পাঁচ বছরের জন্য় নির্বাসিত এই তারকা খেলোয়াড়! 1

 

পাকিস্তান ক্রিকেট আর গড়াপেটা একে অপরের ছায়াসঙ্গী। পিছু যেন কিছুতেই ছাড়তে চায়না। আরও এক পাক ক্রিকেটারের নাম কলঙ্কের সঙ্গে জড়াল। ম্য়াচ-ফিক্সিং বহুদিন আগেই পুরনো হয়ে গিয়েছে। এখন তার জায়গায় স্পট-ফিক্সিংয়ের রমরমা বাজার। বেছে বেছে একটা বা কয়েকটা ওভার, আবার ম্য়াচের কোনও মুহূর্তকে টার্গেট করতে পারলে এখন আরও বেশি টাকা আসে বুকিদের হাতে। পাকিস্তান ক্রিকেটের কলঙ্কিত অধ্য়ায়ে আরও একটি নাম জুড়ল। স্পট-ফিক্সিংয়ের দায়ে ব্য়াটসম্য়ান শার্জিল খানকে পাঁচ বছরের জন্য় সবধরনের ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত করল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। পাকিস্তানের এক স্থানীয় সংবাদ মাধ্য়ম বুধবার এই খবর জানিয়েছে। শার্জিলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি পাকিস্তানের ঘরোয়া টি-২০ লিগে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)-এ স্পট-ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

আটাশ বছরের এই তরুণ ক্রিকেটারকে ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসহ সব ধরনের ক্রিকেটীয় ব্য়াপার থেকে নির্বাসিত করেছে পিসিবি। অর্থাৎ ক্রিকেটের সঙ্গে জড়িত যে কোনও ব্য়াপার থেকে আগামী পাঁচ বছর কোনও রকম আয় করতে পারবে না শার্জিল। শুধু তাই নয়,  এই পাঁচ বছরের তার গতিবিধির সবসময় নজর রাখবে পাক ক্রিকেট বোর্ড। দেশের বাইরে কোনও কারণে যেতে হলেও বোর্ডের অনুমতি লাগবে। পাকিস্তানের স্থানীয় ওই বেসরকারি সংবাদ মাধ্য়মের খবরে প্রকাশ, পাকিস্তানের ক্রিকেটার শার্জিল খানকে পিসিবি পাঁচ বছরের জন্য় নির্বাসিত করছে। এর মধ্য়ে আড়াই বছর তাকে নির্বাসিত করা হয়েছে। স্পট-ফিক্সিংয়ের ঘটনায় পিসিবি তার বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়ার পর তিন সদস্য়ের ট্রাইব্য়ুনাল গঠন করে। সবরকম আইনি পদ্ধতি মেনে অভিযোগ খতিয়ে দেখার পর ওই ট্রাইব্য়ুনালের প্রধান অসঘাত হয়দর শার্জিলকে এই সাজা দেন পাক ক্রিকেট বোর্ডের হয়ে।

পিসিবির আইনি উপদেষ্টা তাফাজুল রিজভি পাকিস্তানের একটি সংবাদ মাধ্য়মকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এবিষয়ে বলেন, ওর বিরুদ্ধে যা অভিযোগ ছিল, তা প্রমাণিত হয়েছে। ওকে যতটা সম্ভব কম সাজা দেওয়া হয়েছে। কোনও রকম আর্থিক জরিমানা করা হয়নি। শার্জিলের বিরুদ্ধে বোর্ডের কাছে পোক্ত প্রমাণ ছিল। তার ভিত্তিতেই ওকে পাঁচ বছরের জন্য় নির্বাসিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য়, গত ফেব্রুয়ারিতে শার্জিল এবং পিএসএলের ফ্র্য়াঞ্চাইজি ইসলামাবাদ ইউনাইটেডে তার সতীর্থ খালিদ লতিফের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়ার পর টুর্নামেন্ট থেকে তাদের অস্থায়ীভাবে নিলম্বিত করেছিল পিসিবি। আর তারপরেই বোর্ডের দুর্নীতি-দমন শাখা এব্য়াপারে তদন্ত শুরু করে এবং দুই ক্রিকেটারকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয় পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ না নেওয়া পর্যন্ত। গত পিএসএলে আরও দুই ক্রিকেটারের নাম ফিক্সিং কাণ্ডের সঙ্গে জড়ায়। এর মধ্য়ে মহম্মদ ইরফানকে গত মার্চেই জরিমানার পাশাপাশি এক বছরের জন্য় নির্বাসিত করছে পিসিবি।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাকিস্তানের হয়ে অভিষেক হয় শার্জিলের। দেশের হয়ে ১টি টেস্ট ম্য়াচ, ২৫টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্য়াচ ও ১৫টি টি-২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্য়াচ খেলেছে পাকিস্তানের এই তরুণ ক্রিকেটার।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *