পিএনবি কান্ডে পরোক্ষে নাম জড়ালো বিরাটের, পিএনবির সঙ্গে গাঁটছড়া ছিন্ন করার কথা ভাবছেন তিনি

এই মুহুর্তে পাঞ্জাব ন্যাশানাল ব্যাঙ্কের দুর্নীতিতে গোটা দেশই নড়ে গিয়েছে। ১১ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি এই মুহুর্তে সকলেরই আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে। দেশের অর্থনীতিকে রীতিমতো বেকায়দায় ফেলে দিয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন আন্তর্জাতিক স্বর্ণ ব্যবসায়ি নীরব মোদি। যার জোরে বেকায়দায় পড়ে গিয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রীও। প্রতিদিনই বিরোধীদের আক্রমনের মুখে পড়তে হচ্ছে নরেন্দ্র মোদীকেও। এমনই যখন দেশের পরিস্থিতি তখন এই পিএনবি ব্যাঙ্কের দুর্নীতিতে অন্যভাবে নাম জড়িয়ে গেল ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিরও। প্রসঙ্গত ২০১৬ থেকেই পাঞ্জাব ন্যাশানাল ব্যাঙ্কের ব্র্যাণ্ড অ্যাম্বাসাডর বিরাট। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের ব্যাবসা বাড়াতে ভাবমূর্তি ফেরানোর জন্যই ব্রান্ড অ্যাম্বাসাডার বানানো হয়েছিল জাতীয় দলের এই তারকাকে। কিন্তু এই মুহুর্তে যা পরিস্থিতি তাতে দেশের ব্যাঙ্কিং ইতিহাসে সবথেকে বড় ব্যাঙ্কিং স্ক্যামের ঘটনায় পিএনবি শীর্ষ কর্তাদের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠে পড়েছে। সেই সঙ্গ কালিমালিপ্ত হয়েছে ব্যাঙ্কের ভাবমূর্তিতেও।

এই পরিস্থিতিতে কি করবেন বিরাট? নিজের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি নিয়ে কি সরে দাঁড়াবেন? তবে সূত্রের মোতাবিক এই সম্ভাবনাই প্রবল হচ্ছে দিন কে দিন। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্টে জানানো হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ নিয়ে ভারত অধিনায়ক ব্যস্ত থাকলেও দেশের এই ব্যাঙ্কিং স্ক্যাম নিয়েও যথেষ্ট খোঁজ খবর রাখছেন তিনি। ওই সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্টে বিরাটের এক ঘনিষ্ঠ জানিয়েছেন, “ দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম রাষ্ট্রায়াত্ত্ব ব্যাঙ্ক পাঞ্জাব ন্যাশানাল ব্যাঙ্কের এই দুর্নীতি সহজে মানুষের মন থেকে মুছবে না। তাই বিরাট বেশি দেরী না করেই হয়ত এই ব্যাঙ্কের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডারের পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন”। সরে দাঁড়ানোর কারণও জানিয়েছেন ওই বিরাট ঘনিষ্ঠ।

তিনি বলেন, “ অন্যান্য অনেক তারকার মতই বিরাট নিজেও চাইবেন না এমন কোনো সংস্থার সঙ্গে জড়িত থাকতে যাদের নাম দুর্নীতিতে জড়িয়েছে। যেমন নির্মান সংস্থা আম্রপালী গ্রুপের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় ধোনি তাদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছিলেন”। টিভির পর্দায় বিরাটকে দেখা যায় পিএনবির অ্যাডে সাধারণ মানুষকে জানাতে, “আমার পিএনবি দলে যুক্ত হন এবং ডিজিটাল ট্রানজাকশনের উপর পান রিওয়ার্ড পয়েন্ট’। তবে এরপর যে বিরাটকে আর ওই কথা বলতে দেখা যাবে না তা নিয়ে নিঃসন্দেহ হওয়াই যায়। এখন দেখা যাক দেশে ফেরার পর বিরাত কবে পিএনবির সঙ্গে তার গাঁটছড়া ছিন্ন করেন।

  • SHARE
    সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। ব্রায়ান লারা সচিনের ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

    আরও পড়ুন

    ইংল্যান্ডে অস্ট্রেলিয়ার হালত দেখে ঘুম ভাঙল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার, স্মিথ ওয়ার্নার পেলেন ফেরার অনুমতি

    ইংল্যান্ডে অস্ট্রেলিয়ার হালত দেখে ঘুম ভাঙল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার, স্মিথ ওয়ার্নার পেলেন ফেরার অনুমতি
    অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের হালত এই সময় খুব একটা ভাল নয়। একদিকে যেখানে দলের তারকা ব্যাটসম্যান স্টিভ স্মিথ এবং...

    বিরাট জানালেন এই দুই খেলোয়াড়ের উপর সবচেয়ে বেশি নির্ভর করেই ইংল্যান্ডে জিতবেন সিরিজ

    বিরাট জানালেন এই দুই খেলোয়াড়ের উপর সবচেয়ে বেশি নির্ভর করেই ইংল্যান্ডে জিতবেন সিরিজ
    ভারতীয় দলকে আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২৭ এবং ২৯ জুন দুটি টি২০ ম্যাচের সিরিজ খেলতে হবে। আর এর পর...

    সম্পূর্ণ কেরিয়ারে এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানকে কোনও বোলারই শূন্য রানে আউট করতে পারেন নি

    সম্পূর্ণ কেরিয়ারে এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানকে কোনও বোলারই শূন্য রানে আউট করতে পারেন নি
    ক্রিকেটে প্রত্যেক ব্যাটসম্যানের উপর সবচেয়ে বেশি চাপ থাকে তখন যখন তিনি ব্যাট করার জন্য ক্রিজে আসেন। এই...

    অগ্নিপরীক্ষা দিয়ে নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণিত করতে চান বিরাট কোহলি

    চার বছর পর আবার ইংল্যান্ড সফর। আবার ভারতীয় ক্রিকেট টিম সহ অধিনায়ক বিরাট কোহলির কাছে অগ্নিপরীক্ষা ইংল্যান্ডের...

    কাররই নেই কোনও আশা, কিন্তু এই তিন ভারতীয় খেলোয়াড় পেতে পারেন ২০১৯ বিশ্বকাপ দলে জায়গা

    ২০১৯ বিশ্বকাপ শুরু হতে আর মাত্র এক বছরেরও কম সময় রয়ে গিয়েছে। ভারতীয় দল বিরাট কোহলির অধীনে...