শচীনকে অপমান করল সিএসকে, ক্ষুব্ধ সমর্থকরা জারি করল ফর্মান

যদিও শচীন তেন্ডুলকর ক্রিকেট খেলা ছেড়ে দিয়েছেন, তা সত্ত্বেও শচীন ভক্তরা এখনও তার জন্য জীবনপণ করেন। ভারতের সেই ক্রিকেট ঈশ্বরকেই এবার অপমান করে বসল চেন্নাই সুপার কিংস। আসলে শচীনের একটি ফটোতে চেন্নাই সুপার কিংসের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ক্যাপশন লেখা হয়েছে। তারপর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সিএসকেকে নিয়ে ট্রোলড করা শুরু করেন শচীনের ফ্যানেরা। শচীন আর সুরেশ রায়নার একটি ফটোতে সিএসকের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে একটি টুইট করা হয় আর সেই টুইট নিয়েই শুরু হয় সমস্যা। সুরেশ রায়নার ফটোতে লেখা হয় “স্ট্রিট মে রহনা” (রাস্তাতেই থাকো)”। আর শচীনের সঙ্গে রায়নার ছবিতে লেখা হয় “সুরেশ আর রমেশ”।
শচীনকে অপমান করল সিএসকে, ক্ষুব্ধ সমর্থকরা জারি করল ফর্মান 1
ওই ক্যাপশন সম্বলিত টুইটটি দেখার পরই শচীন ভক্তরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে সোশ্যাল মিডিয়ায় চেন্নাইকে ট্রোলড করা শুরু করে দেন। প্রায় সমস্ত টুইটার ব্যবহারকারীরাই সিএসকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন। প্রসঙ্গত শচীন তেন্ডুলকরের বাবার নাম রমেশ তেন্ডুলকর। যার ফলে শচীনের পুরো নাম শচীন রমেশ তেন্ডুলকর। অন্যদিকে ফাইভ স্টার চকলেটের একটি বিজ্ঞাপনে সুরেশ এবং রমেশ নামে দুই চরিত্রকে দেখানো হয়। আর সেই দুই চরিত্রের নামেই রায়না এবং তেন্ডুলকরের ফটোর নীচে ওই ক্যাপশন লেখা হয়। ওই ক্যাপশন দেখার পরই ক্ষেপে ওঠে শচীন ভক্তরা। এক ভক্ত লেখেন, “ যখন সিএসকের অস্তিত্বই ছিল না তখনই শচীন ক্রিকেট থেকে অবসরের দোড়গোড়ায় এসে দাঁড়িয়েছিলেন”। আরও একজন টুইটারেত্তি লেখেন, “শচীনের সঙ্গে কারওরই তুলণা করা চলে না”।
শচীনকে অপমান করল সিএসকে, ক্ষুব্ধ সমর্থকরা জারি করল ফর্মান 2
অন্য এক ইউজার লেখেন, “রমেশ শচীনের বাবার নাম, এভাবে তার অপমান সহ্য করা হবে না”। শুধু তাই নয় এক টুইটার ব্যবহারকারী এও বলে দেন যে যদি সিএসকে ওই ক্যাপশন তুলে নিয়ে ক্ষমা না চান তাহলে সিএসকের বিরুদ্ধে অভিযোগও দায়ের করা হবে।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *