‘টস জেতা ভুল হয়ে গেছে ভাই!’ 1

‘টস জেতা ভুল হয়ে গেছে ভাই!’ 2

পচেফস্ট্রুম টেস্টে টস জিতে মুশফিকুর রহিমের ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্তটা ছিল ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’। ফাফ ডু প্লেসিদের বিপক্ষে টস জিতেও মুশফিক ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্তে বিস্মিত ছিলেন খোদ ধারাভাষ্যকাররাও। বারবারই তারা বলছেন, ফিল্ডিং না নিয়ে এই উইকেটে ব্যাটিং নেয়াটাই অধিক যুক্তিযুক্ত ছিল। মুশফিকের সিদ্ধান্ত দেখে প্রোটিয়া অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি যতটা না বিস্মিত হয়েছিলেন, তার চেয়ে খুশিই হয়েছিলেন বেশি। টস হারলেও যে তার চাওয়াই পূর্ণ হয়েছে। ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে নিখুঁত ব্যাটিং করেছিলেন দুই দক্ষিণ আফ্রিকান ওপেনার ডিন এলগার ও এইডেন মার্করাম। তারই ফসল তাদের ১৯৬ রানের বিশাল উদ্বোধনী জুটি। টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উদ্বোধনী জুটি। অথচ তাদের জুটি ২৮ পার হতেই ধারাভাষ্যকার বলছিলেন, শেষ ১৪ ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বোচ্চ রানের উদ্বোধনী জুটি! প্রথম টেস্ট বিশাল হার আর টস নিয়ে আলোচনার মাঝে ছিল দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর আগের দিন প্রতিপক্ষ দলের অধিনায়কের মুশফিককে নিয়ে খোচা মারাও! প্রচলিত প্রথা অনুযায়ী ম্যাচ শুরুর আগের দিন উভয় দলের অধিনায়ক সংবাদ সম্মেলন করে থাকেন। বৃহস্পতিবারও তাই হয়েছিল।

সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন মুশফিক ও ডু প্লেসি। পচেফস্ট্রুম থেকে ব্লুমফন্টেইনের উইকেট হতে পারে একটু আলাদা। এর পরিপ্রেক্ষিতে ডু প্লেসির সংবাদ সম্মেলনের এক পর্যায়ে তাকে সাংবাদিকরা প্রশ্ন ছুড়েছিলেন টস জিতলে কি নেবেন? ব্যাটিং না ফিল্ডিং? জবাবে ডু প্লেসি বলেছিলেন, টস জিতলে সিদ্ধান্ত নেয়ার ভার ছেড়ে দেবো বাংলাদেশ অধিনায়কের ওপর! আমরা চাই সিদ্ধান্তটা আমাদের হয়ে তিনিই নেন! ব্লুমফন্টেইনের মানগাউং ওভালেও টস জিতে ফিল্ডিং নেয় মুশফিক আবারো হতাশা নেমে আসে। বাংলাদেশের নির্বিষ বোলিংয়ের সুযোগে ৩ উইকেটে ৪২৮ রান তুলে দিন শেষ করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তাই আবারো প্রশ্ন উঠে টস জিতে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে। দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিন শেষে হতাশ কণ্ঠে বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক তাই বললেন, ‘আমার তো মনে হচ্ছে টসে জেতাই ভুল হয়ে গেছে ভাই! অধিনায়ক হিসেবে চেষ্টা করছি সততার সঙ্গে সব পালন করতে। এ দুই টেস্টে মনে হচ্ছে টস হারলে ভালো হয়। আগে কখনো এটা মনে হয়নি! এটা হয়তো আমার ব্যক্তিগত ব্যর্থতা। হয়তো দলকে ওভাবে উৎসাহিত করতে পারছি না বা বোলারদের দিক নির্দেশনা করতে পারছি না। এটা আমার ব্যর্থতা। বোলাররা চেষ্টা করেছে, হয়নি।’ আজ প্রথম দুই সেশনে মুশফিক ডিপ পয়েন্টের ফিল্ডার। এ নিয়ে তাঁর সোজাসাপ্টা জবাব, ‘একটা জিনিস পরিষ্কার করি, আমি ফিল্ডার হিসেবে খুব একটা ভালো না। আমার কোচরা চেয়েছেন বাইরে ফিল্ডিং করি। সামনে থাকলে আমার হাত থেকে নাকি রান হয়ে যায়। ক্যাচ উঠলে নাকি সুযোগ থাকে না ধরার। টিম ম্যানেজমেন্ট যেটা বলবে, সেটাই তো করতে হবে।’

Nazmus Sajid

Sports Fanatic!

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *