দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়া: ফের বিতর্ক, এবার বল বিকৃতির দায় চাপল ওয়ার্নারের ওপর

দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়া: ফের বিতর্ক, এবার বল বিকৃতির দায় চাপল ওয়ার্নারের ওপর 1

একের পর এক বিতর্কে উত্তপ্ত দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট সিরিজ। এই ঘটনায় নতুন সংযোজন বল বিকৃতি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনে বল বিকৃতির অভিযোগ উঠল অস্ট্রেলিয়ার সহ অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের বিরুদ্ধে। দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিন ওয়ার্নার মাঠে নামেন দু আঙুলে টেপ জড়িয়ে। দক্ষিণ আফ্রিকা অভিযোহ করেছে বলের পালিশ তোলার জন্যই এই টেপের ব্যবহার করেছেন ওয়ার্নার। যদিও অস্ট্রেলিয়ার পক্ষ থেকে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার তথা ওয়ার্নারের এক সময়ের সতীর্থ রায়ান হ্যারিস। তিনি জানিয়েছেন যে ওয়ার্নাএর বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ ভিত্তিহীন এবং অযৌক্তিক। এ ব্যাপারে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া বিবৃতিতে হ্যারিস জানিয়েছেন, “ দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটাররা ছেলে মানুষি করছেন। একজন ওপেনারের আঙুলে টেপ থাকা অত্যন্ত স্বাভাবিক একটি ঘটনা। ওয়ার্নারকে নির্বাসিত করার জন্য ওরা ইচ্ছাকৃতভাবে উঠে পড়ে লেগেছে। একটি টেপের সাহায্যে কখনও বল বিকৃতি করা সম্ভব নয়। একমাত্র টেপের মধ্যে যদি বালি অথবা কাঁচের টুকরোর মত কোনও পদার্থ থাকলে তবেই বল বিকৃত হওয়া সম্ভব”।

দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়া: ফের বিতর্ক, এবার বল বিকৃতির দায় চাপল ওয়ার্নারের ওপর 2

তবে একের পর এক বিতর্কের ঝড় উঠলেও ইতিমধ্যেই কিন্তু জমে গিয়েছে এই দ্বিতীয় টেস্ট। দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিন দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে দুরন্ত সেঞ্চুরি করেন এবি ডেভিলিয়র্স। পেস সহায়ক দক্ষিণ আফ্রিকার পিচে ১৪৬টি বল করে ১২৬ রানে অপরাজিত থাকেন এবি। তবে পাশাপাশি প্রশংসা করতে হবে বোলার ভার্নন ফিল্যান্ডার এবং কেশব মহারাজেরও। শেষ দিকে ফিল্যান্ডার (৩৬) এবং কেশব (৩০) এবিকে যোগ্য সহায়তা করেন। লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে দুটি গুরুত্বপূর্ন পার্টনারশিপ গড়েন ডেভিলিয়র্স। যার সুবাদে দক্ষিণ আফ্রিকা দিনের শেষে ৩৮২ রান তুলে ফেলেছে স্কোরবোর্ডে। এবি এবং লোয়ার অর্ডারের ব্যাটসম্যানদের সৌজন্যেই এই মুহুর্তে দক্ষিণ আফ্রিকা অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে এগিয়ে রয়েছে ১৩৯ রানে। অন্যদিকে দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস শেষে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। দলের মাত্র ২৭ রানের মাথাতেও কাগিসো রাবাডার বলে বোল্ড হয়ে ফিরে যান ডেভিড ওয়ার্নার। তিনি মাত্র ১৩ রান করেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার জোরে বোলারদের বিরুদ্ধে আরও বিপদে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। স্কোরবোর্ডে ওঠা ৮৬ রানের মধ্যে তাদের প্রথম চারজন ব্যাটসম্যান ফিরে যান প্যাভিলিয়নে।

দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়া: ফের বিতর্ক, এবার বল বিকৃতির দায় চাপল ওয়ার্নারের ওপর 3

প্রথম ইনিংসের মত দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যর্থ অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। প্রথম ইনিংসে তিনি করেন মাত্র ২৫ রান, দ্বিতীয় ইনিংসেও তিনি ১১ রানের বেশি করতে পারেন নি। তবে টালমাটাল পরিস্থিতিতে দলকে রক্ষা করেন উসমান খোয়াজা এবং মিচেল মার্শ। উসমান খোয়াজাকে ব্যক্তিগত ৭৫ রানের মাথায় প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান রাবাডা। মার্শ আউট হন ৩৬ রানে। দিনের খেলা শেষে এই মুহুর্তে অস্ট্রেলিয়ার রান পাঁচ উইকেটের বিনিময়ে ১৮০। দক্ষিণ আফ্রিকার থেকে মাত্র ৪০ রানে এগিয়ে রয়েছে তারা। দক্ষিণ আফ্রিকাকে চালকের আসনে বসিয়ে দেন জোরে বোলার রাবাডা। ৩৮ রানের বিনিময়ে তিনি নেন অস্ট্রেলিয়ার ৩টি উইকেট। এখন এটাই দেখার চতুর্থ দিনেও তিনি অস্ট্রেলিয়াকে বিপদে ফেলে এই ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে জয়ের মুখ দেখাতে পারেন কিনা।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *