৫ জন ওপেনিং ব্যাটসম্যান, যারা দুর্দান্ত প্রদর্শন করে আইপিএল ২০২০তে সম্পূর্ণভাবে ছাইতে পারেন

আইপিএল ২০২০তে আমরা বিশ্বভরের বেশকিছু দুর্দান্ত ওপেনিং ব্যাটস্যানকে দেখতে পাব। আজ আমরা এই বিশেষ প্রতিবেদনে আইপিএলের ২০২০র এমন ৫জন ওপেনিং ব্যাটসম্যানের ব্যাপারে জানাতে চলেছি, যারা এই মরশুমে প্রচুর রান করতে পারেন আর পুরো আইপিএল চলাকালীন নিজেদের কর্তৃত্ব বজায় রাখতে পারেন।

অ্যারণ ফিঞ্চ

৫ জন ওপেনিং ব্যাটসম্যান, যারা দুর্দান্ত প্রদর্শন করে আইপিএল ২০২০তে সম্পূর্ণভাবে ছাইতে পারেন 1

অ্যারণ ফিঞ্চকে আইপিএল ২০২০র নিলামে আরসিবির দল কিনেছে। আরসিবির প্রথম ম্যাচে অ্যারণ ফিঞ্চ প্রথম একাদশের অংশ থাকতে পারেন আর দলের ওপেনিংও করতে পারেন। তিনি এই মরশুমে নিজের ব্যাটিংয়ে কামাল করতে পারেন। অ্যারণ ফিঞ্চ নিজের এখনো পর্যন্ত আইপিএল কেরিয়ারে মোট ৭৫টি ম্যাচে ২৬.৩১ গড়ে এবং ১৩০.৬৯ স্ট্রাইকরেটে ১৭৩৭ রান করেছেন। তিনি নিজের আইপিএল কেরিয়ারে ১৩টি হাফসেঞ্চুরি করেছেন। একবার উইকেটে টিকে যাওয়ার পর অ্যারণ ফিঞ্চ হাত খুলে ব্যাটিং করতে পারেন আর বোলারদের উড়িয়ে দেন। তিনি বর্তমানে টি-২০ ক্রিকেটের সবচেয়ে বিস্ফোরক ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একজন। অ্যারণ ফিঞ্চ টি-২০ ক্রিকেটে বেশকিছু বড়ো বড়ো ইনিংস খেলেছেন। তিনি জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে ১৭২ রানের একটি বিস্ফোরক ইনিংস খেলেছিলেন, যা টি-২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ইতিহাসের সর্বশ্রেষ্ঠ ইনিংস।

রোহিত শর্মা

৫ জন ওপেনিং ব্যাটসম্যান, যারা দুর্দান্ত প্রদর্শন করে আইপিএল ২০২০তে সম্পূর্ণভাবে ছাইতে পারেন 2

রোহিত শর্মা আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলকে মোট ৪ বার আইপিএলের খেতাব জিতিয়েছেন। এই খেলোয়াড় যত ভালো অধিনায়ক ততটাই ভালো ব্যাটসম্যানও। রোহিত শর্মা আইপিএলে মোট ১৮৮টি ম্যাচ খেলেছেন। নিজের খেলা ১৮৮টি ম্যাচের ১৮৩টি ইনিংসে তিনি ৩১.৬০ গড়ে মোট ৪৮৯৮ রান করেছেন। এর মধ্যে তাঁর স্ট্রাইকরেট থেকেছে ১৩০.৮২। এই তারকা ব্যাটসম্যান আইপিএলে একটি সেঞ্চুরি আর ৩৬টি হাফসেঞ্চুরি করেছেন আর সেই সঙ্গেই এই টি-২০ লীগে তার ব্যাট থেকে ৪৩১টি বাউন্ডারি আর ১৯৪টি ছক্কা মেরেছেন। তবে আইপিএলে এখনো পর্যন্ত রোহিত শর্মা কোনো মরশুমে ৭০০র বেশি রান করেননি। কিন্তু এই মরশুমে তিনি ৭০০ এরও বেশি রান করতে পারেন।

ডেভিড ওয়ার্নার

৫ জন ওপেনিং ব্যাটসম্যান, যারা দুর্দান্ত প্রদর্শন করে আইপিএল ২০২০তে সম্পূর্ণভাবে ছাইতে পারেন 3

আইপিএলে সবচেয়ে বেশি রান করার তালিকায় ডেভিড ওয়ার্নারের নাম চতুর্থ স্থানে রয়েছে। এই তারকা আইপিএলে মোট ২টি দল, দিল্লি ক্যাপিটালস আর সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে খেলেছেন। তিনি মোট ১২৬টি ম্যাচে ৪৩.১৭র দুর্দান্ত গড়ে আর ১৪২.৩৯ এর দুর্দান্ত স্ট্রাইকরেটে মোট ৪৭০৬ রান করেছেন। এই খেলোয়াড় আইপিএলে ৪টি সেঞ্চুরি আর ৪৪টি হাফসেঞ্চুরিও করেছেন। সেই সঙ্গেই এই ব্যাটসম্যান আইপিএলে ৪৫৮টি বাউন্ডারি আর ১৮১টি ছক্কা মেরেছেন। এই তারকার হাতে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের নেতৃত্বও থাকবে। তিনি প্রত্যেক মরশুমে আইপিএলে ভালো প্রদর্শন করেন। আইপিএল ২০১৯-এও ওয়ার্নারই অরেঞ্জ ক্যাপ জিতেছিলেন। এই মরশুমেও তিনি নিজের এই কৃতিত্বের পুনরাবৃত্তি করতে পারেন।

ক্রিস গেইল

৫ জন ওপেনিং ব্যাটসম্যান, যারা দুর্দান্ত প্রদর্শন করে আইপিএল ২০২০তে সম্পূর্ণভাবে ছাইতে পারেন 4

ক্রিস গেইল আইপিএলের সবচেয়ে বিস্ফোরক ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একজন। তিনি আইপিএলের কেরিয়ারে মোট ৩২৬টি ছক্কা মেরেছেন। তার চেয়ে বেশি ছক্কা আইপিএলের ইতিহাসে এখনো পর্যন্ত কোনো ব্যাটসম্যান মারতে পারেননি। অন্যদিকে এই ব্যাটসম্যান আইপিএলে ৩৬৯টি বাউন্ডারিও মেরেছেন। আইপিএল ২০২০-তেও এই খেলোয়াড় জমিয়ে চার-ছয়ের বন্যা করতে পারেন আর পুরো আইপিএল ২০২০-কে নিজের নামে করতে পারেন। ক্রিস গেইলের আইপিএলে দুর্দান্ত রেকর্ড থেকেছে। ক্রিস গেইল আইপিএলের মোট ১২৫টি ম্যাচ খেলেছেন, যার মধ্যে ক্রিস গেইল ৪১.১৩-র দুর্দান্ত গড়ে এবং ১৫১.০২ স্ট্রাইকরেটে ৪৪৮৪ রান করেছেন। ক্রিস গেইল আইপিএলে ২৮টি হাফসেঞ্চুরি আর ৬টি সেঞ্চুরি করেছেন।

কেএল রাহুল

৫ জন ওপেনিং ব্যাটসম্যান, যারা দুর্দান্ত প্রদর্শন করে আইপিএল ২০২০তে সম্পূর্ণভাবে ছাইতে পারেন 5

কেএল রাহুলের আইপিএলের পরিসংখ্যান অসাধারণ। তিনি নিজের খেলা ৬৭টি আইপিএল ম্যাচে ৪২.০৬ গড়ে ১৯৭৭ রান করেছেন। এর মধ্যে রাহুলের স্ট্রাইকরেট ১৩৮.১৫ থেকেছে। তিনি আইপিএলে ১৬টি হাফসেঞ্চুরি আর ১টি সেঞ্চুরি করেছেন। আইপিএল ২০১৮য় তিনি যেখানে তৃতীয় সবচেয়ে বেশি রান করা ব্যাটসম্যান ছিলেন, অন্যদিকে আইপিএল ২০১৯এ তিনি দ্বিতীয় সবচেয়ে বেশি রান করা ব্যাটসম্যান হয়েছিলেন। আইপিএল যে ধরণের প্রদর্শন রাহুল করেন, তা দেখে বলা যেতে পারে যে আগামী মরশুমও তার নামে হতে পারে। তাকে আটকানো বোলারদের জন্য যথেষ্ট মুশকিল হতে চলেছে।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *