন্য আলাদা দলের নির্বাচন করা হয়। সেই সঞগে তিনি নির্বাচকদের পরামর্শও দিয়েছেন।

একই দলে থাকায় খেলোয়াড়দের মধ্যে থাকে আত্মবিশ্বাস

দীর্ঘসময় ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে থাকা অজিঙ্ক রাহানে নির্বাচকদের উপর আনলেন এই অভিযোগ 1

অজিঙ্ক রাহানে আগে নিজের বয়ানে বলেন,

“ধারাবাহিকতা থাকা গুরুত্বপূর্ণ। কোর গ্রুপ থাকা ভাল। দাদা ৩টে আলাদা আলাদা ফর্ম্যাটে একটি কোর গ্রুপ থাকার গুরুত্বের কথা বলেছিলেন। আমার সবসময়ই মত ছিল যে যখন আপনার কাছে ধারাবাহিকতা থাকে তো খেলোয়াড় অত্যাধিক বেশি আত্মবিশ্বাস হয়ে যান। যদি আপনার কাছে একটাই দল থাকে তো তাতে খেলোয়াড়রা বিশ্বাস পায় যে দল তাদের সমর্থন করছে। দলের জন্য এটা নিশ্চিতভাবেই ভাল। যখন আপনি কিছু মাসের জন্য লাগাতার একদিনের ক্রিকেট আর টেস্ট ক্রিকেট খেলেন তো আপনি সহজেই জানতে পারেন যে কিভাবে নিজের খেলাকে অনুকুল করে তুলবেন আর আগে নিয়ে যাওয়া যায়। আর এটা একটা আলাদা বলের খেলা তৈরি হয়ে যায়, যখন আপনি ৩-৪ মাস পর্যন্ত না খেলেন”।

নির্বাচকদের কথা বলা উচিত খেলোয়াড়দের সঙ্গে

দীর্ঘসময় ধরে টিম ইন্ডিয়ার বাইরে থাকা অজিঙ্ক রাহানে নির্বাচকদের উপর আনলেন এই অভিযোগ 2

টেস্ট দলের সহঅধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে বলেন যে,

“নির্বাচকদের উচিত খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলা। আমি এমনটা বলব না যে তারা খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথাবার্তা বলেন না কিন্তু খেলোয়াড়দের দলে নির্বাচিত হওয়া আর বাদ পড়া নিয়ে আলোচনা করেন না। যা নিয়ে আমার মত যে নির্বাচকদের খেলোয়াড়দের বাদ দেওয়ার সময় তার কারণ বলা উচিত সেই সঙ্গে নির্বাচন করার সময় তারও পরিস্কারভাবে কারণ বলা উচিত। রাহানে আগে বলেন যে নির্বাচকদের খেলোয়াড়দের বাদ দেওয়ার সময় বলা উচিত যে আসলে তাদের কি রকমের উন্নতি করতে হবে”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *