এক কথায় তিনি ছিলেন ভারতের মিস্টার ডিপেন্ডবল। কারও কারও কাছে তিনি দ্য ওয়াল। নিখুঁত টেকনিকে তিনি শেষ করতেন বিপক্ষ বোলারের সব জারিজুরি। অস্ট্রেলিয়ার তীব্র গতির ফাস্ট বোলিংয়ের সামনে বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়ে ইডেনে হার বাঁচিয়ে এনে দিয়েছিলেন নিশ্চিত জয়। জায়গা করে নিয়েছেন ভারতের সর্বকালীন সেরাদের সারিতে। এহেন নির্ভিক রাহুল দ্রাবিড় ভয় পাচ্ছেন বর্তমান ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। আশ্চর্য হলেও সত্যি। বিরাটকে কেন ভয় পাচ্ছেন প্রাক্তন এই তারকা সে কথাও জানিয়েছেন তিনি। ক্রিকেট ওয়ার্ল্ডে যে গুটিকয় ভদ্রলোক বলে বিবেচিত হন সেই তালিকায় রাহুল দ্রাবিড় নিশ্চিতভাবেই প্রথম দিকে আসেন। খেলোয়াড়ি জীবনে তার মুখে কেউ কটু কথা শুনেছেন বলে মনে করতে পারেন না। এহেন দ্রাবিড় সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘ বিরাট মাঝে মাঝে ভীষণ আগ্রাসী হয়ে ওঠে। একটি সিরিজের মাঝে ওর সেই আগ্রাসি মন্তব্য পড়ে ভয়ে কুঁকড়ে গিয়েছিলাম। অবশ্য আমার মতের সঙ্গে যে মিলতে হবে এমন কোনো কথা নেই। এভাবে যদি বিরাট প্রতিপক্ষকে খুঁচিয়ে নিজের সেরাটা বের করে আনতে পারে তাতে দোষের কিছু নেই। ক্রিকেটে শেষ পর্যন্ত পারফরমেন্সই শেষ কথা। এটাই হয়ত কোহলির ব্যক্তিত্ব।
নিজের সঙ্গে বর্তমান ভারত অধিনায়কের পার্থক্য ঠিক কোথায় দ্রাবিড়ের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, অনেকেই আমার কাছে জানতে চান আমার সময়ে আমি কেন কোহলির মত আচরণ করিনি! কারণ এভাবে নিজেকে চার্জ করে নিজের সেরাটা বের করে আনা আমার পক্ষে সম্ভব ছিল না। আমি যদি কোহলির মত শরীরে উল্কি এঁকে, এরকম আগ্রাসি মনোভাব দেখাতাম তাদের আমার নিজেস্বতা হারাত, আমি পারফর্ম করতে পারতাম না। দ্রাবিড় আরও বলেন, “ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে একটি সিরিজের আগে খবরের কাগজে বিরাটের মন্তব্য পড়ে শিউরে উঠেছিলাম আমি। পরে অবশ্য আমার মনে হয়েছিল বিরাট হয়ত এভাবেই প্রতিদ্বন্ধিতা তৈরি করতে চায়।
বিরাটের এই আগ্রাসি মনোভাব সমর্থন করলেও দ্রাবিড়ের আশঙ্কা অন্য জায়গায়। তার দাবী উঠতি ক্রিকেটাররা যেন বিরাটের এই অগ্রাসী মনোভাব অন্ধের মত অনুকরণ না করে। তাতে লাভের থেকে ক্ষতির সম্ভবনাই বেশি। তবে ভারতীয় দলের কোচের পদ থেকে কুম্বলের অপসারণ মেনে নিতে পারেনি ভারতের সর্বকালের সেরা এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। কুম্বলের অপসারনে কোহলির আচরণও তিনি সমর্থন করেন নি। তিনি বলেন, ‘ সবাই জানে কোহলি চায় নি বলেই কোচের পদ থেকে কুম্বলেকে সরে যেতে হয়েছে”, তাঁর মতে পুরো ঘটনাটা মিডিয়ার সামনে চলে আসায় কুম্বলের কাছে গোটা পরিস্থিতিটাই অসম্মানজনক হয়ে দাঁড়িয়েছিল। কুম্বলের মত একজন কিংবদন্তির পক্ষে যা মেনে নেওয়া সম্ভব ছিল না।

  • SHARE
    সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। দ্বিতীয় ডিভিসনে দীর্ঘদিন ক্রিকেট খেলার দরুণ ক্রিকেটের অন্ধ ভক্ত। ব্রায়ান লারা সচিনের অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

    আরও পড়ুন

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি
    তার ব্যাটিং প্রতিভা নিয়ে সন্দেহ নেই কারও। সকলেই একবাক্যে স্বীকার করে নিয়েছেন যে তিনি ব্যাটিংয়ের জিনিয়াস। তামাম...

    প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে সদ্য সমাপ্ত একদিনের সিরিজে যে যে রেকর্ড গড়লেন ভারত অধিনায়ক বিরাট

    তার শ্রেষ্ঠত্ব মেনে নিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বের সকলেই। বিশ্বের সর্বকালের সেরা একদিনের ক্রিকেটার হিসেবে তাকে মেনেও নিয়েছেন সকলে।...

    আইপিএলের প্রথম ম্যাচে খেলতে পারবেন না এই দুই অস্ট্রেলীয়

    আর মাত্র দেড় মাস বাকি আইপিএল শুরুর। এই মুহুর্তে স্ট্রাটেজি বানাতে শুরু করে দিয়েছে সমস্ত ফ্রেঞ্চাইজিই। কিন্তু...

    পিএনবি কান্ডে পরোক্ষে নাম জড়ালো বিরাটের, পিএনবির সঙ্গে গাঁটছড়া ছিন্ন করার কথা ভাবছেন তিনি

    পিএনবি কান্ডে পরোক্ষে নাম জড়ালো বিরাটের, পিএনবির সঙ্গে গাঁটছড়া ছিন্ন করার কথা ভাবছেন তিনি
    এই মুহুর্তে পাঞ্জাব ন্যাশানাল ব্যাঙ্কের দুর্নীতিতে গোটা দেশই নড়ে গিয়েছে। ১১ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি এই মুহুর্তে...

    বিরাটের নামে বাজারে আসতে চলেছে গাড়ি, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোষণা এই শিল্পপতির

    বিরাটের নামে বাজারে আসতে চলেছে গাড়ি, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোষণা এই শিল্পপতির
    একের পর এক রেকর্ড ধুলিস্যাত হচ্ছে তার ব্যাটের ঘায়ে। বর্তমান প্রজন্মের কথা ছেড়ে দিলেও ইতিমধ্যেই তার নাম...