শনিবার অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের ফাইনাল--- দু’দলই তৈরি মুখোমুখী লড়াইয়ে

আরও একটা বিশ্বকাপ অভিযান, আরও মাত্র কয়েক ঘন্টা। মাত্র কয়েক ঘন্টার ব্যবধানেই আইসিস্র অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে খেতাব জেতার লড়াইয়ে মুখোমুখী হবে ভারত এবং অস্ট্রেলিয়া। নিউজিল্যান্ডের মাউন্ট মায়ুনগুয়ানির বে ওভাল স্টেডিয়ামে। হোক না সে ছোটোদের লড়াই, তাতে কি, ইতিমধ্যেই এই লড়াইকে ঘিরে উত্তেজনায় টগবগ করছে গোটা নিউজিল্যান্ড সহ বিশ্ব ক্রিকেট। ছোটোদের এই বিশ্বকাপের শুরু থেকেই নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেট প্রেমীদের মধ্যে আগ্রহ দেখা দিয়েছিল প্রচুর, এখন শেষ পর্যায়ে এসে ফাইনাল ঘিরে কিছুটা হলেও বেড়েছে সেই উত্তেজনা। বড়দের বিশ্বকাপে যেমনটা দেখা যায় দু’দলের বাক যুদ্ধ সহ দুদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের লড়াই এখানেই কিন্তু তেমনটা নেই। দু’দলের সমর্থকদের মধ্যে লড়াইটা থাকলেও দুই দলই কিন্তু নিজেদের দূরে রেখেছে কোনো রকম বাক যুদ্ধ থেকেই। দু’দলই আশ্চর্য রকমের শান্ত। ইতিহাস ঘাটলে দেখা যাবে এর আগে ভারত এবং অস্ট্রেলিয়া দুই দেশিওই তিনবার করে এই অনুর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে খেতাব জিতেছে। লড়াইতে ফলাফল সমান সমান।

অতএব শনিবার যারাই জিতবে তারাই এগিয়ে যাবে এই লড়াইতে। তবে পরিসংখ্যান বলছে ফাইনালের আগে লড়াইতে এগিয়ে ভারতই। চলতি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্যায়ে মুখোমুখী হয়েছিল দু দলই সেখানে ভারত তাদের চির প্রতিদ্বন্ধী অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে দেয় ১০০ রানে। ভারতের পাহাড় প্রমান ৩২৮ রানের জবাব অস্ট্রেলিয়া গুটিয়ে যায় মাত্র ২২৮ রানেই। তবে গ্রুপ লিগ থেকে অনেকটাই অন্য ধারার লড়াই ফাইনালে আর সে কথা জানেন অনুর্ধ্ব ১৯ ভারতীয় দলের অধিনায়ক পৃথ্বী শ। তবে পৃথ্বী বিশ্বাস রাখছেন নিজের দলের খেলায়। এক সাংবাদিক সম্মেলনে পৃথ্বী জানিয়েছেন পুরো বিশ্বকাপ জুড়েই যেভাবে দলের প্রত্যেক পেলায়র তাদের ধারাবাহিকতা দেখিয়েছে তাতে আমি খুশি। দলের উপর আমার বিশ্বাস আছে যে তারা এই ধারাবাহিকতা ফাইনালেও ধরে রাখতে পারবে।

যখনই দরকার হয়েছে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছে আমাদের জোরে বোলাররাও। কমলেশ, ঈশান, মাভি যাকেই দায়িত্ব দেওয়া হোক তারা দলের প্রয়োজনে বল হাতে তুলে নিয়েছে। ফলে বোলাররা যখন বল হাতে পারফর্ম করে তখন ব্যাটিং লাইনআপের উপর থেকে চাপটা আপনা থেকেও অনেকটা সরে যায়”। এদিকে আন্ডারডগ হিসেবে ফাইনালের আগে নিজেদের ধরতে নারাজ অস্ট্রেলিয়াও। তাদের অধিনায়ক জেসন সংঘা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, “ আমরা কোনও মতেই ফাইনালে আন্ডারডগ নই। আবার আমরা যে ফাইনালে ফেভারিট সেকথাও বলছি না। কিন্তু মনে রাখবে দিনের শেষে আমাদের দলের নামটা কিন্তু অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বের যে কোনো দলকেই হারিয়ে দিতে পারি আমরা”। গ্রুপ পর্যায়ে হার নিয়ে তিনি আরও বলেন যে, “ আগে কি হয়েছে তা নিয়ে আমরা চিন্তিত নই। ফাইনাল সম্পূর্ণ আলাদা একতা ব্যাপার। ফাইনালে কোনো হিসেব নিকেশও খাটে না। তা ছাড়া খেলাও হবে অন্য পিচে। হ্যাঁ ভারতের দলে অনেক প্রতিভাবান খেলোয়াড়রাই রয়েছেন। কিন্তু যদি আমরা ওডের বেশ কয়েকটা উইকেট তাড়াতাড়ি তুলে নিতে পারি তাহলে কিন্তু ওরা চাপে পড়ে যাবে। ফাইনালের দিন যে কোনো কিছুই হতে পারে”।

  • SHARE
    সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। ব্রায়ান লারা সচিনের ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

    আরও পড়ুন

    ফের সমস্যায় ভারতীয় দলের বোলার মহম্মদ শামি, এবার নিখোঁজ হলেন ভাই

    ফের সমস্যায় ভারতীয় দলের বোলার মহম্মদ শামি, এবার নিখোঁজ হলেন ভাই
    ভারতীয় দলের ক্রিকেট তারকা মহম্মদ শামীর কিছুদিন ধরেই ভাল যাচ্ছে না সময়। যে কারণে এই সমস্যার প্রভাব...

    ব্রেকিং নিউজ: মহম্মদ কাইফে পর এই ভারতীয় ক্রিকেট খেলোয়াড় অবসর নিলেন

    ব্রেকিং নিউজ: মহম্মদ কাইফে পর এই ভারতীয় ক্রিকেট খেলোয়াড় অবসর নিলেন
    কখনও আইপিএলে নিজের জলবা দেখানো ক্রিকেটার অরবিন্দ পরওয়ানা নিজের ক্রিকেট কেরিয়ারের সমাপ্তি ঘটালেন। যার ঘোষণা তিনি আজ...

    বিরাট কোহলির দুরন্ত ইনিংসের সৌজন্যে ভারত ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে করল ২৫৬ রানের স্কোর

    বিরাট কোহলির দুরন্ত ইনিংসের সৌজন্যে ভারত ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে করল ২৫৬ রানের স্কোর
    ভারত আর ইংল্যান্ডের মধ্যে আজ মঙ্গলবার হেডিংলেতে ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ ম্যাচ খেলা হচ্ছে। এই ম্যাচে...

    ইংল্যান্ড বনাম ভারত: শ্লথ ব্যাটিংয়ের কারণে ফের একবার সমালোচকদের নিশানা হলে ধোনি, উঠল দল থেকে বাদ দেওয়ার দাবী

    ইংল্যান্ড বনাম ভারত: শ্লথ ব্যাটিংয়ের কারণে ফের একবার সমালোচকদের নিশানা হলে ধোনি, উঠল দল থেকে বাদ দেওয়ার দাবী
    ভারত আর ইংল্যান্ডের মধ্যে আজ ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় তথা ফাইনাল ম্যাচ খেলা হচ্ছে। এই ম্যাচে আজ টসে...

    ভিডিয়ো: অ্যাম্পায়রকে মহেন্দ্র সিং ধোনি ফের জানালেন ডিআরএস নেওয়ায় তার মত কেউ নেই, অ্যাম্পায়ার চাইলেন ক্ষমা

    ভিডিয়ো: অ্যাম্পায়রকে মহেন্দ্র সিং ধোনি ফের জানালেন ডিআরএস নেওয়ায় তার মত কেউ নেই, অ্যাম্পায়ার চাইলেন ক্ষমা
    ওয়ানডে ম্যাচে যে কোনও দলই দুটি ডিআরএস পায়। একটি ডিআরএস যে কোনও দল বল করার সময় পায়,...