৫ জন দুর্ভাগ্যবান খেলোয়াড়, যারা ২৯০ থেকে ২৯৯ এর স্কোরে হয়েছেন আউট 1

ক্রিকেটে কিছু এমন খেলোয়াড়ও আছেন যারা ট্রিপল সেঞ্চুরি হাতছাড়া করেছেন। ট্রিপল সেঞ্চুরি করা টেস্ট ক্রিকেটের একটি ভীষণই বড়ো উপলব্ধী মনে করা হয়। কিন্তু এই ৫ জন তারকা খেলোয়াড়দের এই বিশেষ উপলব্ধী থেকে দূরেই থাকতে হয়। তো আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই পাঁচ দুর্ভাগ্যবান খেলোয়াড়ের ব্যাপারে যারা ২৯০ থেকে ২৯৯ এর স্কোরে আউট হয়েছেন।

ভিভিয়ান রিচার্ডস

৫ জন দুর্ভাগ্যবান খেলোয়াড়, যারা ২৯০ থেকে ২৯৯ এর স্কোরে হয়েছেন আউট 2

ওয়েস্টইন্ডিজের প্রাক্তন কিংবদন্তী ব্যাটসম্যান ভিভিয়ান রিচার্ডস ২৯০ এর স্কোরে আউট হওয়া প্রথম ব্যাটসম্যান ছিলেন। রিচার্ডস ১৯৭৬ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্য ওভাল এর টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৩ নম্বরে ব্যাটিং করে স্রেফ ৩৮২ বলে ৩৮টি বাউন্ডারির সাহায্যে ২৯১ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। ভিভিয়ান রিচার্ডসের ক্রিকেট কেরিয়ার দুর্দান্ত থেকেছে। তিনি ওয়েস্টইন্ডিজের হয়ে ১২১টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন, যেখানে তিনি ৫০.২৪ এর দুর্দান্ত গড়ে মোট ৮৫৪০ রান করেছেন। সেই সঙ্গে তিনি ১৮৭টি ওয়ানডে ম্যাচে ৪৭ গড়ে ৬৭২১ রান করেছেন। তিনি বল হাতেও টেস্টে ৩২টি উইকেট নিয়েছেন। অন্যদিকে এই তারকা খেলোয়াড় ওয়ানডেতে ১১৮টি উইকেট নিয়েছেন। এই তারকা খেলোয়াড়কে অলটাইম বেস্ট খেলোয়াড়দের মধ্যে গুনতি করা হয়।

রামনরেশ সারওয়ান

৫ জন দুর্ভাগ্যবান খেলোয়াড়, যারা ২৯০ থেকে ২৯৯ এর স্কোরে হয়েছেন আউট 3

ওয়েস্টইন্ডিজের প্রাক্তন ব্যাটসম্যান রামনরেশ সারওয়ান ২০০৯ এ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ব্রিজটাউন টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ৩ নম্বরে ব্যাট করতে এসেছিলেন। সেই সময় তিনি ৪৫২ বলে ৩০টি বাউন্ডারি এবং ২টি ছক্কার সাহায্যে ২৯১ রানের ঐতিহাসিক ইনিংস খেলেছিলেন। রামনরেশ সারওয়ান নিজের টেস্ট কেরিয়ারে ওয়েস্টইন্ডিজের হয়ে ৮৭টি টেস্ট ম্যাচের ১৫৪টি ইনিংস খেলেছেন। যেখানে তিনি ৩৯.৭৪ গড়ে ৫৮৪২ রাম করেছেন। যার মধ্যে ৩১টি হাফসেঞ্চুরি আর ১৫টি সেঞ্চুরিও শামিল রয়েছে। এর মধ্যে রামনরেশ সারওয়ান ২টি ডবল সেঞ্চুরিও করেছেন।

বীরেন্দ্র সেহবাগ

৫ জন দুর্ভাগ্যবান খেলোয়াড়, যারা ২৯০ থেকে ২৯৯ এর স্কোরে হয়েছেন আউট 4

ভারতের প্রাক্তন ওপেনিং ব্যাটসম্যান বীরেন্দ্র সেহবাগও এই অনিচ্ছাকৃত তালিকায় শামিল রয়েছেন। সেহবাগ ২০০৯ এ মুম্বাইয়ের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২৫৪ বলে ৪০টি বাউন্ডারি আর ৭টি ছক্কার সাহায্যে ২৯৩ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেছিলেন। তবে সেহবাগ এর আগে টেস্ট ক্রিকেটে ২টি ট্রিপল সেঞ্চুরি করেছেন। বীরেন্দ্র সেহবাগ ১৯৯৯তে আন্তর্জাতিক কেরিয়ারের শুরু করেছিলেন। সেহবাগ নিজের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে ২৫১টি ওয়ানডে ম্যাচ এবং ১০৪টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। সেহবাগ ২৫১টি ওয়ানডে ম্যাচে ৩৫.০৬ গড়ে ৮২৭৩ রান করেছেন। অন্যদিকে তিনি নিজের ১০৪টি টেস্ট ম্যাচে ৪৯.৩৪ এর দুর্দান্ত গড়ে ৮৫৮৬ রান করেছেন। এছাড়াও ১৯টি ট-২০ ম্যাচে তিনি ৩৯৪ রান করেছেন।

অ্যালিস্টেয়ার কুক

৫ জন দুর্ভাগ্যবান খেলোয়াড়, যারা ২৯০ থেকে ২৯৯ এর স্কোরে হয়েছেন আউট 5

ইংল্যান্ডের প্রাক্তন ব্যাটসম্যান স্যার অ্যালিস্টেয়ার কুকও এই তালিকায় শামিল রয়েছেন। কুক ২০১১য় বার্মিংহ্যামের ঐতিহাসিক মাঠে ভারতের বিরুদ্ধে ৫৪৫ বল খেলার পর ৩৩টি বাউন্ডারির সাহায্যে ২৯৪ রানের স্মরণীয় ইনিংস খেলেছিলেন। এই ইনিংস কুকের ম্যারাথন কেরিয়ারের সর্বোচ্চ ইনিংসও। অ্যালিস্টেয়ার কুক একজন দুর্দান্ত ব্যাটসম্যানও ছিলেন। তিনি ইংল্যান্ডের হয়ে ১৬১টি টেস্ট ম্যাচে ৪৫.৪ গড়ে মোট ১২৪৭২ রান করেছেন। তিনি নিজের টেস্ট কেরিয়ারে মোট ৩৩টি সেঞ্চুরিও করেছেন। ৯২টি ওয়ানডে ম্যাচে এই খেলোয়াড়ের নামে ৩২০৪ রান রয়েছে।

মার্টিন ক্রো

৫ জন দুর্ভাগ্যবান খেলোয়াড়, যারা ২৯০ থেকে ২৯৯ এর স্কোরে হয়েছেন আউট 6

নিউজিল্যান্ডের প্রাক্তন তারকা মার্টিন ক্রো এই তালিকার শীর্ষে রয়েছেন। ক্রো ১৯৯১তে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ওয়েলিংটন টেস্টের তৃতীয় ইনিংসে অধিনায়ক হিসেবে মাত্র ৫২৩ বলে ২৯টি বাউন্ডারি এবং ৩টি ছক্কার সাহায্যে ২৯৯ রানের ইনিংস খেলেন। তিনি এই ইনিংস চলাকালীন মাত্র এক রানের জন্য ট্রিপল সেঞ্চুরি মিস করেন। মার্টিন ক্রো নিউজিল্যান্ডের হয়ে ৭৭টি টেস্ট ম্যাচে ৫৪৪৪ রান করেছেন, যার মধ্যে ১৭টি সেঞ্চুরি রয়েছে। এছাড়াও তিনি ১৪৩টি ওয়ানডে ম্যাচে ৩৮.৫৫ গড়ে ৪৭০৪ রান করেছেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *