দীর্ঘদিন কেকেআরে তবু হাতে এলো না নেতৃত্ব, মুখ খুললেন উথাপ্পা

তিনি প্রত্যাশায় ছিলেন, আসন্ন আইপিএল ২০১৮ মরশুমে কেকেআরের নেতা হবে তিনি। তার জন্য মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুতও করেছিলেন তিনি। এমনকি সংবাদমাধ্যমেও জানিয়ে দিয়েছিলেন যে তিনি কেকেআরের দায়িত্ব নিতে তৈরি। কিন্তু কেকেআরের নেতার নাম ঘোষণার পরেই দেখা গেল প্রত্যাশা পূর্ণ হয় নি রবিন উথাপ্পার। কার্যত একেবারে শেষ মূহুর্তেই তাকে টপকে নেতা হয়ে গেলেন এবছরই দলের সঙ্গে নতুন যোগ দেওয়া দীনেশ কার্তিক। কয়েকদিন আগেই কেকেআর ঘোষণা করেছিল ৪ মার্চ লাইভ তারা তাদের অধিনায়কের নাম ঘোষণা করবে, সেই মতই গত রবিবার সকালেই তারা নতুন অধিনায়ক হিসেবে বেছে নেয় দীনেশ কার্তিককে। যদিও গত কয়েকদিনে কেকেআরের সংসারের ঘটনাক্রম অনুযায়ী পরিস্থিতি উথাপ্পার নেতা হওয়ার দিকেই ছিল। কারণ যে তিনজন অধিনায়ক পদের দাবীদার ছিলেন তাদের মধ্যে থেকে প্রধান ক্রিস লিনের চোট।

সম্ভবত এই আইপিএল থেকেই ছিটকে গিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে যেহেতু দীনেশ কার্তিকের সংযোজন কেকেআরের সংসারে এবারেই প্রথম ফলত ধরা হয়েছিল যে নতুন সদস্য হিসেবে কেকেআর ম্যানেজমেন্ট কখনোই নেতা হিসেবে বাছবে না দীনেশ কার্তিককে। কারণ তা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে যেতে পারে। কিন্তু ঘটনাক্রমে দেখা গেল সেই ঝুঁকিটাই নিয়ে ফেলেছেন কেকেআর ম্যানেজমেন্ট। অন্যদিকে শেষ চারটি মরশুমে কেকেআরের বিপদে আপদে দলকে টেনে তুলেছেন উথাপ্পা। মোট ৫৮টি আইপিএল ম্যাচে তিনি অংশ নিয়েছেন কেকেআরের জার্সি গায়ে। কিন্তু দীনেশ কার্তিক তেমনটা করেন নি। তিনি আইপিএলে বিভিন্ন সময়ে আলাদা আলাদা ছ’টি দলের সদস্য থেকেছেন । ফলে সবদিক বিচার করেই উথাপ্পাই ছিলেন আদর্শ ব্যক্তি। তবে একথা মানতেই হবে কেকেআরের নেতা হিসেবে দীনেশ কার্তিককে বেছে নেওয়ার মধ্যে যথেষ্টই চমক রয়েছে। তবে নেতা না হতে পেরে উথাপ্পা সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, “ ডিকে (দীনেশ কার্তিক) এবং আমি দুজনেই যুব পর্যায় থেকেই একে অপরকে চিনি। ওর সঙ্গে খেলার জন্য আমি মুখীয়ে রয়েছি”।

এরআগে গত সাতটি মরশুমে কেকেআরকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন গৌতম গম্ভীর। এবার আর কেকেআরে থাকতে চাননি তিনি। বরং ঘরের দল দিল্লির হয়ে খেলার ইচ্ছাই প্রকাশ করেছিলেন তিনি। এর আগে ২০১১য় কেকেআর সম্পূর্ণ নতুন দল এবং নতুন অধিনায়ক নিয়ে শুরু করেছিল আইপিএলের সফর। এবং পরের বছরই তারা তার ফল পেয়েছিল হাতে নাতে। ২০১২য় প্রথমবারা তারা আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পাশাপাশি ২০১৪তেই দ্বিতীয়বারের জন্য খেতাব জেতে তারা। এবারেও কেকেআর একেবারে সম্পূর্ণ নতুন দল এবং নতুন অধিকায়ক নিয়ে খেলতে নামছে। এখন দেখা যাক সেই পুরোনো ম্যাজিক নতুন অধিনায়কের হাত ধরে ফের ফিরে আসে কিনা।

  • SHARE
    সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। ব্রায়ান লারা সচিনের ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

    আরও পড়ুন

    ইংল্যান্ডে অস্ট্রেলিয়ার হালত দেখে ঘুম ভাঙল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার, স্মিথ ওয়ার্নার পেলেন ফেরার অনুমতি

    ইংল্যান্ডে অস্ট্রেলিয়ার হালত দেখে ঘুম ভাঙল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার, স্মিথ ওয়ার্নার পেলেন ফেরার অনুমতি
    অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের হালত এই সময় খুব একটা ভাল নয়। একদিকে যেখানে দলের তারকা ব্যাটসম্যান স্টিভ স্মিথ এবং...

    বিরাট জানালেন এই দুই খেলোয়াড়ের উপর সবচেয়ে বেশি নির্ভর করেই ইংল্যান্ডে জিতবেন সিরিজ

    বিরাট জানালেন এই দুই খেলোয়াড়ের উপর সবচেয়ে বেশি নির্ভর করেই ইংল্যান্ডে জিতবেন সিরিজ
    ভারতীয় দলকে আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২৭ এবং ২৯ জুন দুটি টি২০ ম্যাচের সিরিজ খেলতে হবে। আর এর পর...

    সম্পূর্ণ কেরিয়ারে এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানকে কোনও বোলারই শূন্য রানে আউট করতে পারেন নি

    সম্পূর্ণ কেরিয়ারে এই ভারতীয় ব্যাটসম্যানকে কোনও বোলারই শূন্য রানে আউট করতে পারেন নি
    ক্রিকেটে প্রত্যেক ব্যাটসম্যানের উপর সবচেয়ে বেশি চাপ থাকে তখন যখন তিনি ব্যাট করার জন্য ক্রিজে আসেন। এই...

    অগ্নিপরীক্ষা দিয়ে নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণিত করতে চান বিরাট কোহলি

    চার বছর পর আবার ইংল্যান্ড সফর। আবার ভারতীয় ক্রিকেট টিম সহ অধিনায়ক বিরাট কোহলির কাছে অগ্নিপরীক্ষা ইংল্যান্ডের...

    কাররই নেই কোনও আশা, কিন্তু এই তিন ভারতীয় খেলোয়াড় পেতে পারেন ২০১৯ বিশ্বকাপ দলে জায়গা

    ২০১৯ বিশ্বকাপ শুরু হতে আর মাত্র এক বছরেরও কম সময় রয়ে গিয়েছে। ভারতীয় দল বিরাট কোহলির অধীনে...