ওয়েস্ট ইন্ডিজক বনাম পাকিস্তান: ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে ৩-০ করাই লক্ষ্য পাকিস্তানের 1

শারজা, ৩১ অক্টোবর: এর আগে টি-২০ ও ওয়ানডে, দুটি সিরিজেই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৩-০ ব্যবধানে পরাস্ত করেছে পাকিস্তান৷ এবার পাক দলের লক্ষ্য টেস্ট সিরিজেও ক্যারিবিয়ান দলকে হোয়াইটওয়াশ করা৷ আগের দুই টেস্টে যেমন খেলেছে, আজ থেকে শারজায় শুরু তৃতীয় টেস্টে সেটির ব্যতিক্রম না হলে তেমনটাই হয়তো হতে চলেছে। ক্রিকেট ইতিহাসেই একটি সফরে ৯-০ ব্যবধানে জয়ের কীর্তি কোন দলের নেই। পাকিস্তান এখন সেই নজিরের সামনে দাঁড়িয়ে। টি-২০ ও ওয়ানডে সিরিজে সব ম্যাচই হারতে হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। প্রথম টেস্টে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করলেও দ্বিতীয় টেস্টে অসহায় আত্মসমর্পণই করে জেসন হোল্ডারের দল। পাকিস্তানের ব্যাটিং আর ইয়াসির শাহর ঘূর্ণি ম্যাজিকেই সর্বনাশ হয়েছে ক্যারিবিয়দের। শেষ টেস্টে মিসবাহরা খুব গা ছেড়ে না দিলে আগের দুই টেস্টের পুনরাবৃত্তিই হতে চলেছে।

পাকিস্তানের কোচ মিকি আর্থার জানিয়ে দিয়েছেন প্রতিপক্ষকে কোন মতেই হাল্কাভাবে নেওয়া যাবে না৷ সেই ইঙ্গিত দিয়েই তিনি বলেন, ‘আমাদের অবশ্যই দাপটের সঙ্গে জিততে হবে। ৮ টেস্টের একটা লক্ষ্য (আরব আমিরশাহীতে তিনটি, নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ায় পাঁচটি) আমরা ঠিক করে নিয়েছি। আমরা শুধু দুটি খেলেছি। আমাদের ৮ টেস্ট দিয়েই নিজেদের যাচাই করতে হবে।’ এই ম্যাচে জয়ের চেয়েও তাই আরও বড় কিছুতে পাখির চোখ, ‘ম্যাচের ফলের চেয়েও কিছু জরুরি ব্যাপার আছে। আমি ভাল ক্রিকেট চাই, প্রতিটি খেলোয়াড়ের ব্যক্তিগত উন্নতি দেখতে চাই।’

পাকিস্তান অধিনায়ক মিসবাহ অবশ্য শারজার উইকেট নিয়ে একটু সতর্ক৷ তিনি বলেন, ‘শারজায় মোটামুটি মন্থর ট্র্যাকই থাকার কথা। বোলারদের এখানে অনেক ঘাম ঝরাতে হবে।’ ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার দুই টেস্ট থেকে পাওয়া ইতিবাচক বিষয়গুলি কাজে লাগাতে চান৷ তিনি বলেন, ‘প্রথম দুই টেস্টে বেশ কিছু ইতিবাচক দিক আছে আমাদের। বড় দলের সঙ্গে আমাদের পার্থক্য হল, ভাল শুরুর পরও আমরা কাজে লাগাতে পারছি না। অনভিজ্ঞতার জন্যই এটা হচ্ছে। এটা কাটিয়ে উঠতে হবে৷’

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *