২। আইপিএল ২০১৮: ওয়ার্নারকে মিস করছি: কেন উইলিয়ামসন

কেন উইলিয়ামসের নেতৃত্বাধীন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ রাজস্থানের সঙ্গে তাদের প্রথম ম্যাচে একপেশে লড়াইতে জয় হাসিল করে। ওয়ার্নারের অনুপস্থিতিতে নেতৃত্ব পাওয়া কেন উইলিয়ামসের ছেলেরা এতটাই অ্যাগ্রেসিভ ছিল যে রাজস্থানকে ম্যাচ কোনওভাবেই দাঁড়াতে দেয় নি। অজিঙ্ক রাহানের নেতৃত্বাধীন রাজস্থানকে তারা সব বিভাগেই মাত দিয়েছেন। টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন হায়দ্রাবাদ অধিনায়ক উইলিয়ামসন। প্রথম থেকেই তাদের বোলারদের সামলাতে ব্যর্থ হন অজিঙ্ক রাহানেরা। একমাত্র সঞ্জু স্যামসন ছাড়া আর কোনও ব্যাটসম্যানই হায়দ্রাবাদের বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতে পারে নি, ফলে নিয়মিত অন্তরালে উইকেট পড়তে থাকে তাদের। ফিল্ডিংয়েও কেন উইলিয়ামসনের একটি দুরন্ত থ্রো উইকেট ভেঙে দেয় রাজস্থান ব্যাটসম্যান ডি’আর্সি শর্টের যা আরও চাগিয়ে দেয় অরেঞ্জ বাহিনীকে। সঙ্গু স্যামসনের সঙ্গী হিসেবে রাহানে ভালো সহযোগ দেওয়ার চেষ্টা করলেও বড় রান করতে পারেন নি। শেষ পর্যন্ত তাকে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান সিদ্ধার্থ কৌল।

গোটা দুয়েক বাউন্ডারি মেরে হায়দ্রাবাদ বোলিংকে আক্রমণ করার চেষ্টা করেন রাহুল ত্রিপাঠি কিন্তু ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার আগেই তাকে ফেরত পাঠিয়ে দেন সাকিব-আল- হাসান। অন্যদিকে হাফ সেঞ্চুরির দোড় গোড়ায় এসে আউট হন স্যামসনও। অন্যদিকে হায়দ্রাবাদের ইনিংসকে আটকাতে রাজস্থানের কিছু দ্রুত উইকেটের দরকার ছিল। হায়দ্রাবাদের ওপেনার ঋদ্ধিমান সাহাকে দ্রুত ফিরিয়ে দিয়ে জয়দেব উনাকট হায়দ্রাবাদকে ধাক্কা দেওয়ার চেষ্টা করলেও তা খুশি বেশিক্ষণ স্থায়ী হয় নি রাজস্থানের জন্য। শিখর ধবনের সঙ্গে জুটি বেঁধে অধিনায়ক উইলিয়ামসন আক্রামণাত্ম ভঙ্গীতে রান তাড়া করতে শুরু করেন। খুব সহজের রাজস্থানের রানকে টপকে যান তারা। ২৫ বল বাকি থাকতেই জিত হাসিল করেন তারা। শিখর ধবনও এদিন ছিলেন বিধ্বংসী মেজাজে। আইপিএলে এদিন তিনি তার ২৯ তম হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুস্থানে এসে হায়দ্রাবাদের অধিনায়ক উইলিয়ামসন বলেন, “ডেভি (ওয়ার্নার)কে আমরা মিস করছি তাতে কোনও সন্দেহই নেই। বছরের পর বছর ধরেই ও একজন গ্রেট প্লেয়ার। দলের প্রত্যেককেই এই ম্যাচে এগিয়ে আসতে দেখাটা দুর্দান্ত। মাঠে ছেলেরা দারুণ পারফর্ম করেছে, এবং প্রত্যেকেই নিজে নিজের ভূমিকা পালন করেছে।

ব্যাট এবং বল দু’ক্ষেত্রেই ছেলেদের এগিয়ে আসতে দেখাটা সত্যিই খুব খুশির। আমরা সঠিক মূহুর্তেই উইকেট পেয়েছি। সেই সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হল আমাদের ফিল্ডিংও ছিল বেশ ভালো। কিছু ভালো ক্যাচও নিয়েছি আমরা। এটা সম্পূর্ণ একটা দলগত প্রচেষ্টা। যদিও ছোটো ছোটো কিছু জায়গায় এখনও আমাদের অনেক উন্নতি করতে হবে। (প্রচুর শর্ট বল করার প্রসঙ্গে) কোনও পরিকল্পিত ব্যাপার ছিল না এটা। পিচটাই ওইরকম ছিল, যেখানে শর্ট বল দারুণভাবে আসছিল। এই পিচে স্পিনার এবং পেসার দুজনেরই সহযোগী ছিল, আবার ব্যাটসম্যানরাও রান করতে পেরেছে। এটা একটা ঠিকঠাক পিচ ছিল। (ধবনের ইনিংসের প্রসঙ্গে) ওকে হিট করতে দেখার জন্য সবচেয়ে সেরা আসনটা আমার ছিল, দারুণ ব্যাট করছে ও। প্রথম বল থেকেই ওর দারুণ অভিপ্রায় ছিল। প্রথম থেকেও সাহাও ওর অভিপ্রায়ের প্রমান দিয়েছিল। পরের ম্যাচেও এটা ধরে রাখার আমরা চেষ্টা করব আশা করছি”। অন্যদিকে রাজস্থান অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে জানান, “ ১২৬ রানটা ভীষণই কম একটা টার্গেট। আমাদের ব্যাটিংয়ের সময় ভেবেছিল ১৬০ রান একটা ভালো স্কোর হবে। বোলিং উইনিট হিসেবে আমরাও ভালো বল করেছি, কিন্ত বল হাতে হায়দ্রাবাদ আরও ভালো ছিল। সঞ্জু (স্যামসন) এবং আমি দুজনে মিলে আমাদের খেলাটা খেলার চেষ্টা করেছিলাম, কিন্তু মাঝে প্রচুর উইকেট পড়ে যায় আমাদের, এবং সেখানেই আমরা ম্যাচটা হেরে যাই। আমার মনে হয় আমাদের মূল্য চোকাতে হল বড় রানের পার্টনারশিপের অভাবে। একটা ভালো পার্টনারশিপই আমাদের ডিফেন্ড করার মত স্কোর দিতে পারত। আমার ক্যাচ ফেলে দেওয়াতেও আমি যথেষ্ট হতাশ। প্র্যাকটিসের সময় আমি ফিল্ডিং নিয়ে যথেষ্ট খেটেছি। কিন্তু এটা খেলারই একটা অঙ্গ। এক এক দিন আপনার খারাপ যায়। এটা আমাদের প্রথম ম্যাচ তাই আমাদের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে হবে”। এই ম্যাচের ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হন শিখর ধবন। পুরস্কার নিতে এসে তিনি বলেন, “ আমি বড় ইনিংস খেলা উপভোগ করি। এটা দলের পাশাপাশি আমাকেও সুবিধা করে দেয়। আমার ফর্মকে বেশি দিন ধরে রাখার চেষ্টা করি, আমার পক্ষে যতটা সম্ভব আমি বড় রান করার চেষ্টা করি। দক্ষিন আফ্রিকা এবং শ্রীলঙ্কা সিরিজের থেকেও অনেক বেশি আক্রামণাত্মকভাবে খেলেছি আমি, এবং সেটা শুধু এই আইপিএলেই নয়। এটা নিয়ে আমি খুব সন্তুষ্ট এবং সেই ফর্মূলাকেই আমি ধরে রাখছি। আমাদের দলের প্রধান শক্তি হল আমরা খুব ব্যালান্সড একটা দল আর সেটাই আমাদের প্রধান চাবিকাঠি। এই টুর্নামেন্ট আমরা দারুণভাবে শুরু করলাম, আশা করছি এই পারফর্মেন্স আমাদের সাহায্য করে বাকি টুর্নামেন্টেও আমাদের এগিয়ে নিয়ে যাবে”।

  • SHARE
    সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। ব্রায়ান লারা সচিনের ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

    আরও পড়ুন

    ভিডিয়ো: জো রুটের এই লজ্জাজনক আচরণের জবাব দেবেন কি বিরাট কোহলি ?

    ভিডিয়ো: জো রুটের এই লজ্জাজনক আচরণের জবাব দেবেন কি বিরাট কোহলি ?
    ভারতের বিরুদ্ধে তিন ওয়ানডে ম্যাচের সিরিজে জো রুট দুর্দান্ত ব্যাট করে ভারতের হাত থেকে সিরিজ ছিনিয়ে নিয়েছিলেন।...

    ভারতীয় ওয়ানডে দলে দ্রুত শামিল হতে পারেন এই তিন ক্রিকেটার

    ভারতীয় দল ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সম্প্রতি শেষ হওয়া ওয়ানডে সিরিজে ২-১ ফলাফলে হেরে গিয়েছে। প্রথম ম্যাচ জেতার পরও...

    বিশ্বের এক নম্বর টি২০ বোলার রশিদ খান দিলেন হার্দিক পান্ডিয়াকে বাউন্স খেলার চ্যালেঞ্জ, বদলে পেলেন এই জবাব

    বিশ্বের এক নম্বর টি২০ বোলার রশিদ খান দিলেন হার্দিক পান্ডিয়াকে বাউন্স খেলার চ্যালেঞ্জ, বদলে পেলেন এই জবাব
    ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ দুনিয়াভরের খেলোয়াড়দের এক মঞ্চে নিয়ে আসার কাজ করেছে। এটাই কারণ যে আলাদা আলাদা দেশের...

    ধোনিকে নিয়ে বিসিসিআই লিখল ভুল, ভক্তরা বদলে করল ট্রোল

    ধোনিকে নিয়ে বিসিসিআই লিখল ভুল, ভক্তরা বদলে করল ট্রোল
    ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসে সফলতম অধিনায়কের উল্লেখ যখনই করা হবে তাতে টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তণ অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির...

    ছবি: সেক্সিয়েস্ট স্পোর্টস সাংবাদিক মায়ান্তি ল্যাঙ্গারের কিছু হটেস্ট ফটো

    স্টার স্পোর্টস এবং অন্যান্য স্পোর্টস চ্যানেল এর সৌজন্নে এই মুহূর্তে উপস্থাপিকা হিসাবে মায়ান্তি ল্যাঙ্গার একজন সুপরিচিত মুখ। মায়ান্তি...