[cwa id='h1']
বাংলার দুই ক্রিকেটার দুপ্রান্তে, ব্যাটিং অর্ডারে বারবার পরিবর্তনে সমস্যা হচ্ছে ঋদ্ধির

JCC
পেশাদার ক্রিকেটার হতে চান?
এখানে রেজিস্টার করুন

*T&C Apply

বাংলার দুই ক্রিকেটার দুপ্রান্তে, ব্যাটিং অর্ডারে বারবার পরিবর্তনে সমস্যা হচ্ছে ঋদ্ধির 1

আইপিএলে সে অর্থে বাঙালি ক্রিকেটার বলতে বলার মত মাত্র দু’জন। তাও তারা নেই কেকেআরের। একজনের ঠাঁই হয়েছে উত্তরে অন্য জনের ঠাঁই দক্ষিণে। তারা যথাক্রমে মনোজ তেওয়ারি এবার খেলবেন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবে এবং অন্যজন ভারতীয় টেস্ট দলের এক নম্বর উইকেটকীপার ঋদ্ধিমান সাহার এবারের ঠিকানা উত্তরপ্রদেশ। তবে ঋদ্ধির তুলনায় মনোজ তেওয়ারির স্ট্রাগলটা অনেকটাই বেশি। কারণ মনোজের দল কিংস ইলেভেনের ব্যাটিং লাইনআপে তারকার ভীড়। কে নেই তাতে! ক্রিস গেইল, অ্যারন ফিঞ্চ থেকে শুরু করে ডেভিড মিলার, কে এল রাহুল, যুবরাজ সিং, মায় ময়ঙ্ক আগ্রবাল, করুণ নায়াদের টেক্কা দিয়ে প্রথম একাদশে জায়গা পাওয়া মনোজের পক্ষে বেশ কঠিনই। যা কার্যত স্বীকার করে নিলেন বাংলার অধিনায়ক।

বাংলার দুই ক্রিকেটার দুপ্রান্তে, ব্যাটিং অর্ডারে বারবার পরিবর্তনে সমস্যা হচ্ছে ঋদ্ধির 2

সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে জানালেন, “ আমি জানি যে দলে জায়গা পেতে গেলে আমাকে অনেক লড়াই করতে হবে। তাই নিজের কার্যকরিতা বাড়াতে নিয়মিত বোলিংও করছি। এর আগেও ঘরোয়া ক্রিকেটে বোলিং করেছি। ফলে তৈরি হয়েই দলের সঙ্গে যোগ দিচ্ছি। এবার দেখা যাক টিম ম্যানেজমেন্ট কি কম্বিনেশন চায়”। অন্যদিকে ঋদ্ধিমানের ভাবনা সম্পূর্ণ অন্য। নিজের ব্যাটিং অর্ডারের বারবার পরিবর্তন নিয়ে প্রবল আপত্তি তুলেছেন বিরাট কোহলির পছন্দের উইকেটকীপার। শিলিগুড়ির পাপালির মনে করছেন এই কারণেই ২০১৪র ফাইনালে সেঞ্চুরি করার পর আর কোনও আইপিএলে তার পারফরমেন্স সেভাবে দেখা যায় নি। যা নিয়ে ঋদ্ধি সটান বলে দিচ্ছেন, “ একজন ব্যাটসম্যান তখনই আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠে নামতে পারে যখন সে জানতে পারে যে পরপর দু-চারটে ম্যাচে সে একই জায়গায় ব্যাট করতে পারবে। সমস্যা হয় যখন তখন যে কোনও জায়গায় ব্যাট করতে বললে। এটাই হচ্ছে আমার সঙ্গে”। সেই সঙ্গে তিনি আরও বলেছেন, “গতবার যখন আমি মুম্বাইয়ের বিরুদ্ধে ৯৩ রান করেছিলাম, সেই ম্যাচের আগে আচমকাই আমাকে বলা হয় যে তুমি খেলছ এবং ওপেন করছ। তাও সেটা জানানো হয় টস হয়ে যাওয়ার পরে। অবশ্য প্রফেশনাল ক্রিকেটে সবাইকেই তৈরি থাকতে হয় যে কোনও ধরনের পরিস্থিতির জন্য”। তবে ঋদ্ধি জানেন যে এবার তার পছন্দের জায়গা ওপেনিংয়ে সুযোগ পাওয়ার সম্ভবনা ভীষণই কম। কে আর পাল্টাতে চাইবে হায়দ্রাবাদ সানরাইজার্সের ডেভিড ওয়ার্নার শিখর ধবন জুটিকে!

বাংলার দুই ক্রিকেটার দুপ্রান্তে, ব্যাটিং অর্ডারে বারবার পরিবর্তনে সমস্যা হচ্ছে ঋদ্ধির 3

আর সেটা ঋদ্ধি জানেন বলেই মন্তব্য করেন, “ নিশ্চই আমাকে মিডল অর্ডারে ব্যাট করতে হবে। আমাদের দলের দুই ওপেনারই দুরন্ত। ফলে আশা করছি শুরুটা ভালো হলে মিডল অর্ডারে চাপটা কম থাকবে”। অন্যদিকে এর আগে আইপিএলে পুনের হয়ে যথেষ্ট সফল হয়েছেন মনোজ। তিনি বলেন, “ আমি এখন গতবারের ইনিংস গুলোর ভিডিও মন দিয়ে দেখছি। সবসময়েই এগুলো আমি নিজের কাছে রাখি। এগুলো দেখেই আমি আমার শট বাছাইয়ের ভুল-ঠিক গুলো ধরতে পারি”। অন্যদিকে ঋদ্ধি এখন মন দিয়েছেন স্কুপ শট খেলার দিকে। সম্প্রতি নিদাহাস ট্রফির শেষ বলে এই শটেই ছক্কা মারেন দীনেশ কার্তিক। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের মাঝ পথেই ঋদ্ধিকে ফিরতে হয়েছিল হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট লাগায়। তার ধারণ দক্ষিণ আফ্রিকার মতই আগস্টের ইংল্যান্ড টেস্ট সিরিজও যথেষ্টই কঠিন হবে। যা নিয়ে ঋদ্ধি বলছেন, “ বিদেশের যে কোনও সিরিজই ভীষণই কঠিন। ইংল্যান্ডে গিয়ে ইংল্যান্ডকে হারানো মটেও সহজ হবে না। আমি ভারতীয় এ দলের হয়ে ইংল্যান্ডে খেলেছি। কীপিংটা ওখানে বিরাট একটা চ্যালেঞ্জ। ওখানে বেশি হাওয়ার জন্য বল বেশি করে সুইং করে। সেই সঙ্গে আবহাওয়াও থাকে স্যাঁতস্যাঁতে। এই ধরনের পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার জন্যই ওখানে আগেভাগে যাওয়া ভাল। দেখা যাক বোর্ড কি বলে”। আপাতত ঋদ্ধি আইপিএলে তার নতুন ফ্রেঞ্চাইজির হয়ে খেলাকেই পাখির চোখ করেছেন। অন্যদিকে মনোজও তৈরি নতুন ফ্রেঞ্চাইজির হয়ে মহড়া দিতে। এখন দেখার বাংলার এই দুই ক্রিকেটার এবারের আইপিএলে কতটা সফল হন।

[cwa id='revcontent']
SHARE
কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ফুটবলে ব্রাজিলের সমর্থক। পছন্দের খেলোয়াড় নেইমার এবং লিওনেল মেসি। অ্যাডভেঞ্চারিস্ট।
[cwa id='moreat']