চিটফান্ডে ২০ কোটি টাকার প্রতারণা দ্রাবিড়ের সঙ্গে, দ্বারস্থ হতে হল পুলিশের

চিটফান্ডে ২০ কোটি টাকার প্রতারণা দ্রাবিড়ের সঙ্গে, দ্বারস্থ হতে হল পুলিশের 1

বড়োসড়ো আর্থিক প্রতারণার শীকার হলেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক তথা ভারতীয় যুব দলের কোচ রাহুল দ্রাবিড়। চিটফান্ড সংস্থায় ২০ কোটি টাকা লগ্নি করে এখন পস্তাচ্ছেন দ্রাবিড়। বাজারের চলতি সুদের তুলনায় অনেক বেশ টাকা ফেরত পাওয়ার প্রতিশ্রুতি পেয়ে ব্যাঙ্গলোরের বিক্রম ইনভেস্টেমেন্টস নামে এক চিটফান্ড সংস্থায় ওই পরিমান টাকা জমা করেছিলেন ভারতীয় এ দলের হেড কোচ রাহুল দ্রাবিড়। কিন্তু বেশি সুদ তো দূরের ব্যাপার তিনি তার দেওয়া আসল টাকাও ফেরত পান নি। শেষ পর্যন্ত দ্রাবিড়কে দ্বারস্থ হতে হয়েছে ব্যাঙ্গালুরু পুলিশের। পুলিশের একটি সূত্র অনুসারে বাজার থেকে ওই সংস্থা ৪০ শতাংশ হারে সুদের প্রতিশ্রুতি দিয়ে টাকা তুলত। তবে শুধু দ্রাবিড়ই নন ব্যাঙ্গালুরুর অনেক ক্রীড়াবিদই ওই সংস্থায় নিজেদের টাকা লগ্নি করেছিলেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন সাইনা নেহওয়াল, প্রকাশ পাড়ুকনের মত ব্যাডমিন্টন তারকারাও।

চিটফান্ডে ২০ কোটি টাকার প্রতারণা দ্রাবিড়ের সঙ্গে, দ্বারস্থ হতে হল পুলিশের 2

জানা গিয়েছে যে ব্যাঞগালুরু এক ক্রীড়াসাংবাদিকের মধ্যস্থতাতেই এই ক্রীড়াবিদেরা টাকা জমা দিয়েছিলেন ওই সংস্থায়। দ্রাবিড় অভিযোগ করেছে, তিনি ওই সংস্থার কাছে শেষ পর্যন্ত তার দেওয়া ২০ কোটি টাকা ফেরত চান। কিন্তু দ্রাবিড়কে দেওয়া হয় মাত্র ১৬ কোটি টাকা। দ্রাবিড় বার বার চাইলেও বাকি ৪ কোটি টাকা তিনি ফেরত পান নি।

চিটফান্ডে ২০ কোটি টাকার প্রতারণা দ্রাবিড়ের সঙ্গে, দ্বারস্থ হতে হল পুলিশের 3

ইতিমধ্যেই ব্যাঙ্গালুরু পুলিশ মোট ৮০০ জনকে মোটা সুদের লোভ দেখিয়ে প্রতারণা করার জন্য ওই সংস্থার মালিক রাঘবেন্দ্র শ্রীনাথ সহ ওই সংস্থার মোট পাঁচ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশের গ্রেপ্তারের তালিকায় রয়েছেন সেই ক্রীড়া সাংবাদিক সুত্রম সুরেশও। জানা গিয়েছে তিনি ওই সংস্থার হয়ে এজেন্টের কাজ করতেন। পুলিশের দেওয়া হিসেব থেকে জানা গিয়েছে যে ওই সংস্থার বিরুদ্ধে মোট ৩০০ কোটি টাকার আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *