একের পর এক চোট আঘাতে বিপর্যস্ত সিএসকে, এবার ছিটকে গেলেন রায়নাও

প্রায় দু বছর পর আইপিএলে দারুণভাবে ফিরে এসেছে চেন্নাই সুপার কিংস। কিন্তু তা সত্ত্বেও এই আইপিএল তারা যথেষ্ট চাপে রয়েছে। একেই ঘরের মাঠে ম্যাচ হওয়া নিয়ে স্থানীয় রাজনৈতিক দলগুলির কোপে পড়েছে তারা, সেক্ষেত্রে চেন্নাইয়ের হোম ম্যাচ চিপক থেকে সরিয়ে বিশাখাপট্টনমে করার কথা ভাবছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। অন্য দিকে একের পর এক চোট আঘাতে প্রায় হাসপাতালে পরিনত হয়েছে তাদের ক্যাম্প। আইপিএল শুরুর কয়েকদিন আগেই তাদের দল থেকে চোট পেয়ে ছিটকে গিয়েছিলেন মিচেল স্যান্টানার। এরপর মুম্বাইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচে তাদের ইনিংস চলাকালীণ হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান কেদার যাদব। প্রায় সপ্তাহ দুয়েক তিনি মাঠে নামতে পারবেন না। এবার তাদের চোটপ্রাপ্ত খেলোয়াড়দের তালিকায় নাম লেখালেন তাদের নির্ভযোগ্য মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান সুরেশ রায়না। ঘরের মাঠে কেকেআরের বিরুদ্ধে তাদের ম্যাচ চলাকালীন পায়ের পেশিতে চোট পান তিনি। তা সত্ত্বেও পুরো ম্যাচে খেলেন তিনি। চোট নিয়েই চেন্নাইয়ের ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে বড় শট খেলতে গিয়ে ক্যাচ দিয়ে বসেন রায়না।

একের পর এক চোট আঘাতে বিপর্যস্ত সিএসকে, এবার ছিটকে গেলেন রায়নাও 1

তখনই সুরেশ রায়নার চোটের লক্ষন তাদের অশনি সঙ্কেত দিয়েছিল। যা সত্যি সত্যি তাদের আশঙ্কাকে সঠিক প্রমান করল। ম্যাচ শেষে সুরেশ রায়নার ডাক্তারি পরীক্ষা করে তারা সরকারিভাবে জানিয়ে দিয়েছে যে তাদের আগামি দুটি ম্যাচে আপাতত খেলতে পারবেন না রায়না। প্রসঙ্গত ২ বছর পর আইপিএল অভিযান শুরু করেই পরপর দুটি ম্যাচে জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংস। যা মাঠের মধ্যেকার তাদের চলাফেরার শারীরি ভাষাকেই বদলে দিয়েছে। যার প্রভাব দেখা গিয়েছিল কলকাতা ম্যাচে। কলকাতার বিরুদ্ধে বড় রানের লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়েও দমে যায় নি তারা। শেষ দিকে স্যাম বিলিংসের ব্যাটিং ঝড়ে অনায়াসেই বড় লক্ষ্য তাড়া করে এক বল বাকি থাকতেই জয় তুলে নেয় তারা। তাদের দলে রয়েছে শেন ওয়াটসন থেকে শুরু করে, স্যাম বিলিংস ডেভিড ওয়ার্নার রবীন্দ্র জাদেজার মত এক ঝাঁক ম্যাচ উইনার। নিজেদের দিনে যারা বিপক্ষকে একাই শেষ করে দিতে পারেন।

একের পর এক চোট আঘাতে বিপর্যস্ত সিএসকে, এবার ছিটকে গেলেন রায়নাও 2

এই আইপিএলে এখনও পর্যন্ত তাদের পারফর্মেন্সের সুবাদে খেতাব জেতার অন্যতম দাবীদার মনে হচ্ছে সিএসকেকে। তবে তাদের আইপিএল অভিযানকে কিছুটা হলেও দমকে দিচ্ছে এই চোট আঘাত। আপাতত স্যান্টেনার এবং কেদার যাদবকে পাচ্ছে না তারা। এই অবস্থায় সুরেশ রায়নার চোট তাদের যথেষ্ট চিন্তায় রেখেছে। শধু ব্যাটিংই নয় ফিল্ডিংয়েও তাদের অন্যতম সেরা ভরসা সুরেশ রায়না। যা কলকাতা ম্যাচেই প্রমান করেছেন তিনি। দুরন্ত একটি ক্যাচে ওই ম্যাচে ভয়ংকর হয়ে ওঠার আগেই নারিন কে ফিরিয়ে দেন তিনি। ঠিক তারপরই একটি দুরন্ত ডাইরেক্ট থ্রোয়ে আরেক ব্যাটসম্যান রবীন উথাপ্পাকেও ফিরিয়ে দেন তিনি। অন্যদিকে হলুদ ব্রিগেডের মিডল অর্ডারেও বড় ভরসা তিনি। তার অনুপস্থিতিতে আগামি ম্যাচ গুলিতে তাদের মিডল অর্ডারকে যথেষ্ট নড়বড়ে দেখাচ্ছে।

একের পর এক চোট আঘাতে বিপর্যস্ত সিএসকে, এবার ছিটকে গেলেন রায়নাও 3

তবে এই খামতি ঢাকতে তারা তাদের ওপেনিং জুটির উইনিং কম্বিনেশন ভেঙে শেন ওয়াটসন বা আম্বাতি রায়ডুর মধ্যে কোনও একজনকে হয়ত মিডল অর্ডারে পাঠাতে পারেন সেক্ষেত্রে ওয়াটসন বা রায়ডুর সঙ্গে ওপেন করতে পারেন মুরলী বিজয়। অন্যদিকে চার নম্বরে ধোনি এখনও অব্ধি কোনও সুবিধাই করে উঠতে পারেন নি। কলকাতা ম্যাচে সুরেশ রায়নার আউটের পর স্যাম বিলিংসের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন মাহি। এই দুজনে মিলে ৫৪ রান যোগ করলেও ব্যক্তিগতভাবে ২৫ রানের বেশি করে উঠতে পারেন নি সিএসকে অধিনায়ক। ফলে রায়নার অনুপস্থিতিতে যথেষ্ট বিপদের মধ্যেই পড়তে পারেন তারা বলে ধারণা বিশেষজ্ঞ মহলের।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *