আইপিএলের দলে থাকা পাঁচজন খেলোয়াড় যারা প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি 1

 

বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট লিগ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) খেলোয়াড়রা সর্বদা তাদের দক্ষতা বজায় রাখে। সেরা খেলোয়াড়দের সর্বদা এই লিগে একটি সুযোগ দেওয়া হয়। যে কারণে কিছু খেলোয়াড়কে এত বেশি অর্থের বিড করা হয় যে এক একটি রেকর্ড তৈরি হয়। এই মরসুমে যেমব ক্রিস মরিসকে বিড করা হয়েছিল। এটি আইপিএল ইতিহাসের বৃহত্তম বিড ছিল। এই বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল ক্রিকেট লিগে দেশি, বিদেশী, ক্যাপড এবং অ্যানক্যাপড খেলোয়াড়দের একটি সুযোগ দেওয়া হয়েছে। তবে এমন অনেকে রয়েছেন যারা দলের একটি ম্যাচেও অংশ নেননি। আজ আমরা এমন খেলোয়াড়দের নিয়ে কথা বলব যারা গোটা মরসুমটি বেঞ্চে কাটিয়েছেন।

আইপিএলের দলে থাকা পাঁচজন খেলোয়াড় যারা প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি 2
নিকোলাস পুরান: আইপিএলের সর্বাধিক সফল দল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স প্রতিবার তাদের খেলোয়াড়ের প্রতি পূর্ণ আত্মবিশ্বাস রেখেছে। খেলোয়াড়দের শক্তিতে মুম্বই পাঁচবার আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। এই দলের উদ্দেশ্য হল সেই খেলোয়াড়দের আরও সামনে আনা। নিকোলাস পুরাণ এই দলের অংশ ছিল। ২০১৯ সালে পাঞ্জাব কিংসের অংশ নিকোলাস পুরাণকে ২০১৭ সালে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স দ্বারা কিনে প্রথমে সেই দলের একটি অংশ ছিল। ২০১৭ সালে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সও তাদের তৃতীয় শিরোপা জিতেছে। তবে সেই বছর নিকোলাসকে একটি ম্যাচে খেলার সুযোগ দেওয়া হয়নি। পরে এই প্লেয়ারকেও ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল। আজ পুরান টি- ২০ ক্রিকেটের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়।

আইপিএলের দলে থাকা পাঁচজন খেলোয়াড় যারা প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি 3
স্টিভ স্মিথ: বর্তমানে কিংবদন্তি খেলোয়াড়দের একজন স্টিভ স্মিথ আইপিএল দল দিল্লির রাজধানী র অংশ হলেও দশ বছর আগে তিনি বিরাট কোহলির সাথে ড্রেসিংরুম শেয়ার করতেন। ২০১০ সালের কথা বলছি। স্টিভ স্মিথ যখন বোলিং অলরাউন্ডার হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছিলেন। কোহলি ও স্মিথ দুজনই তখন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের অংশ ছিলেন। জ্যাক ক্যালিস এবং ডেল স্টেইনের মতো বিদেশী খেলোয়াড়রা ২০১০ সালের মরসুমে ইতিমধ্যে ব্যাঙ্গালোরের অংশ ছিলেন। সেই কারণেই স্মিথ পুরো মরসুমে একটিও ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি।

আইপিএলের দলে থাকা পাঁচজন খেলোয়াড় যারা প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি 4
জাস্টিন ল্যাঙ্গার: প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড় জাস্টিন ল্যাঙ্গার টেস্ট ম্যাচগুলির বিশেষজ্ঞ হিসাবে বিবেচিত হত। কারণ তাকে বেশিরভাগ টেস্ট ম্যাচে ব্যাট করতে দেখা গেছে। বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ার কোচ হিসাবে দায়িত্বপ্রাপ্ত জাস্টিন ল্যাঙ্গার ১০০ টিরও বেশি টেস্ট ম্যাচে ৬৯৬৯ রান করেছেন। এই প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড়কে আইপিএল ২০০৮ এর প্রথম মরসুমে রাজস্থান রয়্যালস কিনেছিল। তবে শেন ওয়াটসন ও কামরান আকমলের মতো ব্যাটসম্যানরা দলে ছিল। যার কারণে তিনি একটিও ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি।

আইপিএলের দলে থাকা পাঁচজন খেলোয়াড় যারা প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি 5

ব্রেন্ডন টেলর: ৪৫ টি টি- ২০ ম্যাচে ছয়টি হাফ-সেঞ্চুরির সাহায্যে ৯৩৪ রান করা ব্রেন্ডন টেলরকে জিম্বাবোয়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান হিসাবে বিবেচনা করা হয়। উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান এই খেলোয়াড় জাতীয় দলের হয়ে অনেকবার ম্যাচ জয়ের ইনিংস খেলেছেন। ২০১৪ সালে এই খেলোয়াড়কে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি সানরাইজার্স হায়দরাবাদ দলে কিনেছিল। তবে দলে অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি, ডেভিড ওয়ার্নার এবং অ্যারন ফিঞ্চের মতো বিদেশী খেলোয়াড় ছিল। যে কারণে টেলর একটিও ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি।

আইপিএলের দলে থাকা পাঁচজন খেলোয়াড় যারা প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি 6

জস হ্যাজলউড: জস হ্যাজলউড তার সুইং এবং সঠিক লাইন-লেংথ বোলিংয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়া সহ বিশ্বের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হিসাবে পরিচিত। যাইহোক, তিনি বেশিরভাগই কেবল টেস্ট ম্যাচ খেলেন। তবে, দলের হয়ে ৯ টি টি- ২০ ম্যাচে জোশ ৯ উইকেটও নিয়েছেন। তার বোলিং শৈলীর কারণে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স তাকে আইপিএল ২০১৪ সালে তাকে বিড করেছিল। তবে, সেই সময় দলে লাসিথ মালিঙ্গা এবং মার্চেন্ট ডি ল্যাঞ্জের মতো বিদেশী পেস বোলার থাকার কারণে তিনি মাঠে নামার সুযোগ পাননি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *