ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ী খেলোয়াড় খাবারের দোকান চালিয়ে পেট চালাচ্ছেন! দেখে নিন 1

অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেটে ভালো খেলেই কি সকলেই যুবরাজ সিং, রোহিত শর্মা, কিংবা বিরাট কোহলির মত সাফল্য অর্জন করতে পারে? কেউ কেউ জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েও প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হয়, আবার কেউ কেউ জাতীয় দলে ডাক না পেয়েই ঘরোয়া ক্রিকেটেই নিজেকে পিষতে থাকে।

কিন্তু তবুও তারা ভাগ্যবান যে তারা অন্তত একটা উচ্চপর্যায়ে ক্রিকেট খেলাটা চালিয়ে যেতে পারছেন, কিন্তু অনেকেই আছেন যাদের সেই সৌভাগ্যটুকুও হয় না। সেই সৌভাগ্যহীনদের একজন হলে পেরি গোয়েল। ২৮ বছর বয়েসি এই ডান হাতি ব্যাটসম্যান এবং উইকেট কিপার ২০০৮ এ অনুর্ধ্ব ১৯ ওয়ার্ল্ড কাপে ভারতীয় দলে জায়গা করে নিয়েছিলেন।

ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ী খেলোয়াড় খাবারের দোকান চালিয়ে পেট চালাচ্ছেন! দেখে নিন 2

যদিও বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ওয়ার্ল্ডকাপ জেতা সেই দলের হয়ে তিনি একটাও ম্যাচ খেলার সুযোগ পান নি। ২০০৪-৫ মরশুমে গোয়েল প্রথম লাইম লাইটে আসেন, যখন তিনি অনূর্ধ্ব ১৫ পলি উমিরগড় ট্রফিতে পাঞ্জাবের হয়ে দিল্লির বিরুদ্ধে ১১৫ রানের একটি ইনিংস খেলেন। এরপরই দ্রুতই তিনি পাঞ্জাবের সিনিয়র দলে সুযোগ পান, কিন্তু সেখানেও কিছু করে দেখাতে তিনি ব্যর্থ হন। শেষ পর্যন্ত কিছুই করতে না পেরে তিনি ম্যানেজমেন্টে নিজের কেরিয়র গড়ার লক্ষ্যে ক্রিকেট থেকে বিদায় নেন।

কিছুদিন আগের প্রকাশিত একটি রিপোর্ট অনুযায়ী তিনি আরএসজি গ্রুপের ডাইরেক্টর ছিলেন। কিন্তু একটি লেটেস্ট রিপোর্ট অনুযায়ী প্রাক্তন অনুর্ধ্ব এই ক্রিকেটার লুধিয়ানায় একটি খাবারের দোকানের মালিক। যদিও ২০০৮ বিশ্বকাপ জয়ী দলে গোয়েলই একমাত্র ক্রিকেটার নন যিনি খেলাটাই ছেড়ে দিয়েছেন। আজিতেশ আরগালও সেই দলের একজন ক্রিকেটার যিনি বিশ্বকাপ ফাইনালের ম্যান অফ থে ম্যাচ হয়েছিলেন। এবং তিনিও খেলা ছেড়ে বর্তমানে বডোদরায় ইনকাম ট্যাক্স ইনস্পেকটর হিসেবে কর্মরত। এবং সবচেয়ে মজার ব্যাপার হল এই যে নেপোলিয়য়ান এবং আইনস্টাইনও একসময় খেলা ছেড়ে দিয়েছিলেন। তা সত্ত্বেও তারা নিজেদের অন্য জায়গায় সাফল্য অর্জন করেছিলেন।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *