কানপুর ম্য়াচের প্রথম একাদশ, রিজার্ভ বেঞ্চই ভবিতব্য় রাহানের 1

ভারত বনাম নিউজিল্য়ান্ড সিরিজ এখন সুতোর ওপর দাঁড়িয়ে। তিন ম্য়াচের সিরিজ হওয়ায় এমনিতেই সিরিজ ছোটো। রবিবার ঊনত্রিশ অক্টোবর যে দল জিতবে, সেই দলই শেষ হাসি হাসবে। টি-২০ সিরিজের আগে আত্মবিশ্বাসের বাড়তি অক্সিজেন যোগাবে ড্রেসিং রুমে। পুনেতে দ্বিতীয় ম্য়াচে ছ’উকেটে জিতে প্রথম ম্য়াচে ছ’উকেটে ম্য়াচ হারার মধুর বদলা নিয়েছে বিরাটের ভারত। গত বছর কিউয়িদের কাপ নিয়ে যেতে দেয়নি ভারত। এবারও সেই লক্ষ্য়। চ্য়ালেঞ্জটা এখন মান-সম্মানেরও। কারণ, ব়্য়াঙ্কিংয়ে ভারত এখন এক নম্বর দল ওয়ান-ডে ক্রিকেটে। কানপুর ম্য়াচ ঘিরে উত্তেজনার পারদ তাই চড়চড় করে বাড়ছে। বাতাসে এখন শীতের আভাস চলে আসায় ক্রিকেট পাগল অনুরাগীরা উষ্ণতাটা যেন আরও বেশি করে অনুভব করছেন।

কানপুর ম্য়াচেও ভারত পরীক্ষা-নীরিক্ষার বিষয়টি অপরিবর্তিত রাখলেও সিরিজ জয়ের গুরুত্ব সবার আগে। আসুন দেখে নেওয়া যাক নিউজিল্য়ান্ডের বিরুদ্ধে তৃতীয় ম্য়াচে ভারতের সম্ভাব্য় একাদশ।

ওপেনারকানপুর ম্য়াচের প্রথম একাদশ, রিজার্ভ বেঞ্চই ভবিতব্য় রাহানের 2

দলের সহ-অধিনায়ক হওয়ায় রোহিত শর্মাকে এখন রিজার্ভ বেঞ্চে বসানো মুশকিল। তাছাড়া অধিনায়ক বিরাট কোহলির পর দলের দ্বিতীয় সেরা ব্য়াটসম্য়ান হওয়ার পাশাপাশি সীমিত ওভারের ক্রিকেটে এখন বিশ্বের অন্য়তম সেরা ওপেনার হিটম্য়ান। কিউয়ি বোলার ট্রেন্ট বোল্টের সামনে এখনও পর্যন্ত নড়বড়ে লেগেছে রোহিতকে। গত দুই ম্য়াচে সংগ্রহ মাত্র সাতাশ রান। কিন্তু, ভবিষ্য়ৎ ভারত অধিনায়কের মধ্য়ে যে প্রতিভা রয়েছে, তাতে হিটম্য়ানকে কখনই খরচের খাতায় ফেলা যায় না। নিজের দিনে রোহিত একাই একশো।

রবিবারে সিরিজ নির্ণায়ক ম্য়াচে রোহিতের সঙ্গী শিখর ধওয়নই থাকছেন। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ভালো খেলে চলতি নিউজিল্য়ান্ড সিরিজের স্কোয়াডে জায়গা করে নিলেও অজিঙ্কা রাহানের প্রথম একাদশে জায়গা হয়নি। তৃতীয় ম্য়াচেও রিজার্ভ বেঞ্চ ভবিতব্য় রাহানের। কারণ, প্রথম ম্য়াচ ব্য়র্থ হলেও ধওয়ন দ্বিতীয় ম্য়াচে দলের জয়ে বড় ভূমিকা নিয়েছেন।

মিডল অর্ডার

কানপুর ম্য়াচের প্রথম একাদশ, রিজার্ভ বেঞ্চই ভবিতব্য় রাহানের 3
India’s Amit Mishra, third right, celebrates with teammates after taking the wicket of New Zealand’s James Neesham, left, during their fifth and last one day international cricket match in Visakhapatnam, India, Saturday, Oct. 29, 2016. India won the series 3-2. (AP Photo/Aijaz Rahi)

ভারতীয় দলের মিডল অর্ডার শুরু হয় দলের সেরা ব্য়াটসম্য়ান বিরাট কোহলিকে দিয়ে। ভারত অধিনায়কের ফর্ম নিয়ে চিন্তার কোনও বিষয় নেই। তবে, নিজের উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসা নিয়ে তাঁকে সতর্ক থাকতে হবে। ওয়াংখেড়েতে শতরান করলেও পুনে ম্য়াচে কলিন ডি গ্র্য়ান্ডহোমের মতো পার্ট-টাইম বোলারকে উইকেট দিয়ে এসেছেন বিরাট।

দিনেশ কার্তিককে সুযোগ দেওয়ার পর তাঁর খেলা দেখে মনে হয়েছে চার নম্বর পজিশনে ব্য়াটিং দুর্বলতা অবশেষে দূর হয়েছে। কার্তিক অভিজ্ঞ ব্য়াটসম্য়ান। কিন্তু, প্রশ্ন হলো নির্বাচকরা এই সিরিজের পর আবার তাঁকে কবে সুযোগ দেন।কানপুর ম্য়াচের প্রথম একাদশ, রিজার্ভ বেঞ্চই ভবিতব্য় রাহানের 4

কেদার যাদব একাটানা ব্য়র্থ। তাঁকে বাদ দিয়ে মণীশ পান্ডেকে প্রথম একাদশে আনা হচ্ছে রবিবার। তাঁকে যখনই সুযোগ দেওয়া হয় নির্বাচকদের প্রভাবিত করতে কোনও অবকাশই ছাড়েন না। তবে, রবিবার সুযোগ কাজে না লাগাতে পারলে শ্রীলঙ্কা সিরিজে প্রথম একাদশে ফের জায়গা জুটবে কি না, সেই নিশ্চয়তা কেউ দিতে পারবে না। কারণ, দলে মণীশের কোনও গড ফাদার নেই।

শ্রীলঙ্কা ও অস্ট্রেলিয়া সিরিজে ধোনি ক্য়ারিশমা ক্লিক করলেও আবার ধোনির ব্য়াট নিস্তব্ধ হয়ে পড়েছে। কিন্তু, উইকেটকিপার ধোনি এখনও চোস্ত। ফলে তাঁকে দলে রাখতেই হবে। তার ওপর অধিনায়ক বিরাটের অভিভাবক হিসেবে মাহিকে দরকার ২০১৯ বিশ্বকাপে। ম্য়াচ ফিনিশার হিসেবে ধোনি আর আগের মতো বিধ্বংসী ব্য়াট করতে পারছেন না। আবার আগে পাঠিয়ে ধোনির মতো অভিজ্ঞ ব্য়াটসম্য়ানের উইকেট হারানো মানে চাপে পড়ে যাওয়া। ফলে, রবিবার ধোনিকে ছয় নম্বরে খেলাতে চাইছে ভারতীয় টিম ম্য়ানেজমেন্ট। তাতে যেমন চটপট চারটি উইকেট চলে গেলে লোয়ার মিডল অর্ডারকে গাইড করতে পারবেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক, তেমনই একটা দিক ধরে রেখে লোয়ার অর্ডারদের নিয়ে ম্য়াচ বের করে আনতে পারবেন।

অলরাউন্ডারকানপুর ম্য়াচের প্রথম একাদশ, রিজার্ভ বেঞ্চই ভবিতব্য় রাহানের 5

সাত নম্বর পজিশনটাই হার্দিক পান্ডিয়ার ব্য়াটিং স্টাইলের সঙ্গে যুৎসই। ওপরের দিকে রান পেলেও, বিধ্বংসী হার্দিককে সাত নম্বরে দেখা যায়। চলতি সিরিজে এখনও পর্যন্ত ব্য়াট ও বলহাতে ম্য়াড়ম্য়াড়ে এই প্রতিভাবান পেস বোলারটি। ফলে, তার দিকে বিশেষ নজর থাকবে সবার।

স্পিনার

কানপুর ম্য়াচের প্রথম একাদশ, রিজার্ভ বেঞ্চই ভবিতব্য় রাহানের 6

কুলদীপ যাদবের পরিবর্তে অক্ষর প্য়াটেলকে খেলিয়ে দ্বিতীয় ওয়ান-ডে’তে চমকে দিয়েছিলেন বিরাট। পুনেতে খুব একটা সফল না হলেও, ফ্লপ করেছেন বলা যাবে না। তার ওপরে অক্ষর প্রথম একাদশে থাকার অর্থ ব্য়াটিং অর্ডারে আট নম্বর পর্যন্ত ব্য়াটিংয়ে গভীরতা আসা।

যুজবেন্দ্র চহলই তৃতীয় ম্য়াচে স্পিনার হিসেবে ফার্স্ট চয়েস। ওয়াংখেড়েতে সুবিধা করতে না পারার পরেও চ্য়াম্পিয়ন বোলারের মতো কিভাবে পরের ম্য়াচ কামব্য়াক করতে হয়, তা পুনে ম্য়াচে দেখিয়ে দিয়েছেন চহল। তবে, কামব্য়াক করলেই হবে না, বিশ্বকাপ খেলতে হলে তাঁকে ধারাবাহিক হতে হবে।

পেস বোলারকানপুর ম্য়াচের প্রথম একাদশ, রিজার্ভ বেঞ্চই ভবিতব্য় রাহানের 7

হার্দিকের কারণে ভারতকে এখন আর একজন বেশি পেস বোলার কম খেলানোর বিলাসিতা দেখাতে হয় না। ফলে, শার্দুল ঠাকুরের তৃতীয় ম্য়াচে খেলার কোনও সম্ভাবনা নেই। ভুবনেশ্বর কুমার  ও জসপ্রীত বুমরাহ – দুই স্পেশালিস্ট পেস বোলার হিসবে প্রথম  একাদশে মাঠে নামছেন কানপুরে। দুই বোলারই নতুন বলের পাশাপাশি ডেথ ওভার স্পেশালিস্ট।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *