৩টি রেকর্ড যা ঘরোয়া ক্রিকেটে ভারতীয় ওপেনিং ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মার নামে নথিভুক্ত রয়েছে

ভারতীয় দলের ওপেনিং ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা আজ ক্রিকেট দুনিয়ায় নিজের আক্রামনাত্মক ব্যাটিংয়ের জন্য পরিচিত। এই খেলোয়াড় আজকের সময়ে তিন ফর্ম্যাটেই খেলে বেশকিছু এমন রেকর্ড গড়েছেন যা ভাঙা যে কোনো ব্যাটসম্যানের জন্যই ভীষণই মুশকিল। রোহিত শর্মা ২০১৩ আগে নিয়মিত ভারতীয় দলে জায়গা পেতেন না। যে কারণে তিনি অনেকবেশি ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতেন। সেই সময় ঘরোয়া ক্রিকেটে এই খেলোয়াড় বেশকিছু বড়ো বড়ো রেকর্ড গড়েছিলেন, যে কারণে ঘরোয়া ক্রিকেটেও তার নামে প্রচুর রেকর্ড নথিভুক্ত রয়েছে। আজ আমরা হিটম্যান রোহিত শর্মার নামে নথিভুক্ত ঘরোয়া ক্রিকেটের সেই ৩টি বড়ো রেকর্ডের ব্যাপারে জানাব, যা শুনে আপনারা চমকে যেতে পারেন। এমন একটা রেকর্ড তার নামে রয়েছে যা এখন অন্য যে কোনো ব্যাটসম্যান যতই মেহনত করুন কিন্তু তার ভাঙতে সফল হতে পারবেন না।

৩. টি-২০ ফর্ম্যাটে সেঞ্চুরি করা প্রথম ভারতীয় খেলোয়াড়

৩টি রেকর্ড যা ঘরোয়া ক্রিকেটে ভারতীয় ওপেনিং ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মার নামে নথিভুক্ত রয়েছে 1

যখনই টি-২০ ফর্ম্যাটে সেঞ্চুরি করা প্রথম ভারতীয় খেলোয়াড়ের কথা ওঠে তো মনীষ পান্ডে বা সুরেশ রায়নার নাম মনে আসে। কিন্তু এমনটা নয়। তার আগেই ঘরোয়া ক্রিকেটে রোহিত শর্মা এই ছোটো ফর্ম্যাটে সেঞ্চুরি করার কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন। তরুণ রোহিত শর্মা ২০০৬-০৭এ মুম্বাইয়ের হয়ে খেলে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতে সেঞ্চুরি করেছিলেন। এই কৃতিত্ব তিনি নিজের দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচেই করেন। যখন মুম্বাইয়ের দল গুজরাটের বিরুদ্ধে ১৪২ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নামে সেই সময় মুম্বাইয়ের অন্য ব্যাটসম্যানরা রানের জন্য সংঘর্ষ করছিলেন। তারপর রোহিত শর্মা প্রথমে ২৭ বলে হাফসেঞ্চুরি করেন, আর তারপরের ১৮ বলে তিনি তিন অঙ্কের সংখ্যা ছুঁয়ে ফেলেন। ওই ম্যাচে রোহিত শর্মা মুম্বাইয়ের হয়ে মাত্র ৪৫ বলে অপরাজিত ১০১ রানের ইনিংস খেলেছিলেন। এই রেকর্ড এখন আর কোনো ব্যাটসম্যানই ভাঙতে পারবেন না।

২. রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে দুটি সেঞ্চুরি

৩টি রেকর্ড যা ঘরোয়া ক্রিকেটে ভারতীয় ওপেনিং ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মার নামে নথিভুক্ত রয়েছে 2

একটি ফার্স্ট ক্লাস ম্যাচের দুই ইনিংসে সেঞ্চুরি করাই ভীষণই মুশকিল কিন্তু যদি রঞ্জি ট্রফির ফাইনালের মতো চাপওয়ালা ম্যাচে এক তরুণ খেলোয়াড় এই কৃতিত্ব দেখান তো ভীষণই প্রশংসিত হন। এমনটাই রোহিত শর্মা করে দেখিয়েছিলেন। ২০০৮-০৯ মশুমে যখন মুম্বাইয়ের দল খেলছিল। উত্তরপ্রদেশের বিরুদ্ধে ফাইনাল ম্যাচে এক সময় মুম্বাইয়ের দল ৫৫ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল। তারপর রোহিত শর্মা ১৪১ রান করে দলের স্কোর ৪০৪ রান পর্যন্ত পৌঁছন। অন্যদিকে দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি দ্রুতগতিতে ১০৮ রান করে বিপক্ষ দলের ৫৩৪ রানের লক্ষ্যকে জিতে নেন। হিটম্যান এমনটা করা কেবল ষষ্ঠ খেলোয়াড় হন। অন্যদিকে তিনি ২৫ বছর পর এই কৃতিত্ব করে দেখান। তার আগেই মুম্বাইয়েরই শচীন তেন্ডুলকর ১৯৯৪-৯৫তে এমনই কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন, যা রোহিত শর্মা ২৫ বছর পর পুনরাবৃত্তি করেন।

১. তিন ফর্ম্যাটে সেঞ্চুরি করা সবচেয়ে তরুণ খেলোয়াড়

৩টি রেকর্ড যা ঘরোয়া ক্রিকেটে ভারতীয় ওপেনিং ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মার নামে নথিভুক্ত রয়েছে 3

এই খেলোয়াড় এই রেকর্ডও নিজের নামে করেন। যখন ২০০৬-০৭ এর ঘরোয়া মরশুম শেষ হয় তো রোহিত শর্মা মাত্র ২০ বছরেরও কম সময়ে এই পরিসংখ্যান পার করেন। সেই সময় তিনি নিজের নামে তিন ফর্ম্যাটেই সেঞ্চুরি নথিভুক্ত করেন। যা ভীষণই দুর্দান্ত একটি রেকর্ড বলা যেতে পারে। মুম্বাইয়ের হয়ে তিনি ওই বছর সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফি খেলে টি-২০ ফর্ম্যাটে ১০১ রান করেন। অন্যদিকে ২০০৬-০৭ এই গুজরাটের বিরুদ্ধে তিনি ম্যাচের প্রথম দিনই ২০৫ রান করেছিলেন, অন্যদিকে দেওধর ট্রফিতে ওয়েস্টজোনের হয়ে কেহ্লে তিনি ২০০৫-০৬তেই ১৪২ রানের ইনিংস খেলেন। সম্প্রতিই কর্ণাটকের দেবদত্ত পডিক্কল তার এই রেকর্ড ভাঙার মুখে ছিলেন কিন্তু তিনি তা করতে পারেননি। তিনি টি-২০ আর একদিনের ফর্ম্যাটে তো সেঞ্চুরি সহজেই করেন, কিন্তু প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে খেলে তিনি ৯৯ রানে আউট হয়ে এই রেকর্ড ভাঙা থেকে ১ রান দূরে থেকে যান।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *