ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতি নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন কলকাতার অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক

শনিবার ইডেনে যখন কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ব্যাট করতে নামে তখন তাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৯২ রান। ওভার পিছু ৯.৬ রান করে তুলতে হত কিংসকে। তবে বৃষ্টি এসে পুরো অংকটাই বদলে দেয় নাইট রাইডার্সের জন্য। শনিবার ইডেনে বৃষ্টির জন্য এক ঘন্টা ৩৫ মিনিট খেলা বন্ধ থাকার পর ফের যখন খেলা শুরু হয় তখন পাঞ্জাবের লক্ষ্যমাত্রা হয়ে দাঁড়ায় ২৮ বলে ২৯ রান। রিকোয়ার রান রেট ৬। ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতেই নেমে আসে ওই লক্ষ্য। প্রসঙ্গত ১৯৯২ একদিনের বিশ্বকাপ থেকেই দুই বিখ্যাত বৃটিশ পরিসংখ্যানবিদ ফ্র্যাঙ্ক ডাকওয়ার্থ এবং টনি লুইসের তৈরি এই পদ্ধতিতেই বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচের ভাগ্য এভাবেই নির্ধারিত হয়ে চলেছে। সেই নিয়ম চালু আছে আইপিএলেও। যদিও এর আগে অতীতে বহু ক্রিকেটার এবং অধিনায়কই এই পদ্ধতি নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন। একই ভাবে এদিনই দীনেশ কার্তিকে গলাতেও উঠে এল সেই সংশয়। ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতি নিয়ে ক্ষুব্ধ কার্তিক সংবাদমাধ্যমে জানান, “ বৃষ্টি থেমে যাওয়ার পর যখন খেলা শুহুরু হয় আচমকাই দেখি ওদের আস্কিং রেট ছয়েরও কম হয়ে গেছে। আমি ব্যাপারটা ঠিক বুঝি নি। কোন হিসেবে বা কোন যুক্তিতে এটা হল আমি জানি না”।

ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতি নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন কলকাতার অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক 1

কার্তিক বিদেশি এই পদ্ধতির বদলে ভারতীয় জয়দেবন পদ্ধতি (ভিজেডি) ব্যবহার করার পক্ষপাতী। এ ব্যাপারে তিনি বলেন, “ আমাদের ভারতীয় পদ্ধতি ভিজেডি রয়েছে। সেই একই পদ্ধতি আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেটেও ব্যবহার করা হয়। তাহলে সেটাই বা আইপিএলে ব্যবহার করা হবে না কেন?” সাংবাদিকদের করা প্রশ্ন ‘কেকেআর ২০০ রান তুললেও কি জিততে পারত?”র উত্তরে কার্তিক স্বীকার করে নেন যে তাদের বোলাররা এদিন ভাল বল করতে পারেন নি। তিনি বলেন, “ আমরা ২০০ রান তুলেও জিততে পারতাম কি না জানি না। কারণ আজ আমাদের বোলিং খুব একটা ভাল হয় নি। দিল্লির বিরুদ্ধেও আমরা ২০০ তুলেছি। কিন্তু রান তোলার পাশাপাশি আমাদের বোলিংটাও ভাল হওয়া দরকার”।

ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতি নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন কলকাতার অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক 2

প্রসঙ্গত এর আগের ম্যাচগুলিতে স্পিনারদের দিয়ে বোলিং শুরু করালেও এদিন কিন্তু শিবম মাভি এবং অ্যান্দ্রে রাসেল নাইটদের হয়ে বল হাতে শুরু করেন। যা নিয়ে ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে কার্তিক বলেছেন, “ এখনও পর্যন্ত কেউ গেইলকে আউট করার নির্দিষ্ট কোনও পদ্ধতি খুঁজে পেয়েছে বলে মনে হয় না। ও সত্যিই দারুণ ব্যাট করেছে। এটা মেনে নেওয়া ছাড়া উপায় নেই। তবে কৃতিত্ব শুধু গেইলের একার নয়। রাহুলও যথেষ্ট ভালো ব্যাটিং করেছে”।

ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতি নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন কলকাতার অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক 3

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *