পাঁচজন কিংবদন্তি ক্রিকেটার যারা আন্তর্জাতিক অবসর গ্রহণের পরে ফেয়ারওয়েল ম্যাচ পাননি 1
Indian cricket captain Mahendra Singh Dhoni (R) and teamamte Yuvraj Singh celebrate after beating Sri Lanka during the ICC Cricket World Cup 2011 final match at The Wankhede Stadium in Mumbai on April 2, 2011. India beat Sri Lanka by six wickets. AFP PHOTO/MANAN VATSYAYANA (Photo credit should read MANAN VATSYAYANA/AFP/Getty Images)

 

ক্রিকেটের খেলায় শীর্ষে ওঠা বেশ কঠিন যাত্রা। একজন জাতীয় ক্রিকেটারকে জাতীয় দলে জায়গা পেতে অনেক বছর লড়াই ও অনুশীলন করতে হয়। জাতীয় দলে জায়গা পাওয়ার পরেও একজন খেলোয়াড়কে দলের অংশ হতে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স দেখাতে হয়। খেলোয়াড়রা যখন দীর্ঘ সময়ের জন্য তাদের দেশের হয়ে বড় ভূমিকা পালন করে তখন তাদের কিংবদন্তি ক্রিকেটার হিসাবে গণ্য করা হয়। তবে জাতীয় দলে বিশিষ্ট মর্যাদা পাওয়ার পরেও খেলোয়াড়দের দলে উপস্থিতি ধরে রাখতে তাদের সেরা পারফরম্যান্স দিতে হবে। কিংবদন্তি খেলোয়াড়রা যখন ব্যাট বা বল হাতে পারফর্ম করার জন্য লড়াই করে, তাদের নির্বাচকদের দল থেকে বাদ দিতে কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে হয়। এই কিংবদন্তি খেলোয়াড়দের একটি বিদায় ম্যাচ প্রাপ্য, যদিও অনেক সময় অবসর ঘোষণার পরে তারা এটি পেতে সক্ষম হয় না। এখানে আমরা পাঁচজন কিংবদন্তি খেলোয়াড়কে দেখব যারা আন্তর্জাতিক অবসর নেওয়ার পরে বিদায় ম্যাচ পায়নি।

পাঁচজন কিংবদন্তি ক্রিকেটার যারা আন্তর্জাতিক অবসর গ্রহণের পরে ফেয়ারওয়েল ম্যাচ পাননি 2

যুবরাজ সিংহ: যুবরাজ সিংহ ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার। টি- ২০ বিশ্বকাপ ২০০৭ এবং ওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০১১-তে শিরোপা জয়ের পথে ভারতের হয়ে যুবরাজ সিং একটি বড় ভূমিকা পালন করেছিলেন। উভয় টুর্নামেন্টে সিরিজের মূল খেলোয়াড় ছিলেন এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। যুবরাজ ভারতের হয়ে ৪০ টেস্ট, ৩০৪ টি ওয়ানডে এবং ৫৮ টি টি- ২০ খেলেছেন। ২০১৭ সালে যুবরাজ তার শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খেলেন যা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি- ২০ ম্যাচ ছিল। তিনি ১০ বলে ২৭ রান করেছিলেন। তবে পরের দুই বছর ভারতের হয়ে খেলার সুযোগ পাননি তিনি। জুন ২০১৯ সালে যুবরাজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করেছিলেন।

পাঁচজন কিংবদন্তি ক্রিকেটার যারা আন্তর্জাতিক অবসর গ্রহণের পরে ফেয়ারওয়েল ম্যাচ পাননি 3

ম্যাথু হেডেন: ম্যাথু হেডেন ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার শক্তিশালী ও আক্রমণাত্মক ওপেনিং ব্যাটসম্যান। ২০০৩ এবং ২০০৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে বিশ্বকাপ জয়ের সময় তিনি বড় ভূমিকা পালন করেছিলেন। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে তিনি ১০৩ টেস্ট এবং ১৬১ টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছিলেন হেডেন। টেস্ট কেরিয়ারে তিনি ৮৬২৫ রান এবং ওডিআই কেরিয়ারে ৬১৩৩ রান করেছেন। নিউজিল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ধারাবাহিকভাবে খারাপ পারফরম্যান্সের পরে জানুয়ারী ২০১৯ সালে হেডেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করেছিলেন। অবসর নেওয়ার ঘোষণার আগে ওয়ানডে ও টি- ২০ দল থেকেও বাদ পড়েছিলেন হেডেন।

পাঁচজন কিংবদন্তি ক্রিকেটার যারা আন্তর্জাতিক অবসর গ্রহণের পরে ফেয়ারওয়েল ম্যাচ পাননি 4

কেভিন পিটারসেন: কেভিন পিটারসেন ছিলেন আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান যিনি ইংল্যান্ডের হয়ে খেলেছিলেন। পিটারসেন ইংল্যান্ডের হয়ে ১৩৬ টি ওয়ানডে এবং ১০৪ টি টেস্ট খেলেছিলেন, যেখানে তিনি যথাক্রমে ৪৪৪০ এবং ৮৮১১ রান করেছিলেন। ডানহাতি ব্যাটসম্যান টেস্টে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারীর তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছেন। ২০১০-১১ সালে অস্ট্রেলিয়ায় ইংল্যান্ডের জয়ের সময় এবং ২০১২-১৩ সালে ভারতে পিটারসেন দলের হয়ে বড় ভূমিকা পালন করেছিলেন। ২০১৩-১৪ সালে ইংল্যান্ড অ্যাসেজ সিরিজটি অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৫-০ গোলে হেরেছিল। এই বড় ক্ষতি দলের জন্য বিশাল হতাশায় পরিণত হয়েছিল। দুইটি অর্ধশতক সহ পাঁচ ম্যাচে ২৯৪ রানের সাথে দুর্দান্ত রেকর্ড থাকা সত্ত্বেও হেরে নির্বাচকরা পিটারসেনের তদন্তে এসেছিলেন। পিটারসেনকে সিরিজের পরে কখনও কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ দেওয়া হয়নি এবং শেষ পর্যন্ত তিনি মার্চ ২০১৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন।

পাঁচজন কিংবদন্তি ক্রিকেটার যারা আন্তর্জাতিক অবসর গ্রহণের পরে ফেয়ারওয়েল ম্যাচ পাননি 5

এমএস ধোনি: এমএস ধোনি ভারতীয় দলের অন্যতম সেরা অধিনায়ক। এমএস ধোনি আইসিসি টি- ২০ বিশ্বকাপ ২০০৭, আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০১১ এবং আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ২০১৩ সালে ভারতকে জয়ের পথে নিয়ে গিয়েছিলেন। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে তিনি টেস্ট থেকে অবসর নিয়েছিলেন, তবে ওয়ানডে এবং টি- ২০ তে সক্রিয় ছিলেন। আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০১৯ চলাকালীন সেমিফাইনালে ভারত নিউজিল্যান্ডের কাছে পরাজয়ের সময় তিনি শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খেলেন। এমএস ধোনি আশা করেছিলেন অস্ট্রেলিয়ায় আইসিসি টি- ২০ বিশ্বকাপের অংশ হবেন। তবে কোভিড- ১৯ মহামারীর কারণে টুর্নামেন্ট স্থগিত হয়ে গেছে। একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে এমএস ধোনি ২০২০ সালের আগস্টে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার ঘোষণা করেছিলেন। ধোনি ভারতের হয়ে ৯০ টি টেস্ট, ৩৫০ ওয়ানডে এবং ৯৮ টি টি- ২০ খেলেছিলেন।

পাঁচজন কিংবদন্তি ক্রিকেটার যারা আন্তর্জাতিক অবসর গ্রহণের পরে ফেয়ারওয়েল ম্যাচ পাননি 6

এবি ডি ভিলিয়ার্স: এবি ডি ভিলিয়ার্স ২০১৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার ঘোষণা করেছিলেন। তিনি তার সিদ্ধান্তটি প্রকাশের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন যাতে বলেছিলেন, “আমার পালা শেষ হয়েছে, এবং সত্যি বলতে আমি ক্লান্ত হয়ে পড়েছি।” তাঁর অবসর ঘোষণাটি ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে এক দুঃখের বিষয় ছিল। তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ১১৪ টি টেস্ট, ২২৮ ওয়ানডে এবং ৭৮ টি টি- ২০ খেলেছেন। তিনি টেস্টে ৮৭৬৫ রান, ওয়ানডেতে ৯৫৭৭ রান এবং টি- ২০ কেরিয়ারে ১৬৭২ রান করেছেন। ডিভিলিয়ার্স আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান ছিলেন এবং দ্রুততম ফিফটি (১৭ বল) এবং সেঞ্চুরির (৩১ বলে) রেকর্ডটি করেছিলেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *