৫ জন ক্রিকেটার যারা ২ দেশের হয়ে খেলেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট 1

প্রত্যেক ক্রিকেটারের নিজের দেশের হয়ে খেলার স্বপ্ন থাকে। যদিও কিছু হাতে গোনা প্রতিভাবান ক্রিকেটারই নিজের এই স্বপ্ন সত্যি করতে পারেন। তবুও ক্রিকেটের ইতিহাসে এমন কিছু খেলোয়াড়ও থেকেছেন যার আন্তর্জাতিক স্তরে একটি নয় বরং ২টি আলাদা আলাদা দেশের হয়ে খেলার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। আজ আমরা আমাদের এই বিশেষ প্রতিবেদনে সেই ৫জন খেলোয়াড়ের নামই জানাব, যারা একটি নয় বরং ২টি দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন।

ইয়োন মর্গ্যান

৫ জন ক্রিকেটার যারা ২ দেশের হয়ে খেলেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট 2

ডাবলিনে জন্মানো ইয়োন মর্গ্যানের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কেরিয়ারের শুরু নিজের দেশ আয়ারল্যান্ডের হয়ে হয়েছিল। মর্গ্যান ২০০৬ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত আয়ারল্যান্ড দলের হয়ে ২৩টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেন আর ২০০৭ বিশ্বকাপে আয়ারল্যান্ড দলের অংশ ছিলেন। নিজের ক্রিকেট কেরিয়ারে বড়ো সুযোগের খোঁজে ইয়োন মর্গ্যান ২০০৯ এ ইংল্যান্ডে যান। মর্গ্যান ইংল্যান্ডের হয়ে ১৬টি টেস্ট ম্যাচ আর ২৩৬টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন। ইংল্যান্ড ২০১৯এ মর্গ্যানের নেতৃত্বেই ওয়ানডে বিশ্বকাপ জেতে। তিনি ৮৯টি টি-২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচও খেলেছেন। ২ দেশের হয়ে খেলা ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে সফল খেলোয়াড় ইয়োন মর্গ্যানই থেকেছেন।

বায়ড র‍্যানকিন

৫ জন ক্রিকেটার যারা ২ দেশের হয়ে খেলেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট 3

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বায়ড র‍্যানকিন একমাত্র এমন খেলোয়াড়, যিনি ক্রিকেটের তিন ফর্ম্যাটেই দুই দেশের হয়ে খেলেছেন। আয়ারল্যান্ডের হয়ে তিনি ২টি টেস্ট, ৬৮টি ওয়ানডে আর ৪৮টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন। অন্যদিকে ইংল্যান্ডের হয়েও তিনি ১টি টেস্ট, ৭টি ওয়নাডে আর ২টি টি-২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন। বায়ড র‍্যানকিন ইংল্যান্ডের হয়ে ২টি টি-২০তে যেখানে একটি উইকেট হাসিল করেছেন, অন্যদিকে ৭টি ওয়ানডে ম্যাচে তিনি ১০ উইকেট নিয়েছেন। ইংল্যান্ডের হয়ে তিনি নিজের খেলা একটি টেস্ট ম্যাচে ১ উইকেট নিয়েছিলেন। আয়ারল্যান্ডের হয়ে নিজের খেলা ২টি টেস্ট ম্যাচে তিনি ৭টি উইকেট হাসিল করেছেন। তিনি আয়ারল্যান্ডের হয়ে ৬৮টি ওয়ানডেতে ৯৬টি উইকেট নিয়েছেন। অন্যদিকে আয়ারল্যাণ্ডের হয়ে নিজের খেলা ৪৮টি টি-২০ ম্যাচে তিনি ৫৪টি উইকেট নিয়েছেন।

লিউক রোচি

৫ জন ক্রিকেটার যারা ২ দেশের হয়ে খেলেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট 4

২০০৮এ অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ওয়ানডে ডেবিউ করা লিউক রোচি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মাত্র ২টিই ওয়ানডে খেলার সুযোগ পান। এরপর তিনি নিউজিল্যান্ডে চলে যান যেখানে তিনি ২০১৩য় নিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচ খেলেন। কিউয়ি দলের হয়ে তিনি ৮১টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেন। নিজের খেলা ৪টি টেস্ট ম্যাচে তিনি ৩৯.৮৭ গড়ে ৩১৯ রান করেন। অন্যদিকে তিনি নিজের খেলা ৮৫টি ওয়ানডে ম্যাচে ২৩.৬৭ গড়ে ১৩৯৭ রান করেছেন। অন্যদিকে ৩৩টি টি-২০ ম্যাচে তিনি ১৭.৯৫ গড়ে ৩৫৯ রান করেছেন।

ডর্ক ন্যানেস

৫ জন ক্রিকেটার যারা ২ দেশের হয়ে খেলেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট 5

২০০৯ টি-২০ বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডের হয়ে ডেবিউ করা ডর্ক ন্যানেস ২০১০ টি-২০ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলার সুযোগ পান। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলে তিনি ২০১০ টি-২০ বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি উইকেট নেওয়া বোলারও ছিলেন। তিনি ওই টুর্নামেন্টে ১৪টি উইকেট নিয়েছিলেন, কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার দল ফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে যায়।

রুডোলফ ভ্যান দার মর্ভে

৫ জন ক্রিকেটার যারা ২ দেশের হয়ে খেলেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট 6

অলরাউন্ডার রুডোলফ ভ্যান দার মার্ভের জন্ম জোহানেসবার্গে হয়েছিল আর তিনি নিজের বেশিরভাগ ঘরোয়া ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলেছেন। ২০০৯এ ভ্যান দার মর্ভে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-২০তে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ডেবিউ করেছিলেন, আর কিছু সময় পর তিনি ওয়ানডে দলেরও সদস্য হন। তিনি ১৩টি ওয়ানডে আর ১৩টিই টি-২০ ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকা দলের হয়ে খেলেছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে তিনি নিজের শেষ ম্যাচের পাঁচ বছর পর ২০১৫য় নেদারল্যান্ডে চলে যান। তিনি এখন নেদারল্যান্ড দলের হয়েই খেলছেন আর বর্তমান সময়ে এই দলের তিনি প্রধান অলরাউন্ডারও।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *